ফ্যাশনের নয়া ট্রেন্ড কাফতান, কালেকশনে রাখছেন তো?

ঢাকা, মঙ্গলবার   ২০ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৫ ১৪২৭,   ০৩ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

ফ্যাশনের নয়া ট্রেন্ড কাফতান, কালেকশনে রাখছেন তো?

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:০২ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০  

ছবি: ফ্যাশনের নয়া ট্রেন্ড কাফতান

ছবি: ফ্যাশনের নয়া ট্রেন্ড কাফতান

প্রতিনিয়ত পরিবর্তন হচ্ছে ফ্যাশন। অনেকটা জোয়ার ভাঁটা বলা যায়। কেননা পুরনো অনেক ধরনের পোশাকও নতুন করে যোগ হচ্ছে ফ্যাশনে। এর মধ্যে বেশ জনপ্রিয় ওয়ে উঠেছে কাফতান। বিভিন্ন ধরনের কাপড়ে বাদুড়ের পাখার আদলে তৈরি এই পোশাকের নাম দেয়া হয়েছে কাফতান।

বেশ আরামদায়ক আর ফ্যাশানেবল হওয়ায় জনপ্রিয়তা পেয়েছে নয়া এই ট্রেন্ড। এই পূজাতে নিজের কালেকশনে রাখতে পারেন একটি কাফতান। আগের মতো শপিং মল কিংবা দোকানে দোকানে ঘুরে কেনাকাটিও করতে পারছে না উৎসব পাগল বাঙালি। কিন্তু অনলাইন কেনাকাটি তো করাই যায়। এখন এই ট্রেন্ড চলছে। তাই নিজের কালেকশনে কাফতান রাখতে অনলাইনে ঢুঁ মারতে পারেন। 

অনেক জায়গাতেই এই কাফতান সহজেই পেয়ে যাবেন। দামও রয়েছে হাতের নাগালে। আবার নিজেই পুরনো শাড়ি, বড় মাপের ওড়না দিয়ে  কাফতান তৈরি করতে পারেন। আপনার প্রিয় কাফতানের গলা ইংরাজি অক্ষর ভি,  ইউ কিংবা গোলাকার যেমন পছন্দ তেমনই করতে পারেন। এছাড়াও কাফতানের ঠিক বুকের কাছে লাগাতে পারেন ছোট্ট লকেট। তাহলে দেখবেন একেবারে রূপ বদলে গিয়েছে প্রিয় পোশাকের।

আরো পড়ুন: মশার কামড় থেকে চুলকানি, প্রতিরোধ করবে নেল পলিশ 

কোমরের কাছে একটি দড়ির বন্দোবস্ত করতে পারেন। শক্ত করে বাঁধলে পোশাক আঁটসাঁটও হবে আবার একটু অভিনবত্বও আসবে। কাফতানের নিচের দিকেও করতে পারেন নানা ডিজাইন। আপনি চাইলে এক্কেবারে লম্বা ঝুলের তৈরি করতে পারেন। আবার খুব লম্বা ঝুলের পোশাকে অভ্যস্ত না হলে হাঁটু অবধি রাখতে পারেন। একেবারে সাদামাটা না করতে চাইলে কাফতানের নিচে অংশটি এবড়ো থেবড়ো করে কাটতে পারেন। জিগজ্যাগ কিংবা একপাশ বড় আবার একপাশ ছোটও করতে পারেন। 

এবারের পূজায় বেশ গরম পড়েছে। তাই হালকা এবং আরামদায়ক পোশাকই প্যান্ডেলে প্যান্ডেলে পরে ঘুরে বেড়ানোর জন্য আদর্শ। তবে চলতি বছর নতুন জামা এবং জুতা পরে পায়ে ফোসকা নিয়ে কতটা প্রতিমা দর্শনের মজা নিতে পারবে বাঙালি, সে বিষয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে। আচ্ছা সে চিন্তা নায় বাদই দিন। সময় বলে দেবে কীভাবে কাটবে পূজা। তবে ফ্যাশনের নয়া ট্রেন্ড মেনে কিনে ফেলতে পারেন কাফতান। আবার আপনি চাইলে নিজে অর্ডার দিয়ে তৈরি করাতে পারেন আরামদায়ক অথচ ফ্যাশনেবল এই পোশাক।  

ডেইলি বাংলাদেশ/কেএসকে