আমার বিচার করবেন ২০ ম্যাচ পর: তামিম

ঢাকা, সোমবার   ২৩ নভেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১০ ১৪২৭,   ০৬ রবিউস সানি ১৪৪২

আমার বিচার করবেন ২০ ম্যাচ পর: তামিম

ক্রীড়া প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:০৩ ২১ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:৫৯ ২১ নভেম্বর ২০২০

তামিম ইকবাল

তামিম ইকবাল

বাংলাদেশ জাতীয় ওয়ানডে দলের বর্তমান অধিনায়ক তামিম ইকবাল। দায়িত্ব পাওয়ার পর সাড়ে ৮ মাস পার হয়ে গেলেও করোনাভাইরাসের কারণে অধিনায়ক হিসেবে এখনো তার পথচলা শুরু হয়নি। এদিকে তিনি কেমন নেতৃত্ব দিতে পারেন সে বিষয়ে ক্রিকেটাঙ্গনের একাংশের মনে বেশ সন্দেহ আর সংশয় আছে। তামিমের কানেও যে এসব কথা যায় না তা নয়। তবে এসব নিয়ে দেশ সেরা ওপেনারের মাথাব্যথা নেই। তার বক্তব্য হলো, ২০ ম্যাচ পর যেন তার নেতৃত্ব নিয়ে বিচার করা হয়।

গত বছর ওয়ানডে বিশ্বকাপের পর মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার চোটের কারণে শ্রীলংকায় তিনটি ওয়ানডেতে বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিয়েছিলেন তামিম। সেই সিরিজে টাইগাররা একদম মোকাবেলা করতে পারেনি। এরপর গত মার্চে মাশরাফী ওয়ানডের নেতৃত্ব ছাড়ার পর আনুষ্ঠানিকভাবে তামিমকে এই দায়িত্ব দেয়া হয়। কিছুদিন আগে বিসিব প্রেসিডেন্টস কাপে তামিম একাদশের নেতৃত্ব দিয়েছেন তামিম। তিন দলের এই টুর্নামেন্টে ফাইনালে উঠতে পারেনি তার দল।

বঙ্গবন্ধু টি-২০ কাপ উপলক্ষে শনিবার মিরপুর শের ই বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তামিমকে নেতৃত্ব নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। সেখানে তিনি বলেন, অধিনায়কত্বের চাপ? আমি তো এখন পর্যন্ত অমন কোনো চাপের ম্যাচই খেলিনি! প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ ক্রিকেট হতে হবে তো। অধিনায়কত্বের চাপটা আসলে আপনাদের (সাংবাদিকদের) বানানো। আমি দায়িত্ব পাওয়ার পর এখনো কোনো আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলিনি।

তামিম আরো বলেন, আমি যেদিন অধিনায়কত্ব পেয়েছি ওই দিনই বলেছি যে, আপনারা ৬ মাস বা ১ বছর পর বিচার করবেন। পৃথিবীর যত বড় অথবা ছোট নেতাই হোক, দুই ম্যাচ-তিন ম্যাচ পর আপনারা (সাংবাদিকরা) শুরু করে দেন ক্যাপ্টেন্সির চাপ। এটা শুধু আমার ব্যাপার নয়, যে কারো ক্ষেত্রেই। একটা বাচ্চা হাঁটতেও কিন্তু ৯ মাস সময় নেয়। একদিনে না হাঁটলে তো আপনি বলতে পারেন না যে সে হাঁটতে পারে না। সময় লাগবেই।

ক্যারিয়ারে অনেকবারই তামিম বলেছেন, তিনি নেতৃত্ব নিয়ে খুব একটা উৎসাহী নন। সেই বিষয়টি মনে করিয়ে দিলে দেশসেরা ওপেনার বলেন, আমার কোনো সমস্যা হয় না ভাই। চাপ নিয়ে এত চিন্তাও করি না। নেতৃত্ব নিয়ে অনেকবারই বলেছি, এটা এমন নয় যে ছোটবেলা থেকে স্বপ্ন দেখেছি। কখনোই দেশের অধিনায়ক হওয়ার স্বপ্ন দেখিনি। বরং সুযোগটা এসেছে। চেষ্টা করব ভালোভাবে করতে। অধিনায়কত্ব নিয়ে আমাকে অন্তত ২০ ম্যাচ পর বিচার করবেন। কিংবা ১০-১৫ ম্যাচ পর। দুই-তিন ম্যাচ পর সেটা করতে পারেন না।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল