জর্জিয়ায় ভোট বাড়ল ট্রাম্পের, তবু জয়ী বাইডেনই

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৪ নভেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১০ ১৪২৭,   ০৭ রবিউস সানি ১৪৪২

জর্জিয়ায় ভোট বাড়ল ট্রাম্পের, তবু জয়ী বাইডেনই

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১০:০৫ ২০ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১০:১৬ ২০ নভেম্বর ২০২০

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যে পুনর্গণনার দিকে তাকিয়ে থাকা প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে হতাশ হতে হলো। রিপাবলিকানদের শক্ত ঘাঁটিতে অপ্রত্যাশিত হার যে ভোটের গণনার ভুলে হয়নি, সেটি প্রমাণ হয়ে গেল।

জর্জিয়ার সেক্রেটারি অব স্টেট কার্যালয়ের বরাতে মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএন জানিয়েছে, পুনর্গণনা শেষেরিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পের পক্ষে প্রায় দেড় হাজার ভোট বেড়েছে। তবে অঙ্গরাজ্যটির নির্বাচনে ব্যাপক জালিয়াতি বা ভোট কারচুপির কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে জানিয়েছে স্থানীয় কর্তৃপক্ষ। তবে ইলেকটোরাল কলেজের ১৬টি ভোট পেয়েছেন বাইডেন। এই ১৬টি ভোট ট্রাম্পের দখলে গেলে পরাজয় স্বীকার না করা ট্রাম্প শিবির আবার চাঙ্গা হতে পারত।

প্রাথমিক ফলাফলে এগিয়ে থাকা ট্রাম্প শেষ দিকে হেরে যাওয়া এবং ভোটের ব্যবধান খুবই কম হওয়ায় জর্জিয়ার কর্তৃপক্ষ ভোট নতুন করে গণনা করার সিদ্ধান্ত নেয়। ফলাফল এদিক সেদিক না হওয়ায় আবার ৩০৬টি ইলেকটোরাল ভোট নিশ্চিত করলেন বাইডেন। হোয়াইট হাউজে যেতে প্রেসিডেন্ট প্রার্থীকে ২৭০টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেতে হয়। সেই হিসেবে প্রয়োজনের চেয়ে আরো ৩৬টি ইলেকটোরাল ভোট পেয়েছেন ডেমোক্র্যাট এই প্রার্থী।

২৪ বছর আগে ১৯৯৬ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির প্রার্থী বিল ক্লিনটন জর্জিয়া জিতেছিলেন। এরপর ওই অঙ্গরাজ্যে আর কোনো ডেমোক্র্যাট প্রার্থী জয়ের মুখ দেখেননি। এবার জর্জিয়া জিতে বাইডেন দলকে অঙ্গরাজ্যটিতে ফের পুনঃপ্রতিষ্ঠিত করলেন।

বাইডেনের প্রতিদ্বন্দ্বী দেশটির প্রেসিডেন্ট ও রিপাবলিকান পার্টির প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্প ২৩২টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট পেয়েছেন।

ট্রাম্পের পরাজয় মেনে না নেয়ার বিষয়ে বৃহস্পতিবার বাইডেন বলেন, গণতন্ত্র কীভাবে কাজ করে এ বিষয়ে অবিশ্বাস্যভাবে ক্ষতিকর বার্তা পুরো বিশ্বকে দিচ্ছেন প্রেসিডেন্ট। যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে তাকে সবচেয়ে দায়িত্বজ্ঞানহীন প্রেসিডেন্ট হিসেবে মনে রাখা হবে।

৩ নভেম্বর অনুষ্ঠিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের চার দিন পর পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্যে জয়ের মাধ্যমে প্রয়োজনীয় ২৭০টি ইলেকটোরাল কলেজ ভোট নিশ্চিত করেন বাইডেন। ওই দিনই যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদমাধ্যম তাকে জয়ী ঘোষণা করে।

তবে বাইডেনের কাছে এখনো নতি স্বীকার করেননি ট্রাম্প। উল্টো ভোট কারচুপির প্রমাণহীন অভিযোগ এনে কয়েকটি অঙ্গরাজ্যে মামলা করেছেন তিনি।

এর আগে জর্জিয়ার প্রায় ৫০ লাখ ভোটের মধ্যে ১৪ হাজার ১০১ ভোটে এগিয়ে থেকে জয়ী হয়েছিলেন বাইডেন। তবে জয়ের ব্যবধান খুব সামান্য হওয়ায় পুনর্গণনার প্রয়োজন আছে বলে ১১ নভেম্বর এক সংবাদ সম্মেলনে অঙ্গরাজ্যটির সেক্রেটারি অফ স্টেট ব্র্যাড রাফেন্সপেরগার জানিয়েছিলেন। পুনর্গণনাটি সম্পূর্ণ হাতে হবে বলেও সে সময় জানান তিনি।

বৃহস্পতিবার রাফেন্সপেরগার বলেন, ‘জর্জিয়াজুড়ে পুনর্গণনা আবার প্রমাণ করেছে যে, নতুন ও নিরাপদ ব্যালট ভোটিং পদ্ধতিতে ভোট গণনা সঠিক ছিল। এর কৃতিত্ব পুরোটাই স্থানীয় নির্বাচন কর্মকর্তাদের। এতগুলো ব্যালট হাতে গুনে খু্ব অল্প সময়ের মধ্যে তারা ফল দিয়েছেন।’

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ