‘ধর্ষণসহ নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে কঠোর অবস্থানে সরকার’

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ১৭ ১৪২৭,   ১৪ রবিউস সানি ১৪৪২

‘ধর্ষণসহ নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে কঠোর অবস্থানে সরকার’

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:১৫ ২০ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ১৯:৩০ ২০ অক্টোবর ২০২০

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। ফাইল ছবি

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, ধর্ষণসহ নারীর প্রতি সহিংসতা বন্ধে অত্যন্ত কঠোর অবস্থান নিয়েছে সরকার। পাশাপাশি সর্বোচ্চ শাস্তির বিধান রেখে আইন সংশোধন করেছে। 

মঙ্গলবার সকালে নিজের সরকারি বাসভবনে ব্রিফিংকালে এসব কথা বলেন মন্ত্রী।

তিনি বলেন, শুধু বাংলাদেশে নয়, করোনাকালে বিশ্বব্যাপী সামাজিক অস্থিরতার পাশাপাশি পারিবারিক সহিংসতা, নারী ও শিশু নির্যাতন বেড়েছে। 

গার্ডিয়ান পত্রিকার এক প্রতিবেদনের কথা উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী জানান, যুক্তরাজ্যে গত এক বছরে ৫৫ হাজার নারী ধর্ষণের শিকার হয়েছেন, ইউরোপ জুড়েও এ প্রবণতা উর্ধ্বমুখী। বাংলাদেশে নারী নির্যাতন বন্ধে অপরাধীদের সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে আশ্রয়-প্রশ্রয় বন্ধের আহ্বান জানান তিনি।

ব্রিফিংয়ে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক আরো বলেন, বিএনপি এসব থেকে কখনও মধ্যবর্তী, কখনও ফ্রেশ নির্বাচনের দাবি তুলছে সম্পর্কহীন ও অযৌক্তিকভাবে। বাংলাদেশের ইতিহাসে এমন ব্যর্থ বিরোধী দল আর কেউ দেখেনি। তাই সরকারের পদত্যাগ দাবি করার আগে গত ১২ বছরে আন্দোলন ও নির্বাচনে ব্যর্থতার জন্য বিএনপির নেতৃত্বের পদত্যাগ করা উচিত। বিএনপি ইস্যু না পেয়ে আন্দোলন করতে পারছে না। তাই সরকারের পদত্যাগ চাওয়া তাদের মামার বাড়ির আবদার।

ওবায়দুল কাদের বলেন, উপ-নির্বাচনে অংশ নেয়ার নামে বিএনপি আসলে নির্বাচন নিয়ে বিতর্ক তৈরি করতে চেয়েছে। তারা এজেন্ট না দিয়ে সব কার্যক্রম থেকে নিজেদের সরিয়ে রেখে নির্বাচনকে বিতর্কিত করার অপপ্রয়াস চালিয়েছে যা বিএনপির পুরনো অপকৌশল। দলটিকে নেতিবাচক রাজনীতির ধারা থেকে বেরিয়ে ইতিবাচক রাজনীতি করার জন্য পুনরায় আহ্বান জানান এ রাজনীতিবিদ।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ