ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯,   আশ্বিন ২ ১৪২৬,   ১৭ মুহররম ১৪৪১

Akash

জুন ০৮,২০১৯

নৌকাবাইচ

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় তিতাস নদীতে হয়ে গেল ঐতিহ্যবাহী নৌকাবাইচ। এমন আয়োজনে দর্শকের উপস্থিতি ছিল উল্লেখযোগ্য।  ছবি: ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

প্রকৃতির সৌন্দর্য্য

প্রকৃতির আপন লীলাখেলায় মেতে আছে অপার সৌন্দর্যের জলপাথরের ভূমি বিছনাকান্দি। যা সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলায় অবস্থিত!  ছবি: চয়ন বিশ্বাস, ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি

হাটজুড়ে ধানের চারা

চলতি বন্যায় ধান ক্ষেতের ক্ষতি হয়েছে। এ ক্ষতি পুষিয়ে নিতে ব্যস্ত এখন কৃষক। তাই এই সময়ে ধানের চারার বেশ কদর বেড়েছে। জমে উঠেছে ধানের চারার হাট। ছবিটি শনিবার দুপুরে টাঙ্গাইলের এলেঙ্গা হাট থেকে তোলা। ছবিঃ মো. আবু কাওছার আহমেদ, টাঙ্গাইল প্রতিনিধি।

বৈত

গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য বৈত। বর্ষার পর শরৎ ও হেমন্তের শেষে গ্রামের খাল-বিল যখন শুকায়, তখন ওই সব বিল-ঝিলে মাছ শিকারে যারা যেতেন তাদের গ্রাম্যভাষা বলা হতো বৈত। কিন্তু এখন শরতের শুরুতেই গাইবান্ধায় গ্রামের বিলগুলোতে নামছে বৈত। গাইবান্ধা সদর উপজেলার ঘাঘোয়ার বিল থেকে ছবিটি তোলা। ছবি: এবিএম ছাত্তার, গাইবান্ধা প্রতিনিধি

ইলিশ সংরক্ষণ

বঙ্গোপসাগরে জেলেদের জালে ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ। সারাবছর তো ইলিশ পাওয়া যায় না। বাজারে নোনা ইলিশের চাহিদা বেশ। তাই লবণ দিয়ে চলছে ইলিশ সংরক্ষণ। চট্টগ্রাম ফিশারীঘাট থেকে ছবিটি তোলা। ছবি: জালালউদ্দিন সাগর, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি  

দুরন্তপনা

কিশোরবেলার দুরন্তপনায় মেতেছে। কার সাধ্য তাকে আটকে রাখে।  কিশোরগঞ্জ চামড়াবন্দর হাওড়ের একটি বাউন্ডারি দেয়াল থেকে পানিতে এভাবেই লাফিয়ে পড়ে কিশোরটি।  ছবি: মো. আবু হানিফ সরকার,  নান্দাইল (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি  

ইলিশ সংরক্ষণ

বঙ্গোপসাগরে জেলেদের জালে ধরা পড়ছে ঝাঁকে ঝাঁকে ইলিশ। তবে সারাবছর তো ইলিশ পাওয়া যায় না।  বাজারে নোনা ইলিশের চাহিদা বেশ। তাই লবণ দিয়ে চলছে ইলিশ সংরক্ষণ। চট্টগ্রামের ফিশারীঘাট থেকে ছবিটি তোলা। ছবি: জালালউদ্দিন সাগর, চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

অনিয়ম

কুড়িগ্রামের ফুলাড়ী উপজেলার পূর্ব-ধনিরাম আবাসনগামী রাস্তার খালের উপর নির্মিত সেতুটি মাত্র চার মাসেই দেবে গেছে। ফের ভোগান্তি যেন চোখ রাঙাচ্ছে। ছবি: ইউনুছ আলী আনন্দ, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

ঝুঁকি

মানিকগঞ্জের হরিরামপুর উপজেলার সঙ্গে  ৪ ইউনিয়নের মানুষের যোগাযোগের স্থান রামকৃঞ্চপুর মোল্লাবাড়ী এলাকা। এখানে ইছামতী নদী অংশে ব্রিজ না থাকায় ঝুঁকি নিয়ে বাঁশের সাঁকো দিয়ে পার হচ্ছে এলাকাবাসী । ছবি: আবুল বাসার আব্বাসী, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

বেদনার অবসর

মেঘনায় ইলিশ মাছ না থাকায় তজুমদ্দিন উপজেলার জেলেরা নৌকাগুলি সারিবদ্ধভাবে বেঁধে রেখেছেন। এ অবসর বেদনার। ছবি: হেলাল উদ্দিন লিটন, তজুমদ্দিন (ভোলা) প্রতিনিধি

বন্যার আস্থা

বন্যায় কদর বেড়েছে নৌকার। বন্যায় চলাচলের সুবিধার্থে একজন নৌকা কিনে ফিরছেন ভ্যানযোগে।  রোববার মানিকগঞ্জের লেমুবাড়ী থেকে ছবিটি তুলেছেন আবুল বাসার আব্বাসী, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি।

দুর্ভোগ

সুনামগঞ্জ তাহিরপুর সড়কে চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে সর্ব স্থরের জনসাধারণ। ছবি: জাহাঙ্গীর আলম ভূঁইয়া, সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি।

বিদেশি ফলের চাষ

দিনাজপুর হটিকালচার-এ শোভা পাচ্ছে থোকা থোকা বিদেশি ফল আলুবোখরা।  ছবি: সুলতান মাহমুদ চৌধুরী, দিনাজপুর প্রতিনিধি

বর্ষার রূপ

‘আকাশে আষাঢ় এলো, বাংলাদেশ বর্ষায় বিহবল’ বুদ্ধদেব বসুর এ লাইনটি ধরেই যেন সেজেছে প্রকৃতি। মেলে ধরেছে বর্ষার রূপ। মানিকগঞ্জের দৌলতপুর থেকে তোলা ছবি। ছবি: আব্দুর রাজ্জাক, ঘিওর (মানিকগঞ্জ) প্রতিনিধি

স্থাপত্য

১৬ নদ-নদীবেষ্টিত জেলা কুড়িগ্রাম। জেলা শহরের মধ্যখানে শোভা পাচ্ছে কৃত্রিম তৈরি জাতীয় ফুল শাপলা। এই শাপলা ফুলের অবস্থান থেকে অনেকে পরিমাপ করেন কুড়িগ্রাম শহর থেকে যাতায়াতগামী পথের দূরত্ব। ছবি: ইউনুস আলী আনন্দ, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

পরিবেশ দূষণ

শরীয়তপুর সরকারি কলেজ ও আধুনিক স্টেডিয়ামের পাশে পৌরএলাকার ময়লা ফেলে এভাবেই পরিবেশ দূষণ করা হচ্ছে। ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে পথচারীদের।  ছবি: ফাহিমা আক্তার পিংকি, শরীয়তপুর প্রতিনিধি

ঐতিহ্যের লালন

অগ্রগতির এ সময়েও কেউ  এভাবে ঐতিহ্য লালন করতে পারেন ভাবাই যায় না। হঠাৎ কোনো বরকে পালকিতে চড়ে যাত্রা করতে দেখলে খানিকটা অবাক হওয়াই স্বাভাবিক। অবাক হয়েই মানিকগঞ্জের সিংগাইরের বাংগালা থেকে ছবিটি তুলেছেন আবুল বাসার  আব্বাসী, মানিকগঞ্জ প্রতিনিধি

মধুমাস

গাছে গাছে মধুমাসের ছবি। শোভা পাচ্ছে মৌসুমী ফল। ডাল থেকে শুরু করে গাছের গোড়ায়ও ঝুলছে জাতীয় ফল কাঁঠাল। ছবিটি কুড়িগ্রামের পুব-ধনিরাম এলাকা থেকে তোলা।  ছবি: ইউনুছ আলী আনন্দ, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি

বীজ বপন

চলছে বোরো বীজ বপনের মৌসুম। ব্যস্ত কৃষকরা। বরগুনা সদর উপজেলার হেউলীবুনিয়া থেকে ছবিটি তুলেছেন রুদ্র রোহান, বরগুনা প্রতিনিধি

অসচেনতা

শরীয়তপুর সদর হাসপাতালের প্রধান ফটকে এভাবেই মোটরসাইকেল রেখে আটকে দেয়া হয়। এতে যাতায়াতের সময় ভোগান্তির শিকার হন রোগীরা।  ছবি: ফাহিমা আক্তার পিংকি, শরীয়তপুর প্রতিনিধি

ব্যাঙের জলকেলি

জেগেছে নব যৌবন। রাতভর ডাকাডাকি, প্রণয় সম্ভাষণ। এ যেন রাজধানীর বুকে আষাঢ়ের গল্প। নগরীর মতিঝিল মাঠে জমে থাকা জলাশয় এখন ব্যাঙের দখলে। রাত গভীরে দেখে মনে হবে এ যেন অজপাড়া গাঁ! দূর থেকে ব্যাঙের ডাকাডাকি কানে ভেসে আসে স্মৃতির পাতা হয়ে। নিজেকে নিয়ে যায় নষ্টালজিয়া। ছবি: জসিম

ব্যাঙের জলকেলি

জেগেছে নব যৌবন। রাতভর ডাকাডাকি, প্রণয় সম্ভাষণ। এ যেন রাজধানীর বুকে আষাঢ়ের গল্প। নগরীর মতিঝিল মাঠে জমে থাকা জলাশয় এখন ব্যাঙের দখলে। রাত গভীরে দেখে মনে হবে এ যেন অজপাড়া গাঁ! দূর থেকে ব্যাঙের ডাকাডাকি কানে ভেসে আসে স্মৃতির পাতা হয়ে। নিজেকে নিয়ে যায় নষ্টালজিয়া। ছবি: জসিম

ব্যাঙের জলকেলি

জেগেছে নব যৌবন। রাতভর ডাকাডাকি, প্রণয় সম্ভাষণ। এ যেন রাজধানীর বুকে আষাঢ়ের গল্প। নগরীর মতিঝিল মাঠে জমে থাকা জলাশয় এখন ব্যাঙের দখলে। রাত গভীরে দেখে মনে হবে এ যেন অজপাড়া গাঁ! দূর থেকে ব্যাঙের ডাকাডাকি কানে ভেসে আসে স্মৃতির পাতা হয়ে। নিজেকে নিয়ে যায় নষ্টালজিয়া। ছবি: জসিম

ব্যাঙের জলকেলি

জেগেছে নব যৌবন। রাতভর ডাকাডাকি, প্রণয় সম্ভাষণ। এ যেন রাজধানীর বুকে আষাঢ়ের গল্প। নগরীর মতিঝিল মাঠে জমে থাকা জলাশয় এখন ব্যাঙের দখলে। রাত গভীরে দেখে মনে হবে এ যেন অজপাড়া গাঁ! দূর থেকে ব্যাঙের ডাকাডাকি কানে ভেসে আসে স্মৃতির পাতা হয়ে। নিজেকে নিয়ে যায় নষ্টালজিয়া। ছবি: জসিম

ব্যাঙের জলকেলি

জেগেছে নব যৌবন। রাতভর ডাকাডাকি, প্রণয় সম্ভাষণ। এ যেন রাজধানীর বুকে আষাঢ়ের গল্প। নগরীর মতিঝিল মাঠে জমে থাকা জলাশয় এখন ব্যাঙের দখলে। রাত গভীরে দেখে মনে হবে এ যেন অজপাড়া গাঁ! দূর থেকে ব্যাঙের ডাকাডাকি কানে ভেসে আসে স্মৃতির পাতা হয়ে। নিজেকে নিয়ে যায় নষ্টালজিয়া। ছবি: জসিম

সাহসের শৈশব

গ্রামীণ জীবনে দুরন্ত শৈশবের সঙ্গী হয়ে থাকে সাঁকো। সাঁকোর নিচেই থাকে থৈ থৈ পানি। এই অবুঝ শিশুটিও সাহসকে সঙ্গী করে ঝুঁকি নিয়ে সাঁকো পার হচ্ছে। ছবিটি ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার চাতলপার ইউনিয়ন থেকে তোলা।  

কাঁঠাল

মধুমাস চলছে। এ মাসে কুড়িগ্রামে অন্যান্য ফলের মধ্যে গাছে গাছে পাঁকতে শুরু করেছে কাঠাল। পুষ্টি সমৃদ্ধ এ কাঁঠাল খাওয়ার ধুম পড়েছে বাড়ি-বাড়ি। তাই কাঁঠালের স্বাদ নিতে এক কিশোরকে গাছে উঠছে এক কিশোর। ছবি: ইউনুছ আলী আনন্দ, কুড়িগ্রাম প্রতিনিধি