Alexa আয়শার চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন ইউএনও

ঢাকা, রোববার   ১৮ আগস্ট ২০১৯,   ভাদ্র ৩ ১৪২৬,   ১৬ জ্বিলহজ্জ ১৪৪০

আয়শার চিকিৎসার দায়িত্ব নিলেন ইউএনও

জামালপুর প্রতিনিধি

ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

প্রকাশিত : ০২:২১ পিএম, ১০ জুলাই ২০১৯ বুধবার

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

জামালপুরের বকশীগঞ্জে শিশু বুশরা আক্তার আয়শার চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার দেওয়ান মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম।

বুধবার দুপুরে আয়শা ও তার বাবা চাঁন মিয়াকে ডেকে চিকিৎসার জন্য দ্রুত আয়শাকে ভারতের চেন্নাইয়ে পাঠানোর আশ্বাস দেন তিনি। এছাড়া বিত্তবানদেরও আয়শার পাশে দাঁড়ানোর আহবান জানান ইউএনও।

এ সময় উপজেলা সহকারী ভূমি কমিশনার সাঈদা পারভীন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল ইসলাম বিজয়, মুক্তিযোদ্ধা মফিজ উদ্দিন, নারী ভাইস চেয়ারম্যান মাসুমা ইয়াসমিন স্মৃতি, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা সুলতান মাহমুদ, বকশীগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আবদুল লতিফ লায়ন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

৮ জুলাই ‘শিশু সন্তানকে বাঁচাকে অসহায় বাবার আকুতি’ শিরোনামে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদটি ইউএনও’র নজরে এলে তিনি এগিয়ে আসেন।

আয়েশার বাবা চাঁন মিয়া বলেন, মেয়ের কষ্ট আর সহ্য হয় না। ইউএনও স্যার আমার মেয়ের চিকিৎসার দায়িত্ব নিয়েছেন। এর চেয়ে বড় পাওয়া আর কি হতে পারে। মহৎ মানুষটির জন্য সারাজীবন দোয়া করবো।

চাঁন মিয়া আরো জানান, সাত বছর বয়স থেকেই আয়শার বাম চোখের সমস্যা  দেখা দেয়। চোখটি ফুলে অনেক বড় হয়ে গেছে। সে ঠিকমতো ঘুমাতে পারে না। মেয়েকে সুস্থ করতে চাঁন মিয়া সর্বোচ্চ চেষ্টা করেন। কিন্তু জামালপুর-ময়মনসিংহ-ঢাকার বিভিন্ন হাসপাতালে গিয়েও কোনো লাভ হয়নি। পরে চেন্নাইয়ের একটি হাসপাতালে আয়শাকে নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসকরা জানান আয়শার চোখে অপারেশন করতে হবে। অপারেশন ও যাবতীয় খরচসহ ৮০ হাজার টাকা লাগবে। কিন্তু সিএনজি চালক চাঁন মিয়ার পক্ষে এ ব্যয়ভার বহন করা অসম্ভব। তাই নিরুপায় হয়ে মেয়ের চিকিৎসার জন্য বিত্তবানদের প্রতি সহযোগিতা চান তিনি।

বকশীগঞ্জের ইউএনও দেওয়ান মোহাম্মদ তাজুল ইসলাম জানান, বিত্তবানরা সহযোগিতা করলেই স্বাভাবিক জীবন ফিরে পাবে শিশু আয়শা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর