দুদকের মামলায় সাবেক প্রতিমন্ত্রী মান্নান ও তার স্ত্রীর বিচার শুরু

ঢাকা, শনিবার   ১৬ অক্টোবর ২০২১,   কার্তিক ২ ১৪২৮,   ০৮ রবিউল আউয়াল ১৪৪৩

দুদকের মামলায় সাবেক প্রতিমন্ত্রী মান্নান ও তার স্ত্রীর বিচার শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:০৮ ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২১  

আবদুল মান্নান খান ও তার স্ত্রী হাসিনা সুলতানা

আবদুল মান্নান খান ও তার স্ত্রী হাসিনা সুলতানা

অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) মামলায় সাবেক গণপূর্ত প্রতিমন্ত্রী আবদুল মান্নান খান ও তার স্ত্রী হাসিনা সুলতানার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেছেন আদালত। এর মধ্য দিয়ে এ মামলার আনুষ্ঠানিক বিচার কাজ শুরু হলো।

রোববার ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৩ এর বিচারক আলী হোসেন আসামিদের অব্যাহতির আবেদন খারিজ করে অভিযোগ গঠনের এই আদেশ দেন। একইসঙ্গে আদালত সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ১৮ অক্টোবর দিন ধার্য করেন।

এদিন আসামি আবদুল মান্নান খান ও তার স্ত্রী হাসিনা সুলতানা আদালতে উপস্থিত হন৷ এরপর আসামি পক্ষে আইনজীবী তাদের নির্দোষ দাবি করে মামলা থেকে অব্যাহতি চেয়ে আবেদন করেন। অন্যদিকে দুদক তাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন জন্য শুনানি করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত তাদের অব্যাহতির আবেদন খারিজ করে অভিযোগ করেন। একই সঙ্গে আদালত সাক্ষ্য গ্রহণের জন্য আগামী ১৮ অক্টোবর দিন ধার্য করেন।

২০১৪ সালের ২১ আগস্ট মান্নান খানের বিরুদ্ধে ৭৫ লাখ চার হাজার টাকা আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা দায়ের করে দুদক। মামলা দায়েরের তিন দিনের মাথায় ২৪ আগস্ট মান্নান খান ঢাকা সিএমএম আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন। অপর দিকে, তার স্ত্রী হাসিনা সুলতানার বিরুদ্ধে এক কোটি ৮৬ লাখ ৫৩ হাজার টাকা সম্পদের তথ্য গোপন ও তিন কোটি ৪৫ লাখ ৫৩ হাজার টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগে একই বছরের ২১ অক্টোবর মামলা দায়ের করে দুদক। এরপর ২৩ অক্টোবর ঢাকার সিএমএম আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিন নেন হাসিনা সুলতানা। এরপর মামলাটি তদন্ত করে ২০১৫ সালের ১১ আগস্ট মান্নান খানের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করে দুদক। অভিযোগপত্রে মান্নান খানের অবৈধ সম্পদের পরিমাণ বেড়ে যায়।

অভিযোগপত্রে উল্লেখ্য করা হয়, তার আয়বহির্ভূত সম্পদের পরিমাণ দুই কোটি ৬৬ লাখ সাত হাজার টাকা এবং তিনি সম্পদের তথ্য গোপন করেছেন ৩১ লাখ ৪৫ হাজার টাকার। তদন্ত শেষে হাসিনা সুলতানার বিরুদ্ধে ২০১৫ সালের ৯ জুন আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করা হয়। অভিযোগপত্রে এক কোটি ৮৬ লাখ ৫৩ হাজার টাকার সম্পদের তথ্য গোপন ও তিন কোটি ৩৬ লাখ ৩৭ হাজার টাকার আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জনের অভিযোগ তদন্তে প্রমাণিত হয়।

দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) উপপরিচালক মো. নাসির উদ্দিন বাদী হয়ে রমনা থানায় মামলাটি করেন। মামলার এজাহারে বলা হয়, সৈয়দা হাসিনা সুলতানা দুদকে দাখিল করা সম্পদ বিবরণীতে তার মালিকানাধীন এক কোটি ৮৬ লাখ ৫৩ হাজার ৯১২ টাকা মূল্যের সম্পদের তথ্য গোপন করেছেন। এ ছাড়া তিন কোটি ৪৫ লাখ ৫৩ হাজার ৬৪০ টাকা মূল্যের সম্পদের যৌক্তিক উৎস দেখাতে পারেননি। দুদকের অনুসন্ধানে প্রমাণ হয়েছে, তিনি মোট পাঁচ কোটি ৩২ লাখ ৭ হাজার ৫৫২ টাকার অবৈধ সম্পদ অর্জন করেছেন। এ কারণে দুদক আইনের ২৬(২) এবং ২৭(১) ধারায় তার বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে দুদক।
 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ