‘পাটের উৎপাদন বাড়াতে বীজ সরবরাহ নিশ্চিত করা হচ্ছে’

ঢাকা, রোববার   ২৮ নভেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ১৪ ১৪২৮,   ২১ রবিউস সানি ১৪৪৩

‘পাটের উৎপাদন বাড়াতে বীজ সরবরাহ নিশ্চিত করা হচ্ছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:১৬ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৬:৪০ ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২১

পাটের মজুদ ও বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনায় স্টেক-হোল্ডারদের সঙ্গে আলোচনা করেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী

পাটের মজুদ ও বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনায় স্টেক-হোল্ডারদের সঙ্গে আলোচনা করেন বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী

বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বলেছেন, চলতি পাট মৌসুমে লক্ষ্যমাত্রা অনুযায়ী পাটের চাষ ও উৎপাদন বাড়াতে মানসম্মত পাট বীজ সরবরাহ নিশ্চিত করতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার দুপুরে সচিবালয়ে পাটের মজুদ ও বাজার পরিস্থিতি পর্যালোচনায় স্টেক-হোল্ডারদের সঙ্গে আলোচনাকালে এ কথা বলেন।

গোলাম দস্তগীর গাজী বলেন, অভ্যন্তরীণ বাজারে প্রয়োজনীয় কাঁচাপাট সরবরাহ নিশ্চিতকরণ এবং পাট ও পাটজাত পণ্য রফতানির ধারা আরো বেগবান করার লক্ষ্যে নিয়মবহির্ভূত কাঁচাপাট মজুদের বিরুদ্ধে বিশেষ অভিযান অব্যাহত থাকবে। মানসম্মত পাটবীজ উৎপাদনে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনে কৃষি মন্ত্রণালয় এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের যৌথ উদ্যোগে এরই মধ্যে একটি যৌথ রূপরেখা তৈরি করা হয়েছে।

তিনি জানান, সম্প্রতি দেশে কাঁচাপাটের সংকট তৈরির কারণে পাটকলগুলো উৎপাদন ঝুঁকিতে পড়েছে। এ অবস্থায় পাট ও পাটজাত পণ্যের রফতানি আয়ের ধারা অব্যাহত রাখার জন্য কাঁচাপাটের সরবরাহ নিশ্চিত করতে সরকার অভিযান পরিচালনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

মন্ত্রী আরো জানান, লাইসেন্স বিহীন অসাধু ব্যবসায়ীরা, কাঁচাপাটের ডিলার অথবা আড়তদাররা এক হাজার মণের বেশি কাঁচাপাট একমাসের বেশি সময় ধরে মজুদ করতে পারবে না। এছাড়াও লাইসেন্স বিহীন কাঁচাপাট ক্রয়-বিক্রয় ও মজুদ হতে বিরত রাখা, ভিজাপাট ক্রয়-বিক্রয় রোধ করা, বাজারে কাঁচাপাটের সরবরাহ নিশ্চিত করার জন্য পাট অধিদফতর কার্যকর পদক্ষেপ নিয়েছে।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সাবিনা ইয়াসমিন, পাট অধিদফতরের মহাপরিচালক হোসেন আলী খোন্দকার, বাংলাদেশ পাট অ্যাসোসিয়েশনের সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান আরজু মিয়া, বাংলাদেশ জুট মিলস অ্যাসোসিয়েশনের চেয়ারম্যান মো. মাহবুবুর রহমান পাটোয়ারী, বিজেএসএ, পাটচাষি সমিতিসহ অন্যান্য সংগঠনের নেতারা।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ/এইচএন