স্থলবন্দরের কাস্টমস স্টেশনে ৯ কেমিক্যাল টেস্টিং ইউনিট হচ্ছে

ঢাকা, রোববার   ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২১,   ফাল্গুন ১৫ ১৪২৭,   ১৫ রজব ১৪৪২

হাইকোর্টে এনবিআর এর প্রতিবেদন

স্থলবন্দরের কাস্টমস স্টেশনে ৯ কেমিক্যাল টেস্টিং ইউনিট হচ্ছে

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:২৫ ১৭ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৯:১৭ ১৭ জানুয়ারি ২০২১

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

আমদানি করা ফলে রাসায়নিকের উপস্থিতি পরীক্ষার জন্য ৯টি স্থলবন্দরে কাস্টমস স্টেশনের অবকাঠামোগত উন্নয়নে রাসায়নিক পরীক্ষাগার স্থাপনের বিষয়ে হাইকোর্টে প্রতিবেদন দাখিল করা হয়েছে। স্টেশনগুলো হলো- ভোমরা, বুড়িমারি, হিলি, বাংলাবান্ধা, সোনামসজিদ, শ্যাওলা, তামাবিল, বিবিরবাজার ও টেকনাফ।

রোববার প্রতিবেদন পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সংশ্লিষ্ট কোর্টের ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল এবিএম আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ বাশার।

তিনি বলেন, ফল আমদানিতে রাসায়নিকের মাত্রা পরীক্ষার জন্য বিভিন্ন বন্দরে কেমিক্যাল টেস্টিং ইউনিট বসাতে হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নের বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের দেয়া এ প্রতিবেদন দাখিল করেছে।

প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে, রাসায়নিক পরীক্ষার জন্য পরীক্ষাগার স্থাপন করতে একমত হয়েছে এনবিআর ও এডিবি।

প্রতিবেদনে আরো জানানো হয়, ঢাকায় একটি সেন্ট্রাল ল্যাবরেটরি তৈরির লক্ষ্যে গঠিত কমিটি ডিপিপি প্রণয়নের কাজ করছে। কোভিড-১৯ পরিস্থিতির কারণে এডিবির টেকনিক্যাল টিমের যাতায়াত ছয়-সাত মাস বন্ধ ছিল। এতে তাদের ফিজিবিলিটি টেস্ট এর কাজ বাধাগ্রস্ত হয়েছে। তবে বর্তমানে পুনরায় পুরোদমে কাজ শুরু হয়েছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এর আগে দেশের বিভিন্ন স্থল ও নৌ বন্দরের মাধ্যমে বিভিন্ন কেমিক্যালযুক্ত ফল আমদানি রোধের জন্য ২০১০ সালে অ্যাডভোকেট মনজিল মোরসেদ রিট দায়ের করেন। এ রিট আবেদনের শুনানি নিয়ে ২০১২ সালের ২৯ ফেব্রুয়ারি দেশের সব স্থল ও নৌ বন্দরে ৬ মাসের মধ্যে কেমিক্যাল টেস্ট ইউনিট স্থাপন এবং আমদানিকৃত সব ফলের কেমিক্যালমুক্ততা নিশ্চিত হয়ে দেশে প্রবেশের ব্যবস্থা করতে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের চেয়ারম্যানকে নির্দেশনা দেন।

এরপর ওই আদেশের ধারাবাহিকতায় হাইকোর্টের রায় বাস্তবায়নের বিষয়ে জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের কাছে আদালত ব্যাখ্যা জানতে চাইলে এই প্রতিবেদন দেয়া হয়।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএইচ/এইচএন/এসআর