কাউসার হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড, তিনজনের যাবজ্জীবন

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ১৫ এপ্রিল ২০২১,   বৈশাখ ২ ১৪২৮,   ০২ রমজান ১৪৪২

কাউসার হত্যা মামলায় একজনের মৃত্যুদণ্ড, তিনজনের যাবজ্জীবন

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:৫৬ ১ মার্চ ২০২১  

ছবি: প্রতীকী

ছবি: প্রতীকী

বণিক বার্তা পত্রিকার বিজ্ঞপ্তি বিভাগের সহকারী ব্যবস্থাপক জাহাঙ্গীর আলম কাউসারকে হত্যার অভিযোগে করা মামলায় আসামি এস এম ফয়সাল পেডির মৃত্যুদণ্ড ও তিনজনের যাবজ্জীন কারাদণ্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত।

রোববার ঢাকার ৭ম অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ তেহসিন ইফতেখারেরের আদালতে এ রায় ঘোষণা করেন। যাবজ্জীবন কারাদণ্ড প্রাপ্ত আসামিরা হলেন- রায়হান সারোয়ার, নাজমুল হাসান রাকিব ও ফাহিম হাসান।

এদিন তিন আসামি রায়হান, রাকিব ও ফাহিমকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর তাদের উপস্থিতি বিচারক রায় পড়া শুরু করেন৷ এরপর বিচারক রায় ঘোষণার পর সাজা পরোয়ানা দিয়ে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড আসামিদের কারাগারে পাঠানো হয়। তবে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত আসামি ফয়সাল পলাতক থাকায় আদালতে উপস্থিত ছিলেন না। এসময় আদালত তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানাসহ গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন।

মামলার এজাহারে বলা হয়েছে, ২০১৫ সালের ১৫ সেপ্টেম্বর সকালে বাসা থেকে বের হন জাহাঙ্গীর আলম। এরপর থেকে তার মোবাইলফোন বন্ধ ছিল। ওইদিন তেজগাঁও থানায় জিডি করা হয়। জাহাঙ্গীরের খবর জানতে একাধিক বার ফয়সালের সঙ্গে কথা বলে জাহাঙ্গীরের পরিবার। কিন্তু ফয়সাল তাদের বলেন, তিনি কিছুই জানেন না। পরে রাজধানীর খিলক্ষেত নামাপাড়ার ২১১/১-এ নম্বর বাড়ির পাঁচতলার একটি মেসে  সুটকেসের ভেতর থেকে জাহাঙ্গীরের লাশ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিহত জাহাঙ্গীরের স্ত্রী রোকসানা পারভীন বাদি হয়ে ওই বছরের ১৮ সেপ্টেম্বর খিলক্ষেত থানায় হত্যা মামলা করেন।

মামলাটি তদন্ত করে ২০১৬ সালের ২২ ফেব্রুয়ারি আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন তদন্ত কর্মকর্তা খিলক্ষেত থানার এসআই আব্দুল জলিল। ওই বছরের ২৫ মে আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করেন আদালত। মামলাটির বিচার চলাকালে আদালত ১২ জনের সাক্ষ্য গ্রহণ করেন।
 

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ