বাছুর জালা খাওয়ায় ঢাবি ছাত্রীর মাথা ফাটিয়ে রক্ত ঝরালো প্রতিবেশী

ঢাকা, বুধবার   ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২০,   আশ্বিন ১৫ ১৪২৭,   ১৩ সফর ১৪৪২

বাছুর জালা খাওয়ায় ঢাবি ছাত্রীর মাথা ফাটিয়ে রক্ত ঝরালো প্রতিবেশী

নেত্রকোনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ২০:৩৮ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ২১:১২ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

বাছুর জালা খাওয়ায় ঢাবি ছাত্রীর মাথা ফাটিয়ে রক্ত ঝরালো প্রতিবেশী।

বাছুর জালা খাওয়ায় ঢাবি ছাত্রীর মাথা ফাটিয়ে রক্ত ঝরালো প্রতিবেশী।

বাছুর ধানের জালা খাওয়ায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের এক ছাত্রীর ওপর হামলা চালিয়ে মাথা ফাটিয়েছে প্রতিবেশীরা। এতে ওই ছাত্রীর মাথা থেকে রক্ত বের হয়। তাৎক্ষণিক ছাত্রীকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নেয়া হয়েছে।

বুধবার দুপুরে নেত্রকোনার কলমাকান্দার পোগলা ইউপির আতকাপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

আহত ঢাবি শিক্ষার্থী নাম কেয়া আক্তার কাকলি। তার বাবার নাম আবু শ্যামা। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের চতুর্থ বর্ষের ছাত্রী। করোনায় বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ থাকায় রোকেয়া হলের আবাসিক এ ছাত্রী নিজ বাড়িতে অবস্থান করছিলেন। 

অভিযুক্তরা হলেন-পার্শ্ববর্তী গোমাই বাজার এলাকার আব্দুল রাজ্জাক রাজুর দুই ছেলে আপেল মিয়া, লাল চান মিয়া ও তাদের মা।

ঘটনার পরপরই বিকেলে লালচানকে আটক করা হয়।

কেয়া আক্তার কাকলী বলেন, অভিযুক্ত আপেল, লালচান ও তার মা ধানের জালা খাওয়ার অভিযোগ তুলে আমাদের এক মাস বয়সী গরুর বাছুরটিকে মারধর করেন। বাছুরকে মারতে মারতে অশ্লীল ভাষায় গালি দিয়ে বাড়িতে আসেন তারা। এক মাসের বাছুর দুধ ছাড়া ধানের জালা খায় না বলে তাদের জানাই। যদি জালার ক্ষতি করেও থাকে ক্ষতিপূরণ দেয়ার কথা বলি। কিন্তু গালাগালি করেন কেন?

এ কথা বলতেই আপেলের মা আমার হাত ধরে আর আপেল বাঁশ দিয়ে মাথায় আঘাত করেন। এতে মাথা ফেটে রক্ত বের হতে থাকে আমার। পরে কালাচান আমার মাকেও মারধর করে। প্রচণ্ড বৃষ্টির মধ্যে রক্তাক্ত অবস্থায় কয়েকজন আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসেন। এখন আমার মাথায় দুটি সেলাই দেয়া হয়েছে।

কলমাকান্দা হাসপাতালে চিকিৎসক সোরাব হোসাইন লিংকন জানান, কেয়ার মাথায় দুটি সেলাই দেয়া হয়েছে। এখনো তার চিকিৎসা চলছে। তবে তিনি শঙ্কামুক্ত।

কলমাকান্দা ওসি মো. মাজাহারুল করিম জানান, ঘটনার পরপরই বিকেলে লালচানকে আটক করা হয়েছে। অ্যাডিশনাল এসপি ফখরুজ্জামানসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ