মুজিববর্ষের পর্দা উঠল আতশবাজি-ফানুস উৎসব দিয়ে

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৫ ১৪২৭,   ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

মুজিববর্ষের পর্দা উঠল আতশবাজি-ফানুস উৎসব দিয়ে

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৩৩ ১৭ মার্চ ২০২০   আপডেট: ১৭:২৯ ২৮ জুলাই ২০২০

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

সন্ধ্যার আকাশে আতশবাজির বর্ণিল আলোকচ্ছটায় স্বাধীনতার স্থপতি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে স্মরণের মাধ্যমে মুজিববর্ষের জন্মশতবার্ষিকী উদযাপনে বছরব্যাপী আয়োজনের পর্দা উঠল।

বঙ্গবন্ধুর জন্মক্ষণের সঙ্গে মিল রেখে রাত ৮টায় ‘মুক্তির মহানায়ক’ শীর্ষক অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে ঢাকার বিভিন্ন স্থানে একযোগে শুরু হয় আতশবাজি ও ফানুস প্রদর্শনী। রাজধানীর রবীন্দ্র সরোবরে এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

কেন্দ্রীয়ভাবে আওয়ামী লীগের উদ্যোগে ধানমন্ডি-৩২ নম্বর বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে, আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়, ধানমন্ডি রবীন্দ্র সরোবর, হাতিরঝিল, সোহরাওয়ার্দী উদ্যান, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের টিএসসি ও জাতীয় সংসদ ভবন এলাকায় আতশবাজি ও ফানুস উৎসব শুরু হয়।

ধানমন্ডি রবীন্দ্র সরোবরের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য জাহাঙ্গীর কবির নানক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক আহমদ হোসেন, বিএম মোজাম্মেল হক প্রমুখ। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন আওয়ামী লীগের সাংস্কৃতিক সম্পাদক অসীম কুমার উকিল।

এদিকে মুজিববর্ষ উপলক্ষে জাতীয় সংসদ ভবনের আলোকসজ্জা উদ্বোধন করেন স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী। মুজিববর্ষ উপলক্ষে ২৬ মার্চ পর্যন্ত সংসদ ভবন আলোয় আলোকিত থাকবে।

মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ রাজধানীর প্রধান প্রধান সড়কে আলোকসজ্জা করা হয়েছে। মঙ্গলবার জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শততম জন্মদিনের কর্মসূচির মধ্য দিয়ে মুজিববর্ষ উদযাপন শুরু হয়। ২০২০ সালের ১৭ মার্চ থেকে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ পর্যন্ত মুজিববর্ষ উদযাপন করা হবে।

দিনব্যাপী বিভিন্ন কর্মসূচির মধ্যে সকাল সাড়ে ছয়টায় বঙ্গবন্ধু ভবন, কেন্দ্রীয় কার্যালয় এবং সারাদেশে সংগঠনের সকল কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল সাতটায় বঙ্গবন্ধু ভবন প্রাঙ্গণে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য অর্পণ করা হয়। অনুরূপ কর্মসূচি সারাদেশে অনুষ্ঠিত হয়।

এছাড়া সকাল দশটায় আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী সংসদের প্রতিনিধি দল টুঙ্গিপাড়ায় জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধার্ঘ্য নিবেদন এবং দোয়া ও মিলাদ মাহফিলে অংশগ্রহণ করেন।

এদিন সারাদেশে জাতির পিতার জন্মদিনে দোয়া মাহফিল ও বিশেষ প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। মসজিদ, মন্দির, প্যাগোডা, গির্জাসহ সব ধর্মীয় প্রতিষ্ঠানে দেশব্যাপী বিশেষ প্রার্থনা কর্মসূচির অংশ হিসেবে বাদ জোহর বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদসহ দেশের সব মসজিদে দোয়া ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল ৮টায় তেজগাঁও গির্জায়, সকাল ৯টায় মিরপুর ব্যাপ্টিস্ট চার্চ (৩/৭-এ সেনপাড়া, পবর্তা, মিরপুর-১০)-এ খ্রিস্টান সম্প্রদায়, সকাল ১০টায় রাজধানীর মেরুল বাড্ডার আন্তর্জাতিক বৌদ্ধ বিহারে বৌদ্ধ সম্প্রদায় এবং সকাল সাড়ে ১১টায় ঢাকেশ্বরী জাতীয় মন্দিরে হিন্দু সম্প্রদায় প্রার্থনা সভার আয়োজন করে।

এতিমদের মাঝে খাবার ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়। দুপুর ১২টায় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক উপ-কমিটির উদ্যোগে আজিমপুর এতিমখানা প্রাঙ্গণে অসহায়, দুস্থ ও এতিমদের মাঝে খাবার, বস্ত্র ও করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে ব্যবহার্য সামগ্রী বিতরণ করা হয়। দুপুর ১টায় ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে বনানীর করাইল বস্তিতে এবং ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের উদ্যোগে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এতিম ও দুঃস্থদের মাঝে খাবার ও মিষ্টি বিতরণ করা হয়।

এছাড়া বাদ আসর রাজধানীর প্রতিটি ওয়ার্ডে ঢাকা মহানগর উত্তর ও দক্ষিণ আওয়ামী লীগ দুস্থ মানুষের মাঝে খাবার ও মিষ্টি বিতরণ করে। সারাদেশে আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে অনুরূপ কর্মসূচি পালন করা হয়।

১৯২০ সালের ১৭ মার্চ রাত আটটায় অবিভক্ত ভারতের পূর্ববঙ্গে তথা বর্তমানে বাংলাদেশের গোপালগঞ্জ জেলার টুঙ্গিপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান। দেশের স্বাধীনতা-সংগ্রামের আন্দোলনে অবিসংবাদিত নেতা ছিলেন তিনি। অপরদিকে বাংলাদেশের স্বাধীনতার ৫০ বছরপূর্তি হচ্ছে ২০২১ সালের ২৬ মার্চ। বাঙালি জাতির ইতিহাসে অবদানের কথা স্মরণ করে বর্ষটিকে মুজিববর্ষ’ হিসাবে ঘোষণা করে সরকার।

ডেইলি বাংলাদেশ/জাআ/এস/এসএএম