গোখরা সাপ দিয়ে স্ত্রীকে হত্যা, ডাবল যাবজ্জীবন কারাদণ্ড পেলেন স্বামী

ঢাকা, রোববার   ১৭ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ২ ১৪২৮,   ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

গোখরা সাপ দিয়ে স্ত্রীকে হত্যা, ডাবল যাবজ্জীবন কারাদণ্ড পেলেন স্বামী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২২:০৫ ১৩ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ২২:০৭ ১৩ অক্টোবর ২০২১

ছবি: উথরা ও সুরজ কুমার

ছবি: উথরা ও সুরজ কুমার

স্ত্রীকে গোখরা সাপের কামড় খাইয়ে হত্যা করার দায়ে সুরজ কুমার নামে এক ভারতীয় ব্যক্তিকে ডাবল যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। দ্বিগুন যাবজ্জীবন কারাদণ্ডের সাজা খুবই বিরল সাজা, যা খুব কম অপরাধীকেই দেওয়া হয়।

গত বছর তার স্ত্রী উথরা সাপের কামড়ে মারা যাওয়ার পর সুরজ কুমারকে গ্রেফতার করা হয়েছিল।

উথরার পরিবার হত্যার অভিযোগ করলে পুলিশ তদন্ত শুরু করে জানতে পারে সুরজ যৌতুকের জন্য তাদের হয়রানি করছিল।

সোমবার একটি আদালত তাকে দোষী সাব্যস্ত করে যে, উথরা ঘুমানোর সময় সুরজ বিছানায় একটি গোখরা সাপ ছেড়ে দেয়।

গত বছর মে মাসে ২৫ বছর বয়সী উথরাকে তার বাড়িতে মৃত অবস্থায় পাওয়া যায়।

এর মাত্র কয়েক সপ্তাহ আগেই উথরাকে একটি রাসেল ভাইপার সাপে কামড় দিয়েছিল, যে কারণে তার পরিবারের লোকদের মধ্যে সন্দেহের সৃষ্টি হয়। গোখরা সাপের কামড় খাওয়ার সময় উথরা প্রথম সাপের কামড় থেকে সুস্থ হয়ে উঠছিলেন।

পুলিশ জানিয়েছে, তাদের তদন্তে দেখা গেছে যে, সাপের কামড়ের উভয় ঘটনার পেছনেই সুরজের হাত রয়েছে। পুলিশ এমন একজনকেও গ্রেপ্তার করেছিল, যিনি সুরজকে সাপ সংগ্রহে সাহায্য করেছিলেন। সেই লোক পরে বিষয়টি স্বীকার করে নেয় এবং পুলিশকে মামলার জট খুলতে সাহায্য করে।

ভারতীয় আইন বিষয়ক ওয়েবসাইট লাইভ ল জানায়, পুলিশ সুরজের স্ত্রী-হত্যাকাণ্ড নিয়ে এক হাজার পৃষ্ঠাযর একটি তদন্ত প্রতিবেদন তৈরি করে, যেখানে সুরজের পুরো হত্যাকাণ্ডের পরিকল্পনা এবং বাস্তবায়নের কাহিনী বিস্তারিত ভাবে তুলে ধরা হয়।

প্রসিকিউশন যুক্তি দিয়েছিল যে, এটি একটি ‘বিরল ঘটনা’ এবং অভিযুক্তদের মৃত্যুদণ্ডের সাজা দেওয়ার দাবি করা হয়।

বিচারকও একমত হন যে, এটি একটি বিরল ঘটনা এবং সুরজকে দ্বিগুণ যাবজ্জীবন কারাদণ্ড এবং ৫০,০০০ টাকা জরিমানার সাজা দেয় আদালত।

সূত্র: তেলেঙ্গানা টুডে

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী