ড্রাইভার মালেকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানি শেষ, আদেশ ১১ মে 

ঢাকা, মঙ্গলবার   ০৫ জুলাই ২০২২,   ২১ আষাঢ় ১৪২৯,   ০৫ জ্বিলহজ্জ ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

ড্রাইভার মালেকের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানি শেষ, আদেশ ১১ মে 

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:১১ ১৮ এপ্রিল ২০২২   আপডেট: ১৬:১৫ ১৮ এপ্রিল ২০২২

গ্রেফতার ড্রাইভার মালেক- ফাইল ফটো

গ্রেফতার ড্রাইভার মালেক- ফাইল ফটো

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুদকের করা মামলায় স্বাস্থ্য অধিদফতরের গাড়িচালক আবদুল মালেক ওরফে বাদল ও স্ত্রী না‌র্গিস বেগমের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন শুনানি শেষ হয়েছে। 

সোমবার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৬ এর বিচারক আল আসাদ মো. আসিফুজ্জামানের আদালতে এ শুনানি অনুষ্ঠিত হয়। তবে আদালত শুনানি শেষে এ বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী ১১ মে দিন ধার্য করেন। সংশ্লিষ্ট আদালত সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। 

এদিন মালেক ও তার স্ত্রী নার্গিসের আইনজীবী তাদের জামিন চেয়ে আবেদন করেন। একইসঙ্গে এ মামলার দায় থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করে। অন্যদিকে দুদক জামিনের বিরোধিতার পাশাপাশি অভিযোগ গঠনের পক্ষে শুনানি করেন। 

শুনানি শেষে আদালত জামিন আবেদন খারিজ করে দেন। একইসঙ্গে অভিযোগ গঠনের বিষয়ে আদেশের জন্য আগামী ১১ মে দিন ধার্য করেন।

আরো পড়ুন>>> যেভাবে গুগলে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হলেন ববির সিফাতুল্লাহ

২০২১ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি অবৈধভাবে সম্পদ অর্জন ও সম্পদের তথ্য গোপন করার অভিযোগে আবদুল মালেক ও স্ত্রী নার্গিসের বিরুদ্ধে দুটি মামলা করে দুদক। এরপর অবৈধভাবে সম্পদ অর্জনের অভিযোগে স্বাস্থ্য অধিদফতরের সাবেক গাড়িচালক মো. আবদুল মালেক ও তার স্ত্রী নার্গিস বেগমের বিরুদ্ধে করা মামলার অভিযোগপত্র অনুমোদন করেছে দুদক। এ মামলার বাদী ও তদন্ত কর্মকর্তা ছিলেন দুদকের সহকারী পরিচালক সৈয়দ নজরুল ইসলাম।

মামলার এজাহারে বলা হয়, আসামি আবদুল মালেক দুদকে দাখিল করা সম্পদ বিবরণীতে ৯৩ লাখ ৫৩ হাজার ৬৪৮ টাকা মূল্যের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদ অর্জনের তথ্য গোপন করেন। তিনি তার জ্ঞাত আয়ের উৎসবহির্ভূত ১ কোটি ৫০ লাখ ৩১ হাজার ৮১০ টাকা মূল্যের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদ অর্জন করে তা ভোগদখলে রেখেছেন। মালেকের বিরুদ্ধে দুদক আইন, ২০০৪–এর ২৬(২) ও ২৭(১) ধারায় অভিযোগপত্র দাখিলের অনুমোদন দেওয়া হয়। অপর মামলায় মালেক ও তার স্ত্রী নার্গিস বেগমকে আসামি করা হয়। 

এ মামলার অভিযোগে বলা হয়, মালেক ও তার স্ত্রী নার্গিস বেগম জ্ঞাত আয়ের উৎসের সঙ্গে অসংগতিপূর্ণ ১ কোটি ১০ লাখ ৯২ হাজার ৫০ টাকা মূল্যের স্থাবর ও অস্থাবর সম্পদ ভোগদখলে রাখায় পরস্পরকে প্রত্যক্ষভাবে সহায়তা করেন। এ অপরাধে দুজনের বিরুদ্ধে দুদক আইন, ২০০৪–এর ২৭(১) এবং দণ্ডবিধি ১০৯ ধারায় অভিযোগপত্র চূড়ান্ত করে দুদক।

২০২০ সালের ২০ সেপ্টেম্বর ভোরে রাজধানীর তুরাগ এলাকা থেকে গাড়িচালক আবদুল মালেক ওরফে ড্রাইভার মালেককে গ্রেফতার করে র‌্যাব-১। এ সময় তার কাছ থেকে একটি বিদেশি পিস্তল, একটি ম্যাগাজিন, পাঁচ রাউন্ড গুলি, দেড় লাখ বাংলাদেশি জাল নোট, একটি ল্যাপটপ ও মোবাইল ফোন উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় র‌্যাব-১ এর পুলিশ পরিদর্শক আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে মামলা দুটি দায়ের করেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরআর/জেডআর

English HighlightsREAD MORE »