শরীরের যে চার চিহ্ন ভবিষ্যতে ধনী হওয়ার ইঙ্গিত দেয়

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ২২ অক্টোবর ২০২০,   কার্তিক ৮ ১৪২৭,   ০৬ রবিউল আউয়াল ১৪৪২

শরীরের যে চার চিহ্ন ভবিষ্যতে ধনী হওয়ার ইঙ্গিত দেয়

লাইফস্টাইল ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:৫৩ ১৪ সেপ্টেম্বর ২০২০  

যে চার চিহ্ন ভবিষ্যতে ধনী হওয়ার ইঙ্গিত দেয়

যে চার চিহ্ন ভবিষ্যতে ধনী হওয়ার ইঙ্গিত দেয়

জীবনে ধনী হতে সবাই চায়। তাইতো অক্লান্ত পরিশ্রমও করেন অনেকেই। এই পরিশ্রম এক সময় সফলতার মুখ দেখায়। তবে অনেকের ক্ষেত্রে সফলতার মুখ দেখা সম্ভব হয় না। তবুও নিরাশ হওয়া ঠিক নয়, চেষ্টা চালিয়ে যাওয়া উচিত।

তবে এমন অনেক মানুষ আছে যাদের ভাগ্য কেমন হবে তা তাদের শরীরের বিশেষ কিছু চিহ্ন দেখেই বোঝা সম্ভব। শাস্ত্র মতে, মানব দেহের প্রত্যেক অংশের এক নিজস্ব পরিচয় আছে। সমুদ্রশাস্ত্র অনুযায়ী মানুষের দেহের প্রত্যেকটি অঙ্গের নিজস্ব কিছু গুরুত্ব রয়েছে। জ্যোতিষশাস্ত্র মতে, মানব শরীরের বিভিন্ন অঙ্গের কিছু চিহ্নকে অত্যন্ত শুভ বলে মানা হয়। এই ধরনের চিহ্ন থাকলে তা ভাগ্য পরিবর্তনের সংকেত বলে মনে করা হয়। চলুন তবে জেনে নেয়া যাক সেই চিহ্নগুলো সম্পর্কে-

> হাতের তালুর মাঝখানে যদি টমর, রথ, চক্র, তীর বা পতাকা চিহ্নিত থাকে তবে তারা খুব ভাগ্যবান হয়। এরা ব্যবসায়িক দিক থেকে শুরু করে চাকরি, সব কিছুতেই সফল হয়। তাদের বিবাহিত জীবন সব সময় প্রেমময় হয়। তারা যে কাজই শুরু করুক না কেন তাতেই তারা সাফল্য লাভ করে। পরিবারের সবার কাছে এরা ভীষণ প্রিয় হয়।

আরো পড়ুন: শরীরের যেসব স্থানে তিল থাকলে ভাগ্য বদলে যায়

> মানুষের শরীরে তিল থাকা খুব সাধারণ একটা ব্যাপার। যদি এই তিল আপনার হাতের তালুতে উপস্থিত থাকে তাহলে এটি আপনার জন্য খুব উপকারী। তালুর মাঝখানে তিল থাকা ব্যাক্তিরা খুব ধনী হয়। তারা সমাজে সম্মানিত এবং প্রতিষ্ঠিত হয়। তাদের জীবনে অনেক সংগ্রাম করতে হয়, আর তারা সফলও হয়। তাদের সঙ্গীর প্রতি তাদের আলাদাই স্নেহ থাকে।

> যাদের পায়ে পদ্ম চিহ্ন বা চক্র চিহ্ন থাকে তাদের ধনসম্পদের কোনো ক্ষতি হয়না। এই মানুষেরা প্রচুর ধন সম্পদ ও জমি জায়গার সুখ ভোগ করে। তারা শিশুদের খুব ভালোবাসে, আর এরা অন্য মানুষের উপর নিজের আদেশ চালানো পছন্দ করে। এছাড়া এরা খুব ভালো মনের মানুষ হয় এবং খুব অল্প সময়ে অন্যের হৃদয় জয় করতে পারে।

> যাদের পায়ের তলায় তিল থাকে তাদের সেরা শাসক বলে মনে করা হয়। এই মানুষরা জীবনে সব ধরনের সুখ পায়। এরা জীবনে স্বাধীন ভাবে চলতে ভালোবাসে। তারা নিজেদের লক্ষ্যে পৌঁছনোর জন্য অনেক কঠোর পরিশ্রম করতে ভালোবাসে। টাকার ক্ষেত্রে এরা খুব ভাগ্যবান হয়। এরা নিজেদের পিতামহ এবং মাতামহের কাছ থেকে অনেক সম্পদ আশীর্বাদ রূপে পেয়ে থাকে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ