পেশকারের বিরুদ্ধে জামিনের কথা বলে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

ঢাকা, শনিবার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২০,   অগ্রহায়ণ ২১ ১৪২৭,   ১৮ রবিউস সানি ১৪৪২

পেশকারের বিরুদ্ধে জামিনের কথা বলে টাকা আত্মসাতের অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৬:০৩ ২১ অক্টোবর ২০২০   আপডেট: ০৭:৪৫ ২১ অক্টোবর ২০২০

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

ঢাকার পঞ্চম যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ আদালতের এক পেশকারের (বেঞ্চ সহকারী) বিরুদ্ধে জামিন করানোর নামে আসামির স্বজনের কাছ থেকে দুই লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগ উঠেছে।

জালাল হোসেন নামের এই পেশকারের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা চেয়ে এরইমধ্যে ঢাকার মহানগর দায়রা জজের কাছে লিখিত অভিযোগ করা হয়েছে।

লিখিত অভিযোগে ঢাকা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক মো. হোসেন আলী খান হাসান বলেন, ঢাকার নারিন্দার দক্ষিণ মৌশন্ডীর হামিদা বেগমের কাছ থেকে একটি মামলায় তার ছেলে বিপ্লব হোসেনের জামিন করিয়ে দেয়ার কথা বলে সাত লাখ টাকা অবৈধভাবে হাতিয়ে নেন জালাল। গত ২০ ফেব্রুয়ারির ওই ঘটনার পরে দুটি চেকে পাঁচ লাখ টাকা ফেরত দিলেও অবশিষ্ট দুই লাখ টাকা ফেরত দেননি।

জামিন করাতে না পারলেও হামিদা এই টাকা ফেরত চাইলে বার বার তাকে ঘুরিয়ে পাঁচ লাখ টাকা দেন জালাল। আবেদনে বলা হয়, আইনজীবী ছাড়া কোনো আদালত কর্মচারী বা অন্য কেউ কোনো বিচারপ্রার্থীর কাছ থেকে জামিন করা, মামলা করার জন্য কোনো টাকা গ্রহণ করতে পারেন না।

এ বিষয়ে ঢাকা আইনজীবী সমিতিতে হামিদা বেগম অভিযোগ জানালে সমিতির সাধারণ সম্পাদক ঢাকার মহানগর দায়রা জজ বরাবর এ লিখিত আবেদন দেন।

ওই আবেদনের অনুলিপি সুপ্রিম কোর্টের রেজিস্ট্রার, আইন, বিচার  ও সংসদ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সচিব এবং পঞ্চম যুগ্ম মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক বরাবরে পাঠানো হয়েছে।

হামিদা বলেন, তাকে পূবালী ব্যাংক ঢাকা বার লাইব্রেরী শাখার তিন লাখ এবং সোনালী ব্যাংক ঢাকা ডিস্ট্রিক্ট কাউন্সিল হল শাখার দুই লাখ টাকার দুটি পৃথক চেক পাওনা টাকার বিপরীতে পরিশোধ করেন জালাল। বাকি দুই লাখ টাকা ফেরত দেননি।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর