গত ৫০ বছরে সবচেয়ে সৎ রাজনীতিকের নাম শেখ হাসিনা: ওবায়দুল কাদের

ঢাকা, সোমবার   ০৩ অক্টোবর ২০২২,   ১৯ আশ্বিন ১৪২৯,   ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Beximco LPG Gas

গত ৫০ বছরে সবচেয়ে সৎ রাজনীতিকের নাম শেখ হাসিনা: ওবায়দুল কাদের

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৪১ ১৭ মে ২০২২   আপডেট: ১৬:১৩ ১৭ মে ২০২২

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের- ফাইল ফটো

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের- ফাইল ফটো

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, গত ৫০ বছরে সবচেয়ে সৎ রাজনীতিকের নাম বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

মঙ্গলবার রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে শেখ হাসিনার স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ এ সভার আয়োজন করে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, গণতন্ত্রকে সুসংগঠিত করতে বাংলার পথ-প্রান্তর চষে বেড়িয়েছেন বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। বাংলাদেশে সৎ পরিবারের মধ্যে বঙ্গবন্ধুর পরিবার অন্যতম। গত ৫০ বছরে সবচেয়ে সৎ রাজনীতিকের নাম শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, শেখ হাসিনা শুধু এখন বাংলাদেশের নেতা নন, তিনি বিশ্বের নেতা। তার বিকল্প কোনো নেতা নেই, তার বিকল্প তিনি নিজেই।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ হাসিনা যদি ১৯৮১ সালের ১৭ মে বাংলাদেশে ফিরে না আসতেন, তাহলে কখনো বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হতো না। দেশে কোনো গণতন্ত্র থাকতো না। শেখ হাসিনা দেশে ফিরে না আসলে হয়তো অসাম্প্রদায়িক দেশ গড়া সম্ভব হতো না। তিনি না থাকলে নিজ অর্থায়নে পদ্মাসেতু হতো না।

শেখ হাসিনার নেতৃত্বের দক্ষতার বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, শেখ হাসিনার সাহসের সোনালি ফসলের নাম পদ্মাসেতু। বাংলাদেশের নিজস্ব অর্থায়নে তৈরি করা পদ্মাসেতু জুন মাসে চালু করা হবে। পদ্মাসেতুর কাজ ৯৮ শতাংশ শেষ হয়েছে। হঠাৎ কেউ কেউ পদ্মাসেতুর উদ্বোধনের তারিখ বলে বেড়াচ্ছেন। এত অধৈর্য হবেন না। পদ্মাসেতু উদ্বোধন করার জন্য চূড়ান্ত তারিখ দেবেন জননেত্রী শেখ হাসিনা।

ওবায়দুল কাদের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের অনেক উন্নয়ন-অগ্রগতি হয়েছে। দেশের মানুষ শেখ হাসিনাকে নিয়ে গর্ব করে। কিছু কিছু দল আছে যাদের এত উন্নয়ন-অর্জন ভালো লাগে না।

আলোচনা সভায় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য বেগম মতিয়া চৌধুরী, শাজাহান খান, জাহাঙ্গীর কবির নানক, আব্দুর রহমান, মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব উল আলম হানিফ, বাহাউদ্দিন নাছিম, ড. হাছান মাহমুদ, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক, এসএম কামাল হোসেন, আফজাল হোসেন, প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আব্দুস সোবহান গোলাপ, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, বন ও পরিবেশ বিষয়ক সম্পাদক দেলোয়ার হোসেন, বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিষয়ক সম্পাদক আব্দুস সবুর, কার্যনিবাহী কমিটির সদস্য ইকবাল হোসেন অপু প্রমুখ।

ডেইলি বাংলাদেশ/জাআ/জেডআর/এইচএন

English HighlightsREAD MORE »