সামাজিক দুরত্ব মানতে গিয়ে এক ম্যাচেই ৩৭ গোল হজম!
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=206260 LIMIT 1

ঢাকা, সোমবার   ২১ সেপ্টেম্বর ২০২০,   আশ্বিন ৬ ১৪২৭,   ০৩ সফর ১৪৪২

সামাজিক দুরত্ব মানতে গিয়ে এক ম্যাচেই ৩৭ গোল হজম!

স্পোর্টস ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৩৮ ১৭ সেপ্টেম্বর ২০২০  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

করোনা পরবর্তী সময়ে জার্মানিই সর্বপ্রথম পেশাদার ফুটবল লিগ শুরু করে। তবে দেশটি এখনো পুরোপুরি করোনামুক্ত নয়। সর্বোচ্চ সতর্কতা নিশ্চিত করেই দেশটিতে বুন্দেসলিগা ও অন্যান্য ফুটবল টুর্নামেন্ট শুরু করা হয়েছে। এমনই এক ফুটবল লিগে এক দল করেছে ৩৭ গোল খাওয়ার রেকর্ড! 

মূলত সামাজিক দুরত্ব মেনে খেলতে গিয়েই এমন অবস্থার সম্মুখীন হয়েছে জার্মান ফুটবল ক্লাব রিপডর্ফ। ১১তম ডিভিশনের খেলায় গত রোববার এসভি হোল্ডেনস্টেডের বিপক্ষে খেলতে নেমেছিল দলটি। করোনা সংক্রমণের শঙ্কায় ম্যাচে কেউই প্রতিপক্ষের ফুটবলারদের কাছে যায়নি। ফলে এই সুযোগে হোল্ডেনস্টেডের খেলোয়াড়রা রিপডর্ফের জালে একের পর এক গোল করেছে।

ম্যাচে ৩৭ গোল হজমের পেছনে রিপডর্ফের দায় কিংবা করোনা ভয়ের কথা উঠে আসলেও দলটির এমন ভয় পুরোপুরি যৌক্তিক। কারণ এই ম্যাচের আগে হোল্ডেনস্টেডের খেলোয়াড়রা একজন করোনা আক্রান্ত ব্যক্তির সংস্পর্শে ছিলেন।

এই খবর জানার পরেও ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শর্ত না মেনে রিপডর্ফের বিপক্ষে খেলতে নামে হোল্ডেনস্টেড। এই পরিস্থিতিতে ম্যাচটি পিছিয়ে নেয়ার আবেদন করেছিল রিপডর্ফ। কিন্তু কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দেয়, হয় ম্যাচ খেলতে হবে নয়তো বড়সড় শাস্তির সম্মুখীন হতে হবে।

ফলে একপ্রকার বাধ্য হয়েই রোববারের ম্যাচটি খেলতে নামে রিপডর্ফ। তবে করোনা ঝুঁকি থাকায় সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে ম্যাচটি খেলেছে তারা। অর্থাৎ রিপডর্ফের কেউই অন্য খেলোয়াড়ের কাছাকাছি আসেননি। এমনকি প্রতিপক্ষ খেলোয়াড়দেরও চার্জ করতে যাননি।

এমন সুযোগ কাজে লাগিয়ে একের পর এক গোল করেছে হোল্ডেনস্টেড। ম্যাচের নির্ধারিত সময় শেষ হলে দেখা যায়, দলটি জিতেছে ৩৭-০ ব্যবধানে। করোনা ঝুঁকির কারণে হোল্ডেনস্টেডের অন্য একাদশের ম্যাচ ঠিকই বাতিল করা হয়েছিল। তবে প্রায় চাপ দিয়েই রিপডর্ফকে খেলতে বাধ্য করা হয়েছে।

ম্যাচের বিষয়ে রিপডর্ফ প্রেসিডেন্ট প্যাট্রিক রিস্টো সংবাদমাধ্যমে বলেন, ‘আমাদের দলের বেশ কিছু খেলোয়াড় ম্যাচ শুরুর আগেই জানিয়ে রাখে যে, তারা নিরাপদ থাকার জন্য হোল্ডেনস্টেডের খেলোয়াড়দের কাছাকাছি যাবে না। আপনারা জানেন, ১৪ দিনের কোয়ারেন্টাইন শেষ না হওয়ায় হোল্ডেনস্টেডের একটি ম্যাচ ঠিকই বাতিল করা হয়েছে। কিন্তু আমাদের ম্যাচটা বাতিল করা হয়নি।’

অবশ্য ভিন্ন মত প্রকাশ করেছেন হোল্ডেনস্টেডের কোচ ফ্লোরিয়ান শায়েরওয়াটারের। তিনি বলেন, ‘আমি মনে করি ম্যাচটি না খেলার কোনো কারণ ছিল না। যে খেলোয়াড় করোনায় আক্রান্ত হয়েছে তার সঙ্গে আমার দলের কোনো ফুটবলারের সংস্পর্শ ছিল না। আমি ঐ খেলোয়াড়কে হ্যালো বলেছিলাম। তবুও সতর্কতাস্বরুপ আমার করোনা পরীক্ষা করানো হয়েছে।’

ডেইলি বাংলাদেশ/এএল