গর্ভের সন্তান ছেলে না মেয়ে বুঝবেন যেভাবে

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৭ সেপ্টেম্বর ২০২২,   ১২ আশ্বিন ১৪২৯,   ২৯ সফর ১৪৪৪

Beximco LPG Gas

গর্ভের সন্তান ছেলে না মেয়ে বুঝবেন যেভাবে

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:৪০ ১৮ আগস্ট ২০২২  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

প্রতিটি নারীর জীবনেই একটি বিশেষ সময় প্রেগন্যান্সির এই নয় মাস। নিজের শরীরে একটা প্রাণের তিলে তিলে বেড়ে ওঠার মতো অনুভূতি ভাষায় প্রকাশ করতে পারেন না অনেক হবু মা। ভয়-আনন্দ-উৎকণ্ঠা মিলিয়ে এক মিশ্র অনুভূতি কাজ করে সবার মধ্যে। সঙ্গে থাকে একটা জিনিস জানার কৌতুহল, গর্ভের সন্তান ছেলে না মেয়ে?

আধুনিক চিকিৎসায় আলট্রাস্নোগ্রাফের সাহায্যে সন্তান ছেলে না মেয়ে জানা গেলেও তা শাস্তিযোগ্য অপরাধ। তাই এই অপরাধ থেকে বিরত থাকুন। তবে গর্ভবতী নারীর কিছু লক্ষণ দেখে খুব সহজেই আপনি জানতে পারবেন গর্ভের সন্তান ছেলে নাকি মেয়ে হবে। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক সেই লক্ষণগুলো সম্পর্কে-

ওজন বৃদ্ধি
মায়ের পেটে ছেলে সন্তান থাকলে দৈহিক ওজন স্বাভাবিকের থেকে অনেক বেড়ে যায় এবং পেটটা একটু অতিরিক্ত মাত্রায় ফোলা মনে হয়। প্রসঙ্গত, মেয়ে সন্তান পেটে থাকলে সাধারণত মায়ের সারা শরীরেই মেদের হার বৃদ্ধি পায়, এমনকি মুখেও। এই ভাবেই অনেকাংশে বুঝতে পারা সম্ভব হয় যে ছেলে হতে চলেছে না মেয়ে।

পায়ের পাতা ঠাণ্ডা হয়ে যাওয়া
এমন ধরনের লক্ষণের বহিঃপ্রকাশ ঘটলে মনে কোনো সন্দেহ রাখবেন যে ছেলে সন্তানের জন্ম হতে চলেছে।

চুলের ঘনত্বে পরিবর্তন আসবে
মায়ের চুলের বৃদ্ধির হার দেখেও বলে দেয়া সম্ভব ছেলে হতে চলেছে না মেয়ে। একাধিক কেস স্টাডি করে দেখা গেছে মায়ের চুলের গ্রোথ যদি স্বাভাবিকের থেকে বেশি হয়, তাহলে কোনও সন্দেহই থাকে না যে আসন্ন বাচ্চা ছেলে হতে চলেছে।

মর্নিং সিকনেস
একাধিক স্টাডিতে দেখা গেছে সকালে ঘুম থেকে ওঠার পর মাথা ঘোরা, বমি-বমি ভাব এসব লক্ষণ দেখা দিলে মনে কোনো সন্দেহ রাখবেন না যে, আপনার অনাগত সন্তান ছেলে।

বা দিকে ফিরে ঘুম
কোন দিকে ফিরে ঘুমাচ্ছেন খেয়াল করুন! এই সময় মা এতটাই ক্লান্ত থাকেন যে শোয়ার সঙ্গে সঙ্গেই ঘুম চলে আসে। তারপক্ষে এটা বোঝা সম্ভবই হয় না যে কোন দিকে ফিরে তিনি ঘুমাচ্ছেন। এক্ষেত্রে এই কাজটি করতে হবে স্বামীকে। যদি দেখেন আপনার স্ত্রী বাঁদিকে ফিরে ঘুমোচ্ছে, তাহলে আশা রাখতে পারেন যে আপনাদের ছেলেই হবে।

পেটের অবয়ব
আপনার পেট কি নিচের দিকে বেশি ঝুঁকে গেছে? এমনটা হলে ছেলে সন্তান হওয়ার সম্ভাবনা বেশি থাকে।

হার্ট রেট ওঠা-নামা
গর্ভাবস্তায় চিকিৎসকেরা প্রায়শই বাচ্চার হার্ট রেট মেপে থাকেন। এই সময় যদি দেখা যায় বাচ্চার হার্ট রেট ১৪০ বিট/ প্রতি মিনিট রয়েছে, তাহলে মনে কোনো সন্দেহ রাখবেন না যে ছেলে বাচ্চাই জন্ম নিতে চলেছে।

ইউরিন কালার
একাধিক গবেষণায় একথা প্রমাণিত হয়েছে যে গর্ভাবস্তায় মায়ের প্রস্রাবের রং যদি গাড় হলদেটে হয়, তাহলে বুঝতে হবে ছেলে সন্তান হতে চলেছে। আর যদি দেখেন উজ্জ্বল হলুদ রঙের প্রস্রাব হচ্ছে, তাহলে এই বিষয়ে কোনো সন্দেহ রাখবেন না যে আপনি মেয়ে সন্তানের মা হতে চলেছেন।

হাতের তালু বারে বারে শুকিয়ে যাবে
প্রেগন্যান্সির সময় বারে বারে হাতের তালু শুকিয়ে যাওয়ার অর্থ হল ছেলে সন্তান জন্ম নিতে চলেছে।

ব্রণের প্রকোপ
প্রেগন্যান্সির সময় একাধিক হরমোনের ক্ষরণ ঠিক মতো হয় না। যে কারণে এমনিতেই বিভিন্ন রকমের ত্বকের রোগের প্রকোপ বৃদ্ধি পায়। তবে যদি দেখেন ব্রণের সমস্যা উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে তাহলে জানবেন আপনার পেটে ছেলে সন্তান বড় হয়ে উঠছে।

ক্ষুধা বেশি লাগা
ভাবি মায়ের ক্ষিদে কি খুব বেড়ে গেছে? অল্প সময় অন্তর অন্তরই মনে হচ্ছে পেটে যেন ছুঁচো দৌড়াচ্ছে? তাহলে আপনাকে অভিনন্দন। কারণ ছেলে সন্তান হওয়ার আগে এমনই সব লক্ষণের বহিঃপ্রকাশ ঘটে থাকে।

ব্রেস্টের মাপ
গর্ভাবস্তায় ভাবী মায়ের ব্রেস্টের মাপ এমনিতেই বেড়ে যায়। কারণ এই সময় মায়ের শরীরে দুধের সঞ্চয় হতে শুরু করে। সাধারণত এই সময় ডান দিকের থেকে বাঁদিকের ব্রেস্ট একটু বেশি মাত্রায় ভারি হয়ে যায়। তবে যদি উল্টো ঘটনা ঘটতে দেখেন তাহলে নিশ্চিত থাকবেন আপনার ছেলে হতে চলেছে।

সূত্র: বোল্ড স্কাই

ডেইলি বাংলাদেশ/এসএ

English HighlightsREAD MORE »