ননস্টিক পাত্র ব্যবহারে কিছু সতর্কতা

ঢাকা, শনিবার   ১৭ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ৪ ১৪২৮,   ০৪ রমজান ১৪৪২

ননস্টিক পাত্র ব্যবহারে কিছু সতর্কতা

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:০৭ ৩ মার্চ ২০২১   আপডেট: ১৫:০৮ ৩ মার্চ ২০২১

ননস্টিকের পাত্র ব্যবহারে সতর্কতা

ননস্টিকের পাত্র ব্যবহারে সতর্কতা

রান্নার সুবিধার্থে অনেকেই ননস্টিক পাত্র ব্যবহার করে থাকেন। এতে রান্না করলে খাবার পুড়ে বা লেগে যাওয়ার ভয় থাকে না। এছাড়াও এতে রান্না করলে কিংবা ভাজা-ভুজি করলে তেল অনেকটাই কম খরচ হয়। অথচ স্বাদে কোনো পরিবর্তন হয় না। তাছাড়া ননস্টিক পাত্রে রান্না করার সময় তাপ সবদিকে সমানভাবে ছড়িয়ে যায়, ফলে রান্না তাড়াতাড়ি হয় এবং গ্যাসও কম লাগে।

তবে এই ধরনের পাত্র ব্যবহার করার জন্য কিছু নিয়ম-কানুন মেনে চলা জরুরি। একটু সতর্ক হয়ে ব্যবহার করলে ননস্টিকের পাত্র অনেকদিন ভালো থাকে। চলুন জেনে নেয়া যাক ননস্টিকের পাত্র ব্যবহারের ক্ষেত্রে যা করবেন, যা করবেন না-

>> গ্যাস থেকে নামিয়ে সঙ্গেসঙ্গেই গরম ননস্টিকের পাত্র পানির মধ্যে ফেলবেন না। কোটিংয়ে চিড় ধরে যাবে।

>> ননস্টিকের পাত্র ঠাণ্ডা হলে পরিষ্কার করুন। কোটিংয়ে চিড় ধরে গেলে রান্নার সময় সমানভাবে হিট ডিস্ট্রিবিউশন সম্ভব নয়।  

>> খসখসে, স্টিল বা মেটালের তৈরি প্রডাক্ট দিয়ে ননস্টিকের বাসন পরিষ্কার করবেন না। পরিষ্কার করার জন্য প্লাস্টিকের জালি বা নরম স্পঞ্জ ব্যবহার করুন।

>> ননস্টিক কুকওয়্যার পরিষ্কার করার আগে পানিতে কিছুক্ষণ ভিজিয়ে রাখুন। জমে থাকা খাবারের কণা নরম হয়ে এলে ঈষদুষ্ণ পানি, মাইল্ড সোপ, নরম কাপড় দিয়ে পরিষ্কার করুন। এতে ননস্টিকের বাসন ধোয়ার পর অতিরিক্ত তেলাভাব থাকবে না।

>> বাজার চলতি ডিসওয়াশার ডিটারজেন্ট গুলো ননস্টিক বাসন পরিষ্কার করার পক্ষে উপযুক্ত নয়। ননস্টিকের কোটিং সহজে নষ্ট হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়ে যায়।

>> মাইল্ড সোপ বা লিকুইড সোপ ব্যবহার করুন। হাতে পরিষ্কার করুন। ননস্টিকের বাসন পুরো শুকিয়ে গেলে তখন শুকনো কাপড় দিয়ে মুছে তুলে রাখুন।

>> মাছ, ডিম ভাজার সময় বা প্যানকেক তৈরির সময় কাঠের, প্লাস্টিকের বা সিলিকনের তৈরি হাতা বা চামচ ব্যবহার করুন। স্টিলের খুন্তি, কাঁটাচামচ দিয়ে খাবার নাড়াচাড়া করলে, উলটোলে স্ক্র্যাচ পড়বে।

>> ননস্টিক প্যানে পিৎজা তৈরি করলে ননস্টিকের প্যান সামান্য হেলিয়ে কাঠের বোর্ডে পিৎজা রাখুন। তারপর কেটে সার্ভ করুন।

>> কম আঁচে বা মাঝারি আঁচে ননস্টিকের বাসনে রান্না করুন। বেশি আঁচে রান্না করলে ননস্টিকের কোটিং, স্মুদ ফিনিশ নষ্ট হয়ে যায়। সব থেকে ভালো হয় কুকিং হিট নিয়ে যে ইনস্ট্রাকশন লেখা থাকে, তা মেনে চলুন।

>> রান্না করে ননস্টিকের বাসনে দীর্ঘক্ষণ ফেলে রাখবেন না।

>> ননস্টিক ওয়্যারে খুব বেশি টক খাবার রান্না করবেন না। এতে নন স্টিকের কোটিং তাড়াতাড়ি নষ্ট হয়ে যায়।  

>> প্রথমবার ননস্টিক প্যান ব্যবহার করার আগে ঈষদুষ্ণ পানিতে, লিকুইড সোপ মিশিয়ে ননস্টিক বাসন ধুয়ে ফেলুন। তারপর নরম সুতির কাপড় দিয়ে শুকনো করে মুছে ফেলুন।

>> ননস্টিক প্যানে খাবার বা তেল না দিয়ে শুধু পাত্রটি আঁচে বসিয়ে রাখবেন না।

>> বেশ কয়েকবার ব্যবহার করার পর নন স্টিকের পাত্রে সাদা দাগ দেখা দিলে প্যানে অর্ধেক পানি দিন। তারমধ্যে ভিনেগার মেশান। ৫-১০ মিনিট একদম কম আঁচে রাখুন। তারপর কাঠের হাতা দিয়ে নাড়তে থাকুন। নামিয়ে ঠাণ্ডা করে মাইল্ড সোপ দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। শুকনো করে মুছে ফেলুন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ