ত্বকের যত্নে আমলকি যেভাবে কাজ করে

ঢাকা, শুক্রবার   ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২১,   আশ্বিন ২ ১৪২৮,   ০৮ সফর ১৪৪৩

ত্বকের যত্নে আমলকি যেভাবে কাজ করে

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:২১ ২৮ জুলাই ২০২১  

আমলকি। ছবি: সংগৃহীত

আমলকি। ছবি: সংগৃহীত

ছোট্ট একটি ফল আমলকি। ছোট হলেও আমলকি স্বাস্থ্যের জন্য অনেক উপকারী। শুধু তাই নয়, আমলকি ত্বকের যত্নেও দারুণ কার্যকরী। এতে রয়েছে ভিটামিন সি এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্ট। যা ত্বকের বিভিন্ন ক্ষতি থেকে মুক্ত রাখে।

অন্যদিকে, আমলকির রসের সঙ্গে আরো কিছু প্রাকৃতিক উপাদান মিশিয়ে মুখে মাখলে ত্বক থাকবে উজ্জ্বল ও সতেজ। চলুন এবার জেনে নেয়া যাক ত্বকের যত্নে আমলকি কীভাবে কাজ করে-

দাগ দূর করে

আমলকির রসের সঙ্গে অ্যালোভেরার রস মিশিয়ে মুখে মাখুন। এতে মুখের যাবতীয় দাগ দূর হয় এবং বয়সের ছাপ কমতে শুরু করে।

ছোপ দূর করে

আমলকির রসের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে মুখে মাখলে মুখের কালো ছোপ ভাব দূর হয়। শুধু তাই নয়, তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এই মিশ্রণ খুবই উপকারী ভূমিকা নেয়।

ত্বক মসৃণ করে

আমলকি ত্বকের রং উজ্জ্বল করতে দারুণ কাজে দেয়। এক্ষেত্রে রোজ সকালে আমলকির রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে পান করলে একমাসের মধ্যেই চোখে পরার মতো ত্বকের পরিবর্তন হয়। এছাড়া আমলকির রস মুখে সরাসরি ব্যবহার করলে ত্বকের রঙ উজ্জ্বল হয় এবং ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো থাকে।

স্কিনের বয়স কমায়

আমলকির রস নিয়মিত পান করলে ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ সহজে পরে না। আর যদি এমনটা করতে ইচ্ছা না হয়, তাহলে আমলকির রসের সঙ্গে বাদাম তেল মিশিয়ে মুখে মাখতে পারেন। এমনটা করলে ব্রণ সহ যে কোনো দাগ দূর হয় এবং ত্বককে সুন্দর রাখে।

মৃত কোষের স্তর সরে যায়

আমলকির মধ্যে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। যে কারণে এই ফলটির নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের মরা কোষ দূর হয়ে যায়। এক্ষেত্রে আমলকির রসের সঙ্গে চালের গুঁড়া, মধু, গোলাপ জল মিশিয়ে একটি পেস্ট বানাতে হবে। অল্প পরিমাণে এই পেস্ট নিয়ে মুখে ম্যাসাজ করলে ত্বক থেকে মরা কোষ দূর হবে এবং ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠবে। ভালো ফল পেতে সপ্তাহে দুবার এই পেস্ট ব্যবহার করতে হবে।

টক্সিক উপাদান শরীরে থেকে বের করতে

আমলকির রস প্রাকৃতিক উপায়ে রক্ত শোধন করতে পারে। ফলে ত্বকের যাবতীয় সমস্যাও দূর হতে সময় লাগে না। এছাড়া আমলকির রসের সঙ্গে পুদিনা পাতার রস মিশিয়ে ব্রণের ওপর লাগালে খুব দারুণ উপকার পাওয়া যায়। এই মিশ্রণটি মুখে সারা রাত লাগিয়ে রেখে পরের দিন ধুয়ে নিলে ব্রণ এবং অ্যাকনের মতো সমস্যা থেকে খুব সহজে মুক্তি পাওয়া যায়।

কোলাজেনের ঘাটতি দূর হয়

আমলকির মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে, যা ত্বকের অন্দরে প্রচুর পরিমাণে কোলাজেন তৈরি করে। সেই সঙ্গে ত্বকে স্থিতিস্থাপক গুণ বৃদ্ধি করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই ত্বক ফর্সা হতে শুরু করে। এক্ষেত্রে কয়েক চামচ বাদাম গুঁড়া, ২ চামচ চন্দন গুঁড়া, তিন চামচ আমলকির রস মিশিয়ে একটি মিশ্রণ তৈরি করে নিতে হবে। এই মিশ্রণ মুখে মাখলে যে কোনো দাগ এবং বয়সের ছাপ দূর হবে।

স্কিন ডিজিজের চিকিৎসায়

আমলকি বাঁটা, কয়েক চামচ দুধের সঙ্গে মিশিয়ে সারা মুখে লাগিয়ে নিন। ৪০ মিনিটের জন্য রেখে দিন। এই মিশ্রণটি ত্বককে যে কোনো ধরনের সমস্যা থেকে দূরে রাখবে এবং ত্বককে উজ্জ্বল রাখতে সাহায্য করবে।

সূত্র: বোল্ড স্কাই।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ