এক ঘণ্টার ইউএনও শিক্ষার্থী শান্তনা

ঢাকা, বুধবার   ২৭ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ১৩ ১৪২৮,   ১৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

এক ঘণ্টার ইউএনও শিক্ষার্থী শান্তনা

নওগাঁ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৫২ ১৩ অক্টোবর ২০২১  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

এক ঘণ্টার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) হয়ে দায়িত্ব পালন করেছে শান্তনা। নওগাঁ সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত এ দায়িত্ব পালন করে।

শান্তনা নওগাঁ সরকারি বালিকা বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির শিক্ষার্থী।

‘গার্লস টেকওভার’ ইয়েস-বাংলাদেশ, ইয়ূথ ফর চেঞ্জ, অপরাজয়ের বাংলা এবং প্ল্যান ইন্টারনাশনাল এর একটি বৈশ্বিক কার্যক্রম এর অংশ হিসেবে কন্যা শিশুরা সমাধিকার এবং পর্যাপ্ত সুযোগ পেলে বদলে দিতে পারে তাদের জীবন, তাদের সমাজ এবং সমাজের মানুষদের-এমন বিশ্বাস থেকেই ‘গার্লস টেকওভার’ কর্মসূচির উদ্যোগ গ্রহণ করে এবং তা বাস্তবায়ন করছে ইয়েস-বাংলাদেশ, ইয়ূথ ফর চেঞ্জ, অপরাজয়ের বাংলা এবং প্ল্যান ইন্টারন্যাশনাল।

এই কর্মসূচির প্রধান উদ্দেশ্য মেয়েদের সমাজের উচ্চপদস্থ বিভিন্ন পদের দায়িত্ব প্রদানের মাধ্যমে তাদের অবস্থান, নেতৃত্ব, সিদ্ধান্ত ও সাফল্য তুলে ধরার আত্মবিশ্বাস তৈরির সুযোগ করে দেওয়া।

ন্যাশনাল চিলড্রেন’স টাস্কফোর্স- (এনসিটিএফ)' নওগাঁ জেলার শিশু সাংবাদিক শান্তনা এক ঘণ্টার জন্য নওগাঁ সদর নির্বাহী অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন সকাল ১০টা থেকে বেলা ১১টা পর্যন্ত।

শুরুতেই মোছা. শান্তনা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নিকট এক ঘণ্টার জন্য দায়িত্ব পালন করার অনুমতির জন্য এনসিটিএফ নওগাঁ জেলা সহ-সভাপতি কল্লোল সরকার স্বাক্ষরিত একটি আবেদনপত্র দেন। নওগাঁ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মির্জা ইমাম উদ্দিন এর অনুমতিক্রমে শুরু হয় অনুষ্ঠান।

ইউএনও মির্জা ইমাম উদ্দিন ফুলের তোড়া দিয়ে বরণ করে নেয় প্রতীকী নওগাঁ সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শান্তনাকে। তারপর উক্ত পদের কী কী দায়িত্ব সেই সম্পর্কে ধারণা দেন তিনি। শিশু সাংবাদিক শান্তনা সেই ধারণা থেকে এক ঘণ্টা দায়িত্ব পালন করে।

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশপরে নওগাঁ সদর উপজেলার নির্বাহী অফিসার মির্জা ইমাম উদ্দিন নির্দেশনামূলক বক্তব্য দেন। এ সময় তিনি বলেন, এক সময় শিশুরাই সমাজ ও দেশের বিভিন্ন বড় জায়গায় আসবে, সমাজকে নেতৃত্ব দেবে। এই ধরনের কর্মসূচির মাধ্যমে কিশোরী, কন্যা শিশু অথবা যুব নারীদের নেতৃত্ব প্রদানকারীর ভূমিকা পালন করতে আত্মবিশ্বাসী এবং উৎসাহিত করবে। তিনি এই ধরনের অনুষ্ঠান আয়োজন করার জন্য আয়োজকদের ধন্যবাদ জানান।

এ বিষয়ে শান্তনা জানায়, দীর্ঘদিন ধরে আমি এনসিটিএফ’র সঙ্গে কাজ করছি তবে আমার জন্য এই ধরনের অভিজ্ঞতা নতুন। এক ঘণ্টার প্রতীকী ইউএনও হিসেবে দায়িত্ব পালন করায় খুব আনন্দ অনুভব করছি। সমাজের নেতৃস্থানীয় জায়গাগুলোতে মেয়েদের অংশগ্রহণের জন্য কাজ করার অঙ্গীকার করছি। ভালো করে পড়াশোনা করে ভবিষ্যতে দেশের সেবা করা যায় এমন কিছু কাজের সঙ্গে যুক্ত হবো।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম