মুজিবনগর-কলকাতা স্বাধীনতা সড়কের কাজ শেষ পর্যায়ে: এলজিআরডি মন্ত্রী

ঢাকা, সোমবার   ১২ এপ্রিল ২০২১,   চৈত্র ২৯ ১৪২৭,   ২৮ শা'বান ১৪৪২

মুজিবনগর-কলকাতা স্বাধীনতা সড়কের কাজ শেষ পর্যায়ে: এলজিআরডি মন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪৭ ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৩:৩৮ ২৬ ফেব্রুয়ারি ২০২১

স্থানীয় সরকার বিভাগের সম্মেলনকক্ষে `স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী` উদযাপন উপলক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয় গঠিত উপ-কমিটির সভায় বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম - ডেইলি বাংলাদেশ

স্থানীয় সরকার বিভাগের সম্মেলনকক্ষে `স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী` উদযাপন উপলক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয় গঠিত উপ-কমিটির সভায় বক্তব্য রাখেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম - ডেইলি বাংলাদেশ

স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মো. তাজুল ইসলাম বলেছেন, মেহেরপুরের মুজিবনগর-কলকাতা স্বাধীনতা সড়কের কাজ প্রায় শেষ পর্যায়ে। মার্চের প্রথম সপ্তাহেই এটি উদ্বোধন করা হবে।

বৃহস্পতিবার মন্ত্রণালয়ের স্থানীয় সরকার বিভাগের সম্মেলনকক্ষে ‘স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী’ উদযাপন উপলক্ষে আন্তঃমন্ত্রণালয় গঠিত উপ-কমিটির প্রথম সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

মন্ত্রী বলেন, মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস ও ঐতিহ্যকে সমৃদ্ধ করতে সরকার মেহেরপুরের মুজিবনগরে ঐতিহাসিক স্বাধীনতা সড়কটি নির্মাণের সিদ্ধান্ত নেয়। এ সড়ক দ্রুত বাস্তবায়নের জন্য গত ১৪ই ফেব্রুয়ারি জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন এবং এলজিইডির প্রধান প্রকৌশলীসহ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে মেহেরপুরের মুজিবনগরে অবস্থিত স্বাধীনতা সড়ক পরিদর্শন করে কার্যক্রম বাস্তবায়নের নির্দেশ দেন। নির্দেশনা পাওয়ার পরই স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদফতর কাজ শুরু করে এবং এর কাজ শেষ পর্যায়ে রয়েছে।

তিনি বলেন, ইতিহাসের সাক্ষী মেহেরপুরের বৈদ্যনাথতলার আমবাগান ঘেরা গ্রাম এখন মুজিবনগর। এখানেই ১৯৭১ সালের ১৭ এপ্রিল বাংলাদেশের প্রথম সরকারের মন্ত্রিসভার সদস্যরা শপথ নেন। জাতীয় চার নেতাসহ সড়ক পথে বিদেশি সংবাদকর্মী ও মুক্তিযোদ্ধাসহ এ সড়কে মেহেরপুরের মুজিবনগর আসেন। 

সভায় উপ-কমিটির আহ্বায়ক স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী বর্ণাঢ্য ও যথাযোগ্য মর্যাদায় উদযাপনের জন্য সব মন্ত্রণালয়/বিভাগ/দফতরসমূহের নিজস্ব এবং জাতীয় পর্যায়ে গৃহীত কার্যক্রম চলতি মাসের শেষ দিকে কমিটির কাছে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

এসময় সভায় উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় সরকার বিভাগের সিনিয়র সচিব, মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং উপ-কমিটির বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তারা।

ডেইলি বাংলাদেশ/জাআ/টিআরএইচ/এমকেএ/এসআর