খালে থাকা লাশ ভেসে গেল নদীতে, অবশেষে উদ্ধার

ঢাকা, রোববার   ১৭ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ২ ১৪২৮,   ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

খালে থাকা লাশ ভেসে গেল নদীতে, অবশেষে উদ্ধার

কালীগঞ্জ (গাজীপুর) প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:১৪ ১২ অক্টোবর ২০২১  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

গাজীপুরের কালীগঞ্জে ভাদার্ত্তী খাল দিয়ে ভেসে আসে অজ্ঞাত বৃদ্ধার গলিত মরদেহ। ভাদার্ত্তী ব্রিজের নিচে মরদেহটি থেমে থাকলেও পুলিশ ভাসিয়ে দেয় শীতলক্ষ্যা নদীতে। পরে গণমাধ্যমকর্মীদের তদারকিতে উপজেলার তুমলিয়া ইউনিয়নের সোমবাজার এলাকা থেকে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এর আগে কালীগঞ্জ-পলাশ-রূপগঞ্জ থানা পুলিশ নাকি নৌ পুলিশ উদ্ধার করবে তা নিয়ে তৈরি হয়েছিল ধুম্রজাল। দিন শেষে কেউ না আসায় কালীগঞ্জ থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধারের পর তা ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়েছে।   

মঙ্গলবার বিকেলে মরদেহ উদ্ধারের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন কালীগঞ্জ থানার এসআই মো. আমিনুল ইসলাম।

তিনি জানান, উদ্ধার বৃদ্ধার বয়স আনুমানিক ৬০ বছর। নিহতের গায়ে হালকা গোলাপী রং এর একটি ব্লাউজ থাকলেও পুরো শরীরে কাপড় ছিল না। মাথায় কাঁচা-পাকা চুল। উদ্ধারকৃত মরদেহটি থেকে দুর্গন্ধ বের হচ্ছিল এবং শরীরে বিভিন্নস্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ গাজীপুরে পাঠানো হয়েছে।  

স্থানীয়রা জানায়, মঙ্গলবার দুপুরে বেলাই বিলের দিক থেকে শীতলক্ষ্যা নদীর সংযোগ ভাদার্ত্তী-জয়রামবের খাল দিয়ে একটি মরদেহ ভেসে আসে। এ সময় মরদেহটি ভাদার্ত্তী ব্রিজের পিলারের সঙ্গে আটকে যায়। স্থানীয়রা খবর দেয় থানা পুলিশকে। পুলিশ মরদেহটি শীতলক্ষ্যা নদীতে ভাসিয়ে দিতে বলে। এ ঘটনা জানাজানি হলে স্থানীয় গণমাধ্যমকর্মীরা থানার ওসিকে ফোন দেন। পরে ওসির নির্দেশে মরদেহটি উপজেলার তুমলিয়া ইউনিয়নের সোমবাজার এলাকা থেকে উদ্ধার করা হয়।

যদিও মরদেহটি শীতলক্ষ্যা নদীর কালীগঞ্জ অংশে ভেসে ছিল কিন্তু কালীগঞ্জ থানা পুলিশ মরদেহটি উদ্ধারের জন্য নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ ও নরসিংদীর পলাশ থানা পুলিশের ওপর নির্ভর করে। পরে তারা কোনো ব্যবস্থা না নেয়ায় কালীগঞ্জ থানা পুলিশ মরদেহ উদ্ধারের পর তা নৌ-পুলিশের কাছে হস্তান্তরের জন্য অপেক্ষায় ছিল। নৌ-পুলিশ না আসায় কালীগঞ্জ থানা পুলিশ মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য গাজীপুর শহীদ তাজউদ্দিন আহমদ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

পলাশ থানার ওসি মো. ইলিয়াস হোসেন ও রূপগঞ্জ থানার ওসি মো. সায়েদ আহমেদ এ ব্যাপারে কিছু জানেন না বলে জানিয়েছেন। এ বিষয়ে নারায়ণগঞ্জ জেলা নৌ পুলিশের কারো বক্তব্য পাওয়া যায়নি।   

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম