Alexa গণশুনানিতে গ্যাসের দাম ১০৩ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব

ঢাকা, সোমবার   ২১ অক্টোবর ২০১৯,   কার্তিক ৬ ১৪২৬,   ২১ সফর ১৪৪১

গণশুনানিতে গ্যাসের দাম ১০৩ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব

নিজস্ব প্রতিবেদক

ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত : ০১:০১ পিএম, ১২ মার্চ ২০১৯ মঙ্গলবার

ফাইল ফটো

ফাইল ফটো

আবাসিক সব শ্রেণির গ্রাহকের জন্য গ্যাসের দাম দ্বিগুণের বেশি করার প্রস্তাব দিয়েছে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ। সংস্থাটি গ্যাসের দাম গড়ে ১০৩ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব দিয়েছে। এছাড়া গ্যাসের সঞ্চালন চার্জ ৩৩ শতাংশ বাড়ানোর আবেদন করে জিটিসিএল।

মঙ্গলবার এ প্রস্তাবনার কথা জানানো হয়।

প্রস্তাবনা অনুযায়ী, গৃহস্থালি পর্যায়ে দুই বার্নার চুলার জন্য গ্যাসের দাম ৮০০ থেকে ১ হাজার ৪৪০ টাকা এবং এক বার্নার চুলার দাম ৭৫০ থেকে ১ হাজার ৩৫০ টাকা করার কথা বলা হয়েছে।

জানা গেছে, প্রস্তাবে শিল্প ও সার কারখানায় ব্যবহৃত গ্যাসের দামও বাড়ানোর কথাও বলা হয়েছে।

নয় মাসের ব্যবধানে আবারো গ্যাসের দাম বাড়াতে সোমবার থেকে গণশুনানি শুরু করেছে এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন। প্রথম দিনে গ্রাহক পর্যায়ে গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রস্তাবনা দেয় পেট্রোবাংলা। তবে গণশুনানিতে গ্যাসের দাম বাড়ানোর প্রক্রিয়ার তীব্র বিরোধিতা করেন বিশেষজ্ঞ ও অংশীজনরা।

কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ ক্যাবের জ্বালানি উপদেষ্টা অধ্যাপক শামসুল আলম বলছেন, একবার মূল্যবৃদ্ধির ১২ মাসের মধ্যে নতুন করে মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব আইন অনুযায়ী অবৈধ।

গ্যাসের দাম বাড়ানোর কারণ হিসেবে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, গ্যাসে বড় অংকের একটা ভর্তুকি দেয় সরকার। সেই ভর্তুকিটা আমরা ধীরে ধীরে কমিয়ে নিয়ে আসার চেষ্টা করছি। এই যে বাড়াচ্ছি তার জন্য যে আমাদের লাভ হবে তা তো না।

উল্লেখ্য, ২০১৭ সালের ১ মার্চ প্রথম দফায় ও ১ জুন থেকে দ্বিতীয় দফায় গ্যাসের দাম বাড়ানো হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমআরকে