ভুয়া সচিব কাদের তিন দিনের রিমান্ডে

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৬ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ১১ ১৪২৮,   ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

ভুয়া সচিব কাদের তিন দিনের রিমান্ডে

নিজস্ব প্রতিবেদক  ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:০০ ১৩ অক্টোবর ২০২১  

আব্দুল কাদের - ফাইল ছবি

আব্দুল কাদের - ফাইল ছবি

রাজধানীর তেজগাঁও শিল্পাঞ্চল থানায় দায়ের করা প্রতারণার মামলায় জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের ভুয়া অতিরিক্ত সচিব আব্দুল কাদেরের তিনদিনের রিমান্ড আবেদন মঞ্জুর করেছেন আদালত। 

বুধবার ঢাকা মহানগর হাকিম শহিদুল ইসলামের আদালত এই রিমান্ড মঞ্জুর করেন। সংশ্লিষ্ট আদালতের সাধারণ নিবন্ধন শাখা সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। 

এদিন আসামি আব্দুল কাদেরকে আদালতে হাজির করে প্রতারণার মামলায় গ্রেপ্তার দেখানোসহ ১০ দিনের রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের (গুলশান জোন) পরিদর্শক (নিরস্ত্র) নূরে আলম সিদ্দিকী। আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে আদালত তার তিন দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

রিমান্ড আবেদনে বলা হয়, আব্দুল কাদের একজন আন্তর্জাতিক সংঘবদ্ধ প্রতারক চক্রের সক্রিয় সদস্য। তিনি নিজেকে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব পরিচয় প্রদান করে এবং তার ব্যবহৃত গাড়িতে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের স্টিকার ব্যবহার করে থাকেন। মানুষকে লোন পাস করে দেওয়ার কথা বলে এবং ফ্ল্যাট বিক্রির কথা বলে কোটি কোটি টাকা প্রতারণার মাধ্যমে হাতিয়ে নেন।

এদিকে, গত ৭ অক্টোবর ঠিকাদার কনস্ট্রাকশনের মালামাল সরবরাহকারী শেখ আলী আকবর প্রতারণা করে ২৩ লাখ ৪০ হাজার টাকা আত্মসাতের অভিযোগে তিনজনের বিরুদ্ধে মামলাটি দায়ের করেন। মামলার অপর আসামিরা হলেন-আব্দুল কাদেরের স্ত্রী সততা প্রপার্টিজ লিমিটেডের চেয়ারম্যান ছোয়া এবং ম্যানেজার শহিদুল ইসলাম।

এর আগে, গত ৮ অক্টোবর আব্দুল কাদেরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। মামলার সূত্রে জানা যায়, আব্দুল কাদের তার দালাল ও মিডিয়া ম্যান-এর মাধ্যমে বিভিন্ন ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠানের সাথে যোগাযোগ করে প্রলুব্ধ করে বড় অঙ্কের ঋণ প্রদান এবং ওয়ার্ক অর্ডার, সাব-কন্ট্রাক্ট, ঠিকাদারি কাজ পাইয়ে দেয়ার প্রসেসিং করতো। তাদেরকে আকৃষ্ট করার জন্য সে ভুয়া অতিরিক্ত সচিবের পরিচয়, ভুয়া সিআইপি, দামি দামি গাড়ি, বডিগার্ড, ওয়্যারলেস সেট ইত্যাদি ব্যবহার করত। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়, সেনাবাহিনীর কাছ থেকে প্রাপ্ত ভুয়া কার্যাদেশ, শমসের বিন মুসার সাথে তার ছবি এবং বিভিন্ন লেনদেনের ভুয়া কাগজপত্র ব্যাবহার করতো। ৩৩ জন সচিবসহ বিভিন্ন উচ্চপর্যায়ের ব্যক্তির সাথে তার কনসোর্টিয়াম , ব্যবসা আছে ইত্যাদি প্রচার করতো।

আব্দুল কাদেরের বিরুদ্ধে পল্লবী থানায় অস্ত্র মামলা ও তেজগাঁও থানায় প্রতারণার মামলা দায়ের করা হয়েছে। এছাড়া তার বিরুদ্ধে পাসপোর্ট জালিয়াতি, বিভিন্ন প্রতারণা, ব্যাংকে নিয়োগের প্রতারণার ঘটনায় কমপক্ষে অর্ধ ডজন মামলা দায়ের হয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ