স্লোভাকিয়ায় আকর্ষণীয় বৃত্তি: প্রতি দেয়া হয় ১ লাখ টাকা 

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২৬ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ১১ ১৪২৮,   ১৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

স্লোভাকিয়ায় আকর্ষণীয় বৃত্তি: প্রতি দেয়া হয় ১ লাখ টাকা 

শিক্ষাঙ্গন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:১৮ ১২ অক্টোবর ২০২১   আপডেট: ১৮:২০ ১২ অক্টোবর ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

স্লোভাকিয়া প্রজাতন্ত্রের শিক্ষা, বিজ্ঞান, গবেষণা ও ক্রিয়া মন্ত্রণালয়ের অর্থায়নে দেওয়া এই স্কলারশিপটির আওতায় প্রতি মাসে ৩৫ হাজার টাকা থেকে ১ লাখ টাকা পর্যন্ত পাওয়ার সুযোগ রয়েছে। এ স্কলারশিপ নিয়ে শিক্ষার্থীরা স্লোভাকিয়ার যে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়াশোনার সুযোগ পাবেন।

পড়াশোনায়ও দেশটি বিশ্বসেরা। আন্তর্জাতিক শিক্ষার্থীদের জন্য দারুণ সব সুবিধা দিয়ে থাকে স্লোভাকিয়া সরকার। দেশটির ন্যাশনাল স্কলারশিপ প্রোগ্রামের অধীনে পিএইচডি করার জন্য দেওয়া স্কলারশিপ তেমনি একটি আকর্ষণীয় বৃত্তি। পিএইচডি শিক্ষার্থী, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক এবং গবেষকরা এ স্কলারশিপের আওতাভূক্ত হবেন।

শিক্ষার্থীরা আগামী ৩১ অক্টোবর পর্যন্ত এ স্কলারশিপের জন্য আবেদন করতে পারবেন।

সুবিধাসমূহ:

• পিএইচডির শিক্ষার্থীরা প্রতি মাসে ৫৮০ ইউরো পাবেন। বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ প্রায় ৫৮ হাজার টাকা।

• বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক বা গবেষক হিসেবে ১০ বছরের কম অভিজ্ঞতা থাকলে প্রতি মাসে ৮৫০ ইউরো দেয়া হবে। বাংলাদেশি টাকায় যার পরিমাণ ৮৫ হাজার টাকা।

• ১০ বছরের বেশি অভিজ্ঞতা থাকলে প্রতি মাসে ১০০০ ইউরো বা বাংলাদেশি টাকায় ১ লাখ টাকা দেয়া হবে।

আবেদনের যোগ্যতা:

• স্লোভাকিয়া ব্যাতীত অন্য দেশের নাগরিক হতে হবে।

• স্নাতক ও স্নাতকোত্তর শেষ করতে হবে।

• প্রার্থীদের অবশ্যই তাদের ইংরেজি ভাষার দক্ষতা প্রমাণ করতে হবে।

যেভাবে আবেদন করতে হবে:

অনলাইনের মাধ্যমে আবেদন জমা দিতে হবে। বিস্তারিত জানতে ক্লিক করুন।

স্লোভাকিয়া
পূর্ব ইউরোপের দেশ স্লোভাকিয়া। যার আয়তন মাত্র ১৮ হাজার ৯৩৩ বর্গমাইল। উত্তর-পশ্চিমে চেক প্রজাতন্ত্র, উত্তরে পোল্যান্ড, পূর্বে ইউক্রেন, দক্ষিণে হাঙ্গেরি এবং দক্ষিণ-পশ্চিমে অস্ট্রিয়া। ১৯৯৩ সালে তৎকালীন চেকোস্লোভাকিয়া ভেঙে গঠিত হয় দুটি দেশ। একটি চেক রিপাবলিক এবং অন্যটি স্লোভাকিয়া। 

দেশটির মোট আয়তনের শতকরা ৪১ ভাগের মতো অংশ ছোট-বড় বিভিন্ন বনজঙ্গলে পরিপূর্ণ। টাটরা নামের পর্বতমালা স্লোভাকিয়া এবং পোল্যান্ড—দুটি দেশের মধ্যে প্রাকৃতিক সীমারেখা তৈরি করেছে। হাই টাটরাস পর্বতমালার ৮ হাজার ৭৪৩ ফুট উচ্চতাবিশিষ্ট জেরলাচভস্কি স্টিট নামের পর্বতশৃঙ্গ স্লোভাকিয়ার সর্বোচ্চ শৃঙ্গ।

স্লোভাকিয়াতে ৯টি জাতীয় উদ্যান রয়েছে। এখন পর্যন্ত দেশটিতে ২ হাজার ৪০০–এর মতো গুহা আবিষ্কৃত হয়েছে, মাত্র ৩০টির মতো গুহা সাধারণ মানুষের জন্য উন্মুক্ত। গুহা স্বাভাবিকভাবে ট্র্যাকিং কিংবা হাইকিংপ্রেমী মানুষের কাছে অন্যতম পছন্দের জায়গা।

বিশ্বের সবচেয়ে লম্বা গাছ কেটে তৈরি করা আলটার রয়েছে স্লোভাকিয়ার ব্যাসিলিকা অব সেন্ট জেমস নামক গির্জায়। লেভোচাতে গির্জায় থাকা আলটারটি তৈরি করতে কোনো পেরেক ব্যবহার করা হয়নি; সম্পূর্ণটাই কাঠ খোদাই করে তৈরি।

স্লোভাকিয়ার অধিকাংশ মানুষ খ্রিষ্ট (মূলত ক্যাথলিক খ্রিষ্টানিটি) ধর্মে বিশ্বাসী। কাঠে খোদাই করা বিভিন্ন জিনিস, ঘর ও পুতুল দেশটির সংস্কৃতি এবং ঐতিহ্যের অংশ। ফুইয়ারা নামের এক বাদ্যযন্ত্র স্লোভাকিয়ার লোকসংগীত পরিবেশনের সঙ্গে বিশেষভাবে যুক্ত এবং ইউনেসকোর তালিকায় ফুইয়ারা নথিভুক্ত রয়েছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডএম