রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বাইডেন প্রশাসনকে নেতৃত্বের আহ্বান

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৩ এপ্রিল ২০২১,   চৈত্র ৩০ ১৪২৭,   ২৯ শা'বান ১৪৪২

রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বাইডেন প্রশাসনকে নেতৃত্বের আহ্বান পররাষ্ট্রমন্ত্রীর

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৩১ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৮:১০ ২৭ ফেব্রুয়ারি ২০২১

এ কে আব্দুল মোমেন। ফাইল ছবি

এ কে আব্দুল মোমেন। ফাইল ছবি

রোহিঙ্গা সমস্যার স্থায়ী সমাধানে দ্বিপক্ষীয় ও বহুপাক্ষিকভাবে নতুন মার্কিন প্রশাসনকে নেতৃত্ব দেয়ার আহ্বান জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন।

শুক্রবার ইউএস থিংক ট্যাংক প্রতিষ্ঠান ‘নিউলাইন ইনস্টিটিউট অন স্ট্র্যাটেজি অ্যান্ড পলিসি’র সঙ্গে মতবিনিময়কালে তিনি এ আহ্বান জানান।

দ্বিপক্ষীয় সম্পর্ক আরো বাড়াতে এবং বাইডেন প্রশাসনের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করার জন্য বাংলাদেশের আগ্রহের কথা জানাতে নতুন মার্কিন প্রশাসনের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন বর্তমানে ওয়াশিংটন ডিসি সফর করছেন।

ইনস্টিটিউটের পরিচালক ড. আজিম ইব্রাহিম অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন। এ সময় পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশে সাময়িক আশ্রয় নেয়া ১১ লাখ রোহিঙ্গার প্রত্যাবাসনই এ সমস্যা সমাধানের একমাত্র উপায়।

অনুষ্ঠানে জাতিসংঘ, ওআইসি ও যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন পর্যায়ের কর্মকর্তারা সরাসরি এবং অনলাইনে যোগ দেন।

রোহিঙ্গাদের নিরাপদ ও মর্যাদাপূর্ণ প্রত্যাবর্তনের জন্য অনুকূল পরিবেশ তৈরিতে মিয়ানমারের ওপর আরো বেশি রাজনৈতিক ও অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা দিতে বাইডেন প্রশাসনকে আহ্বান জানান মোমেন।

এ সময় রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে মিয়ানমারে বিশেষ দূত নিয়োগ দিতে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রস্তাব দেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী।

পরে সিএফআর আয়োজিত ‘বাংলাদেশ-মার্কিন দ্বিপাক্ষিক সম্পর্ক এবং রোহিঙ্গা ইস্যু’ বিষয়ক ভার্চুয়াল ইভেন্টে পররাষ্ট্রমন্ত্রী যোগ দেন। অধিবেশনটি পরিচালনা করেন রাষ্ট্রদূত আইসোবেল কোলম্যান।

এতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে কোভিড-১৯ মহামারি মোকাবিলায় বাংলাদেশের চলমান টিকাদান কর্মসূচি, দক্ষ পরিচালনা এবং বাংলাদেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের কথা তুলে ধরেন এ কে আব্দুল মোমেন।

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাম্প্রতিক আলোচনার বিষয় উল্লেখ করে দুই দেশের মধ্যে বিদ্যমান দ্বিপক্ষীয় অংশীদারিত্বের বিষয়ে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন এবং কৌশলগত পর্যায়ে এটি আরো বাড়ানোর আশাবাদ ব্যক্ত করেন এ কে আব্দুল মোমেন।

একই দিনে বাংলাদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইলিনয় থেকে মার্কিন কংগ্রেসওম্যান জান স্কাওকস্কির সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। বিপুল সংখ্যক রোহিঙ্গাকে আশ্রয় দেয়ার জন্য বাংলাদেশের প্রশংসা করেন জান স্কাওকস্কি।

এ কে আব্দুল মোমেন রোহিঙ্গা সংকট মোকাবিলায় বাংলাদেশকে মানবিক ও রাজনৈতিক সহায়তার জন্য মার্কিন সরকারকে ধন্যবাদ জানান।

তিনি মিয়ানমারের অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞা আরোপ এবং জিএসপি সুবিধা প্রত্যাহারের মতো আরো কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য মার্কিন সরকারকে প্রভাবিত করতে মার্কিন আইন প্রণেতাদের সহায়তারও অনুরোধ করেন।

এর আগে গত মঙ্গলবার মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী, তার আগে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তার সঙ্গে টেলিফোনে আলোচনা করেন এ কে আব্দুল মোমেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর/এইচএন