তিনদিন পর মিলল শিশুর লাশ, খোঁজ নেই মায়ের

ঢাকা, রোববার   ২৬ জুন ২০২২,   ১২ আষাঢ় ১৪২৯,   ২৬ জ্বিলকদ ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

দুই মেয়েকে নিয়ে শীতলক্ষ্যায় ঝাঁপ 

তিনদিন পর মিলল শিশুর লাশ, খোঁজ নেই মায়ের

গাজীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৫৭ ২৩ জুন ২০২২  

শীতলক্ষ্যা নদী থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার

শীতলক্ষ্যা নদী থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার

গাজীপুরের কাপাসিয়া উপজেলার সিংহশ্রী এলাকায় শীতলক্ষ্যা নদীতে দুই মেয়েকে নিয়ে নদীতে ঝাঁপ দেওয়া মায়ের খোঁজ এখনো মিলেনি। এদিকে, তিনদিন পর শীতলক্ষ্যা নদীর নরসিংদী এলাকা থেকে মায়ের সঙ্গে ঝাঁপ দেওয়া শিশু মুর্শিদার লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

বুধবার সন্ধ্যা পৌনে ৭টায় নরসিংদী জেলার পলাশ থানার নিজামুদ্দিন ঘাট এলাকায় শিশুর লাশ ভেসে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে নৌ-পুলিশ গিয়ে ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করে বলে জানান নরসিংদী বঙ্গারচর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) আমিরুল ইসলাম। পরে ওই শিশুর স্বজনদের খবর দিলে রাতেই তারা নৌ-পুলিশ ফাঁড়িতে গিয়ে লাশ শনাক্ত করেন।

এ ঘটনায় এখনো নিখোঁজ রয়েছে শিশুটির মা আরিফা আক্তার। তিনি কাপাসিয়া উপজেলার রায়েদ ইউনিয়নের বিবাদিয়া গ্রামের মোহাম্মদ আলী মুন্সির মেয়ে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে নরসিংদী বঙ্গারচর নৌ-পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) আমিরুল ইসলাম বলেন, সন্ধ্যায় পলাশ থানার নিজামুদ্দিন ঘাটে একটি লাশ ভেসে থাকতে দেখে পুলিশে খবর দেয় স্থানীয়রা। পরে নৌ-পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে। প্রাথমিকভাবে লাশটি গাজীপুরের কাপাসিয়ায় শীতলক্ষ্যা নদীতে ঝাঁপ দিয়ে নিখোঁজ মা-মেয়ের মধ্যে শিশু মেয়েটির বলে শনাক্ত করি। পরে নিখোঁজদের স্বজনদের ছবি পাঠানো হয়। রাতেই তারা ফাঁড়িতে এসেলাশ নিখোঁজ শিশু মুর্শিদা আক্তারের বলে শনাক্ত করেন। পরে আইনগত প্রক্রিয়া শেষে লাশ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়। 

নিহত শিশুর মামা মোজাম্মেল হোসেন বলেন, আমাদের এক আত্মীয় ফেসবুকে ছবি দেখে প্রথমে লাশ উদ্ধারের বিষয়টি জানান। এরপর নরসিংদীর পলাশ থানার বঙ্গারচর নৌ-ফাঁড়িতে যোগাযোগ করলে ছবি এবং পোশাক দেখে নিশ্চিত হই। রাতেই লাশ কাপাসিয়ায় নিয়ে আসি। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টায় জানাজা শেষে দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

গত রোববার দুপুর ১২টার দিকে গাজীপুরের কাপাসিয়ার সিংহশ্রী গ্রামের বরামা সেতু এলাকা শীতলক্ষ্যা নদীতে দুই মেয়েকে নিয়ে নদীতে ঝাঁপ দিয়েছিল এক মা। এ সময় স্থানীয়রা এক শিশুকে উদ্ধার করলেও মা ও এক মেয়ে নিখোঁজ ছিল। তাদের উদ্ধারে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরি দল কাজ শুরু করলেও তাদের উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ

English HighlightsREAD MORE »