ফসলের মাঠে ব্যতিক্রমী শিল্পে প্রাণের শহিদ মিনার

ঢাকা, রোববার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১,   ফাল্গুন ১৫ ১৪২৭,   ১৫ রজব ১৪৪২

ফসলের মাঠে ব্যতিক্রমী শিল্পে প্রাণের শহিদ মিনার

কিশোরগঞ্জ প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪২ ২১ ফেব্রুয়ারি ২০২১  

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ফসলের মাঠে শহিদ মিনার তৈরি করেছেন কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর উপজেলার জাফরাবাদ গ্রামের কৃষক রুমান আলী শাহ। মহান শহিদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে সামনে রেখে সবজি দিয়ে শহিদ মিনারটি তৈরি করেন তিনি। ব্যতিক্রমী এ শিল্পকর্মের জন্য প্রশংসায় ভাসছেন কৃষক রুমান। 

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, কুলিয়ারচর উপজেলার গোবরিয়া আবদুল্লাপুর ইউনিয়নের জাফরাবাদ গ্রাম। এ গ্রামের কৃষক রুমান আলী শাহ্ নিজের এক একর ১৪ শতাংশ জায়গায় গড়ে তুলেছেন কৃষিক্লাব নামে একটি প্রতিষ্ঠান। এ প্রতিষ্ঠানের ভেতরে ৬ শতাংশ জায়গায় পালং শাক এবং লাল শাক দিয়ে শহিদ মিনার, বর্ণমালা ও অতুল প্রসাদ সেনের বিখ্যাত লাইন। মিনারের নিচে সবজি চারা সাজিয়ে লেখা হয়েছে- ‘মোদের গরব মোদের আশা, আমরি বাংলা ভাষা’।

দেশ প্রেমে উদ্বুদ্ধ হয়ে এবং তরুণ প্রজন্মের কাছে দেশের ইতিহাস তুলে ধরতে এর আগেও সবজি দিয়ে দেশের মানচিত্র, জাতীয় পতাকা ও নৌকা অঙ্কন করেন তিনি। প্রায় দেড় একর জমির এ ফসলের মাঠের মাঝখানটা জুড়ে তৈরি একুশের অনবদ্য ক্যাম্পাস। আর দৃষ্টিনন্দন এ ক্যাম্পাসও সাজানো হয়েছে বাংলা বর্ণমালা দিয়ে। কৃষক রুমান আলীর ব্যতিক্রমী এ শিল্পকর্ম দেখতে জাফরাবাদ গ্রামের লোকজন তার ফসলের খামারে ভিড় করছেন।

কৃষক রুমান আলী শাহ্ জানান, দেশের গুরুত্বপূর্ণ দিবস যেমন- বিজয় দিবস, শহীদ দিবস ও স্বাধীনতা দিবস সবজি দিয়ে অঙ্কন করে দিবসের তাৎপর্য তরুণ প্রজন্ম ও মানুষের কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করছেন। আগামী মার্চ মাসে স্বাধীনতা দিবসেও সবজি দিয়ে জাতীয় স্মৃতিসৌধ অঙ্কন করার আগ্রহ রয়েছে।

কুলিয়ারচর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইয়াছির মিয়া বলেন, কৃষির মাধ্যমে ভাষা আন্দোলনের তাৎপর্য ফুটিয়ে তুলেছেন। এ জন্য কৃষককের কৃষিখাতে উন্নয়নের জন্য উপজেলা পরিষদ থেকে সহযোগিতা করা হবে এবং সরকারকে কৃষিখাতে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএম