আরো দুই সপ্তাহ সময় পেলেন শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন

ঢাকা, রোববার   ১৭ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ২ ১৪২৮,   ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

আরো দুই সপ্তাহ সময় পেলেন শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন

শিক্ষাঙ্গন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:০৯ ১৩ অক্টোবর ২০২১  

ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন

ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন

বক্তব্য উপস্থাপনের জন্য আরো দুই সপ্তাহ সময় পেলেন রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন। বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীর মাথার চুল কেটে দেয়ার ঘটনায় তাকে অবশেষে ২ সপ্তাহের সময় দেয় তদন্ত কমিটি। তবে এই সময় ৭ অক্টোবর থেকে ধরা হবে। 

২১ অক্টোবর দুপুর ১টায় উপস্থিত হয়ে তার বক্তব্য উপস্থাপনের জন্য নতুন সময় বেধে দিয়েছে তদন্ত কমিটি। বিষয়টি বুধবার (১৩ অক্টোবর) দুপুর ২টায় নিশ্চিত করেছেন রবীন্দ্র অধ্যয়ন বিভাগের চেয়ারম্যান ও ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রধান লায়লা ফেরদৌস হিমেল।

গত ৩ অক্টোবর ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীসহ প্রায় অর্ধশত শিক্ষার্থী, শিক্ষক ও কর্মচারীর সাক্ষ্য গ্রহণ করে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি। সেদিন দুপুর ১২টায় অভিযুক্ত শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন বাতেন উপস্থিত হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তিনি উপস্থিত না হয়ে ১৪ দিনের সময় প্রার্থনা করেন। তদন্ত কমিটি তাকে ৩ দিনের সময় দেয়। কিন্তু তিন দিন পরেও তিনি উপস্থিত না হয়ে আবারও ই-মেইলের মাধ্যমে ২সপ্তাহের সময় চান। তদন্ত কমিটি এতদিন তাকে সময় না দেওয়ার পক্ষে ছিল। 

এ বিষয়ে তদন্ত কমিটির প্রধান লায়লা ফেরদৌস হিমেল বলেন, শিক্ষিকা ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের বারবার আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে তদন্ত কমিটি তাকে দুই সপ্তাহের সময় দিয়েছে। ২১ অক্টোবর দুপুর ১টায় আসার জন্য নতুন সময় বেঁধে দেওয়া হয়েছে তাকে। 

তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, বিভিন্ন বিষয়ে যাচাই-বাছাই করে এই ঘটনার তদন্ত প্রতিবেদন জমা দেওয়া হবে।

উপাচার্য আব্দুল লতিফ বলেন, সময় না দিলে শিক্ষক ফারহানা উচ্চ আদালতের শরণাপন্ন হয়ে শেষ পর্যন্ত পুরো তদন্ত বা বিচার প্রক্রিয়াটাই ঝুলিয়ে দেয়ার সুযোগ নিতে পারেন। এ জন্যই তাকে সময় দেয়া হয়েছে।

এ বিষয়ে কথা বলার জন্য অভিযুক্ত শিক্ষক ফারহানা ইয়াসমিন বাতেনের মুঠোফোনে একাধিকবার চেষ্টা করা হলেও তিনি কল রিসিভ করেননি।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম