গণপিটুনিতে রেনু হত্যা: ১৩ জনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

ঢাকা, বুধবার   ০৮ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ২৪ ১৪২৮,   ০২ জমাদিউল আউয়াল ১৪৪৩

গণপিটুনিতে রেনু হত্যা: ১৩ জনের বিরুদ্ধে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২১:৫১ ২৪ অক্টোবর ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

রাজধানীর বাড্ডায় প্রাইমারি স্কুল গেটে ছেলেধরা সন্দেহে তাসলিমা বেগম রেনুকে গণপিটুনি দিয়ে হত্যার ঘটনায় করা মামলায় ১৩ জনের বিরুদ্ধে  মামলায় বাদী সৈয়দ নাসির উদ্দিন টিটুসহ তিনজন আদালতে সাক্ষ্য দিয়েছেন। এর মধ্য দিয়ে এ মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হলো।

রোববার ঢাকার ৬ষ্ঠ অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ ফাতিমা ইমরোজ ক্ষণিকার আদালতে তারা সাক্ষ্য দেন। এদিন এ মামলার আসামিদের আদালতে হাজির করা হয়। তাদের উপস্থিতিতে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়। এরপর তিন সাক্ষীর জবানবন্দি শেষ হলে আসামিপক্ষের আইনজীবীরা তাদের জেরা করেন। জেরা শেষে আদালত পরবর্তী সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য আগামী বছরের ১১ জানুয়ারি দিন ধার্য করেন। 

গত ১ এপ্রিল এ মামলায় কারাগারে আটক আসামিদের আদালতে হাজির করা হয়। এছাড়া জামিনে থাকা আসামিরা আদালতে উপস্থিত হন। এরপর আসামিপক্ষে তাদের আইনজীবীরা এ মামলার দায় থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেন।

অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষ এ মামলায় আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠনের পক্ষে শুনানি করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আসামিদের অব্যাহতির আবেদন খারিজ করে অভিযোগ গঠনের মাধ্যমে বিচারের আদেশ দেন। একইসঙ্গে মামলার সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য করেন আদালত।

এ মামলায় আসামি হৃদয় ইসলাম মোল্লা ওরফে ইব্রাহীম ওরফে নয়ন মোল্যা, সোহেল রানা ও মহিউদ্দিন কারাগারে আটক রয়েছে। বাকি ১০ জন জামিনে আছেন। তারা হলেন-রিয়া বেগম, আবুল কালাম, কামাল হোসেন, শাহিন, বাচ্চু মিয়া, শহিদুল ইসলাম, মুরাদ মিয়া, আসাদুল ইসলাম, বিল্লাল মোল্লা ও মো. রাজু।

গত ১০ সেপ্টেম্বর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ডিবি পুলিশের ইন্সপেক্টর আব্দুল হক ১৫ জনের বিরুদ্ধে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতের অভিযোগপত্র দাখিল করেন। এদের মধ্যে দুই জন অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে দোষীপত্র দিয়েছেন তদন্ত কর্মকর্তা। 

অভিযোগপত্রে উল্লেখিত আসামিরা হলেন- ইব্রাহিম ওরফে হৃদয় মোল্লা, রিয়া বেগম ময়না, আবুল কালাম আজাদ, কামাল হোসেন, মো. শাহিন, বাচ্চু মিয়া, মো. বাপ্পি, মুরাদ মিয়া, সোহেল রানা, আসাদুল ইসলাম, বেল্লাল মোল্লা, মো. রাজু ও মহিউদ্দিন। 

জাফর হোসেন পাটোয়ারী ও ওয়াসিম আহমেদ অপ্রাপ্তবয়স্ক হওয়ায় তাদের বিরুদ্ধে দোষীপত্র দেয়া হয়েছে। আসামিদের মধ্যে ওয়াসিম, হৃদয় এবং রিয়া বেগম আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। এদের মধ্যে রিয়া বেগম, বাচ্চু মিয়া, শাহীন, মুরাদ ও বাপ্পি উচ্চ আদালত থেকে জামিন পেয়েছেন।

২০১৯ সালের ২০ জুলাই তুবাকে ভর্তির খোঁজখবর নিতেই বাড্ডা প্রাইমারি স্কুলে গিয়েছিলেন রেনু। এ সময় তাকে ছেলেধরা সন্দেহে গণপিটুনিতে হত্যা করা হয়। ওই রাতেই রেনুর বোনের ছেলে নাসির উদ্দিন বাদী হয়ে বাড্ডা থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। মামলায় অজ্ঞাতনামা ৫০০ জনকে আসামি করা হয়। পরে সিসিটিভির ফুটেজ দেখে গণপিটুনিতে জড়িত কয়েকজনকে শনাক্তের পর গ্রেফতার করে পুলিশ।

উল্লেখ্য, তাসলিমা বেগম রেনু এক ভাই ও পাঁচ বোন। মাস্টার্স শেষ করা রেনু সবার ছোট। পড়ালেখা শেষে তিনি ঢাকায় আড়ং ও ব্র্যাকে চাকরি করেছিলেন। পারিবারিক কলহের কারণে স্বামীর সঙ্গে রেনুর ডিভোর্স হয়। তাদের সংসারে তাসফিক আল মাহি (১১) ও তাসলিমা তুবা (৪) নামের দুই সন্তান রয়েছে। 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ

English HighlightsREAD MORE »