পেটের চর্বি গলাতে সহায়ক এসব ঘরোয়া টোটকা

ঢাকা, শুক্রবার   ২২ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৮ ১৪২৭,   ০৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

পেটের চর্বি গলাতে সহায়ক এসব ঘরোয়া টোটকা

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১২:১৭ ১৮ নভেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৮:০২ ১৮ নভেম্বর ২০২০

ছবি: পেটের চর্বি কমবে এসব টোটকায়

ছবি: পেটের চর্বি কমবে এসব টোটকায়

শরীরের বাড়তি ওজন সবাইকেই ভাবিয়ে তুলছে। এজন্য কতো কিছুই না করছেন। এর প্রথমেই সবাই যা করে তা হলো, খাওয়া ছেড়ে দেন। নাহ, একেবারেই এটি করবেন না। খাওয়া ছেড়ে দিলেই যে ওজন কমবে বা পেটের মেদ কমবে এই ধারণা কিন্তু একেবারেই ভুল। 

সঠিক ডায়েট চার্ট আর শারীরিক কসরতের মাধ্যমেই পেটের চর্বি কমাতে পারবেন। সেই সঙ্গে সঙ্গী করতে পারেন ডেটক্স পানীয়। স্বাস্থ্যসম্মত ঘরোয়া কিছু টোটকায় খুব সহজে এবং দ্রুত পেটের চর্বি কমাতে পারেন। চলুন জেনে নেয়া যাক সেগুলো- 

লেবু পানি খেয়ে দিন শুরু করতে পারেন 
পেটের চর্বি কমাতে চাইলে উষ্ণ লেবু পানি পান করে দিন শুরু করতে পারেন। ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট উপাদানের কারণে লেবু পানি ভালো হজমে সহায়তা করে এবং শরীরকে বিশুদ্ধ করে, যা পেটের চর্বি পোড়ায়। শুধু লেবু পানি খেতে অনীহা হলে এর সঙ্গে এক চামচ মধু মেশাতে পারেন।

আরো পড়ুন: দাঁতের ক্ষয় রোধের সহজ তিনটি উপায়

জিরা পানিতে দিন শুরু
লেবু পানির বিকল্প হিসেবে জিরা পানি খেয়েও দিন শুরু করতে পারেন। প্রতিদিন সকালে জিরা পানি পান করলে চর্বি কমাতে সহায়তা করে। এটি এটি হজমক্রিয়ার উন্নতির পাশাপাশি তলপেটের চর্বি কমাতে সহায়তা করে।

সকালের নাশতায় প্রোটিন রাখুন 
শরীরে শক্তি জোগাতে প্রোটিন গুরুত্বপূর্ণ। সকালে প্রোটিন খেলে পেশি গঠনে সহায়তা করে এবং সারা দিন পেট পূর্ণ থাকে; ক্যালরির পরিমাণ কমিয়ে দেয়। প্রোটিন শরীরে ব্লাড সুগারের নিয়ন্ত্রণ করে।

শস্যজাতীয় খাবার তালিকায় রাখুন
এগুলোতে প্রচুর ফাইবার এবং প্রাকৃতিক পুষ্টি উপাদান রয়েছে। এটি অন্ত্রের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সহায়তা করে। এটি দীর্ঘক্ষণ ক্ষুধা নিয়ন্ত্রণে রাখে এবং উচ্চমাত্রায় ক্যালরিযুক্ত খাবার গ্রহণের ঝোঁক কমিয়ে দেয়। শস্যজাতীয় খাবার ওজন এবং পেটের চর্বি কমাতে সহায়তা করে।

হলুদ
প্রদাহজনিত কারণে স্থূলতা বাড়ে। হলুদে থাকা প্রদাহ প্রতিরোধী উপাদান স্থূলতা কমাতে সহায়তা করে। ওজন কমানোর খাদ্যতালিকায় হলুদ রাখতে পারেন। এটি ইনসুলিনের মাত্রা নিয়ন্ত্রণে চমৎকার কাজ করে।

আরো পড়ুন: দীর্ঘদিন ফ্রিজে রাখা মাছ- মাংসের টাটকা স্বাদ ফেরাবে দুধ

ইয়োগা বা মেডিটেশন 
মানসিক চাপ এবং উদ্বিগ্ন কর্টিসেলের মতো চর্বি জমানো হরমোন বেড়ে যায়। এই হরমোন বেড়ে গেলে ক্ষুধার মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। যার ফলে উচ্চ ক্যালরি যুক্ত খাবার গ্রহণ বেড়ে যায় এবং পেটে চর্বি জমে। এ কারণে মানসিক চাপমুক্ত থাকতে নিয়মিত ইয়োগা এবং মেডিটেশন করতে হবে।

পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করুণ
ওজন কমাতে কার্যকর ভূমিকা রাখে পানি। এটি শরীর আর্দ্র রাখে এবং শরীরের জন্য ক্ষতিকর খাবার গ্রহণের মাত্রায় কমিয়ে দিতে সহায়তা করে। খাওয়ার আগে পানি পান করলে বেশি খাওয়া থেকে বিরত থাকা যায়, যা পেটের চর্বি বাড়ার ঝুঁকি কমিয়ে দেয়।  

ডেইলি বাংলাদেশ/কেএসকে/জেএমএস