ঈদের পর গার্মেন্টসসহ শিল্পপ্রতিষ্ঠান বন্ধের বিষয়ে যা জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

ঢাকা, রোববার   ২৫ জুলাই ২০২১,   শ্রাবণ ১০ ১৪২৮,   ১৪ জ্বিলহজ্জ ১৪৪২

ঈদের পর গার্মেন্টসসহ শিল্পপ্রতিষ্ঠান বন্ধের বিষয়ে যা জানালেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:৪৭ ১৭ জুলাই ২০২১   আপডেট: ১৪:৩৩ ১৭ জুলাই ২০২১

ফরহাদ হোসেন। ফাইল ছবি

ফরহাদ হোসেন। ফাইল ছবি

ঈদের পর আগামী ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট সরকার ঘোষিত কঠোর লকডাউনের সময় গার্মেন্টসসহ সব শিল্প প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন।

শনিবার বিজিবি-৬ এর ৯৬তম ব্যাচের সমাপনী কুচকাওয়াজ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।  ২৩ জুলাই থেকে ১৪ দিনের লকডাউন আরো কঠোর হবে বলেও জানিয়েছেন প্রতিমন্ত্রী। 

এদিকে ঈদের পরে শুরু হওয়া লকডাউনে শিল্প-কারখানা খোলা রাখার আহ্বান জানিয়েছিল দেশের ব্যবসায়ীদের শীর্ষ সংগঠন এফবিসিসিআই। এ সময় গামেন্টসসহ শিল্প-কারাখানা বন্ধের ঘোষণাটি প্রত্যাহার করার জন্য আবেদন জানিয়েছেন শিল্প কারখানার মালিকরা। 

আজ শনিবার এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত জানানোর কথা ছিল। শেষ পর্যন্ত করোনা সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে শিল্প-কারখানা বন্ধ রাখার ঘোষণা বহাল রাখা হলো।

এর আগে, ঈদুল আজহা উপলক্ষে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আরোপিত বিধিনিষেধ শিথিল করলেও আগামী ২৩ জুলাই থেকে ৫ আগস্ট পর্যন্ত ফের কঠোর লকডাউনের ঘোষণা দিয়ে গত মঙ্গলবার প্রজ্ঞাপন জারি করে সরকার।

প্রজ্ঞাপনে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপন, জনসাধারণের যাতায়াত, ঈদ পূর্ববর্তী ব্যবসা-বাণিজ্য পরিচালনা, দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থা এবং অর্থনৈতিক কার্যক্রম স্বাভাবিক রাখার স্বার্থে- এ সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। এছাড়া এ সময়েও জনগণকে সব অবস্থায় সতর্ক থাকতে, মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি ‘কঠোরভাবে’ অনুসরণ করতে হবে। 

ঈদের ছুটির পর ২৩ জুলাই সকাল ৬টা থেকে ফের শুরু হবে সর্বাত্মক লকডাউন। এ লকডাউন আগের চেয়েও কঠিন হবে। আগের লকডাউনে গার্মেন্ট-কলকারখানা চালু ছিল। ঈদ পরবর্তী লকডাউনে সরকারি-বেসরকারি অফিস, গার্মেন্ট, শিল্পকারখানা, মার্কেট ও দোকানপাটসহ সবই প্রায় বন্ধ থাকবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর