প্রধানমন্ত্রীর সাহসী পদক্ষেপে পদ্মাসেতুর কাজ শেষ পর্যায়ে: চিফ হুইপ

ঢাকা, রোববার   ১১ এপ্রিল ২০২১,   চৈত্র ২৮ ১৪২৭,   ২৭ শা'বান ১৪৪২

প্রধানমন্ত্রীর সাহসী পদক্ষেপে পদ্মাসেতুর কাজ শেষ পর্যায়ে: চিফ হুইপ

মাদারীপুর প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৫৯ ৫ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১৯:৫৫ ৫ মার্চ ২০২১

মাদারীপুরের পদ্মাসেতুর টোল প্লাজায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ডিজিটাল ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর ই আলম চৌধুরী - ডেইলি বাংলাদেশ

মাদারীপুরের পদ্মাসেতুর টোল প্লাজায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ডিজিটাল ম্যারাথন দৌড় প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর ই আলম চৌধুরী - ডেইলি বাংলাদেশ

জাতীয় সংসদের চিফ হুইপ নূর-ই আলম চৌধুরী বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সাহসী পদক্ষেপের কারণে পদ্মাসেতুর কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে। বঙ্গবন্ধুর জন্ম না হলে বাংলাদেশ যেমন স্বাধীন হতো না তেমনি শেখ হাসিনার জন্ম না হলে বাংলাদেশের উন্নয়ন হতো না। 

শুক্রবার সকালে পদ্মাসেতুর টোলপ্লাজায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ডিজিটাল ম্যারাথন-২০২১ প্রতিযোগিতার উদ্বোধনকালে তিনি একথা বলেন।

মাদারীপুর জেলা প্রশাসনের আয়োজনে সেনাবাহিনীর ৯ পদাতিক ডিভিশন ও সাভার এরিয়া এর সার্বিক সহযোগিতায় পাঁচটি গ্রুপে মাদারীপুর জেলার চারটি উপজেলার প্রায় চার হাজার প্রতিযোগী পাঁচ কিলোমিটার দৌড়ে অংশগ্রহণ করেন।

পদ্মাসেতুর টোলপ্লাজায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব ঢাকা ডিজিটাল ম্যারাথন-২০২১ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন চিফ হুইপ নূর-ই আলম চৌধুরী

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চিফ হুইপ বলেন, পদ্মাসেতুর টোলপ্লাজায় ম্যারাথন আয়োজন করায় আমি আয়োজকদের ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধুর নেতৃত্বে এই বাংলাদেশ আমরা পেয়েছি। তিনি সারাজীবন দেশের মানুষের কাছে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবেন। ইনশাল্লাহ জাতির পিতার অসমাপ্ত কাজগুলো তার কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা সম্পন্ন করে সোনার বাংলা গড়ে তুলবো।

উল্লেখ্য, পদ্মাসেতুর জাজিরা পয়েন্টের টোলপ্লাজা থেকে দৌড় প্রতিযোগিতা শুরু হয়ে পাঁচ কিলোমিটার পথ গিয়ে শিবচরের ইউটার্ন হয়ে আবার টোলপ্লাজায় এসে শেষ হয়। পরে পাঁচটি গ্রুপে তিনজন করে বিজয়ী ১৫ জনকে পুরস্কার দেয়া হয়।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- কর্নেল মো. ফারুক আহমেদ ভূঁইয়া পিএসসি, অধিনায়ক ৮ বীর, ৯ম পদাতিক ডিভিশন, মাদারীপুর জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মুনির চৌধুরী, জেলা প্রশাসক ড. রহিমা খাতুন ও শিবচর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আসাদুজ্জামান।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ/এমকেএ/এআর