‘প্রাথমিকে ঝরে পড়া শিশুর হার প্রায় শূন্যের কোঠায় নেমেছে’

ঢাকা, সোমবার   ০৮ মার্চ ২০২১,   ফাল্গুন ২৩ ১৪২৭,   ২৩ রজব ১৪৪২

‘প্রাথমিকে ঝরে পড়া শিশুর হার প্রায় শূন্যের কোঠায় নেমেছে’

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৩১ ২৩ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১২:০৪ ২৪ জানুয়ারি ২০২১

বক্তব্য রাখছেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বক্তব্য রাখছেন সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ। ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী কে এম খালিদ বলেছেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ১ কোটি ৪০ লাখ শিক্ষার্থীদের হাতে যথাসময়ে উপবৃত্তির টাকা পৌঁছে দেয়া হয়েছে। এ কারণে শিক্ষার্থীদের ঝরে পড়ার হার প্রায় শূন্যের কোঠায় নেমে গেছে।

শনিবার রাতে রাজধানীর হোটেল প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁওয়ের বলরুমে এক অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় তিনি এসব কথা বলেন।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ছেলেদের চেয়ে মেয়েদের অন্তর্ভুক্তির হার বেশি। মেয়েদের ক্ষেত্রে শতকরা ১০০ ভাগ আর ছেলেদের ক্ষেত্রে  ৯৯.৭ ভাগ। আর এসব সম্ভব হয়েছে বঙ্গবন্ধুকন্যা প্রধানমন্ত্রীর দক্ষ, বলিষ্ঠ, দূরদর্শী ও সময়োপযোগী নেতৃত্বের কারণে।

তিনি আরো বলেন, প্রাথমিক শিক্ষা অবৈতনিকীকরণ, উপবৃত্তি প্রদান ও বছরের প্রথম দিনে সব শিক্ষার্থীদের হাতে বিনামূল্যে বই বিতরণ করার ফলে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে অন্তর্ভুক্তি প্রায় শতভাগে উন্নীত হয়েছে।

কোভিড-১৯ পরিস্থিতিতেও ডিজিটাল মাধ্যমে মোবাইল ব্যাংকিংয়ের সাহায্যে উপবৃত্তির টাকা যথাসময়ে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের কাছে পৌঁছে দেয়া হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন প্রতিমন্ত্রী।

কে এম খালিদ বলেন, শিশুদের শিক্ষার পাশাপাশি পুষ্টি নিশ্চিতকরণে বর্তমান সরকার বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। এরই অংশ হিসেবে প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ‘মিড ডে মিল’ প্রকল্প চালু করা হয়েছে।

সংস্কৃতি প্রতিমন্ত্রী বলেন, ছাত্র-ছাত্রীদের পুষ্টি নিরাপত্তায় সরকারের পাশাপাশি এগিয়ে এসেছে বিভিন্ন ব্যক্তি ও সংগঠনের মতো বেসরকারি উদ্যোগ, যা নিঃসন্দেহে প্রশংসনীয়।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা মন্ত্রী এম এ মান্নান। এছাড়া বিশেষ অতিথি হিসেবে আরো উপস্থিত ছিলেন দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ প্রতিমন্ত্রী ডা. মো. এনামুর রহমান।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর/এইচএন