প্রতি বছর একই তারিখে বিশ্বকর্মা পূজা হওয়ার কারণ জানেন কি?
SELECT bn_content.*, bn_bas_category.*, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeInserted, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeInserted, DATE_FORMAT(bn_content.DateTimeUpdated, '%H:%i %e %M %Y') AS fDateTimeUpdated, bn_totalhit.TotalHit FROM bn_content INNER JOIN bn_bas_category ON bn_bas_category.CategoryID=bn_content.CategoryID INNER JOIN bn_totalhit ON bn_totalhit.ContentID=bn_content.ContentID WHERE bn_content.Deletable=1 AND bn_content.ShowContent=1 AND bn_content.ContentID=206048 LIMIT 1

ঢাকা, বুধবার   ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০,   আশ্বিন ৮ ১৪২৭,   ০৫ সফর ১৪৪২

প্রতি বছর একই তারিখে বিশ্বকর্মা পূজা হওয়ার কারণ জানেন কি?

ফিচার ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৫০ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০   আপডেট: ১৯:৪৪ ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

বিশ্বকর্মা পূজা

বিশ্বকর্মা পূজা

হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা বিভিন্ন পূজার মাধ্যমে স্রষ্টার সন্তুষ্টি অর্জন করে থাকেন। তাদের বিভিন্ন পূজার মধ্যে বিশ্বকর্মা পূজা অন্যতম। এই বিশ্বকর্মা পূজার সঙ্গে পালিত হয় মহালয়া পূজাও। দেখা যায় প্রায় প্রতি বছরই নির্দিষ্ট একটি তারিখে দেবশিল্পী বিশ্বকর্মার পূজা পালিত হয়।

তবে অনেকের মনেই প্রশ্ন জাগে যে, কেন ১৭ সেপ্টেম্বরই বিশ্বকর্মার পূজা হয়? চলুন আজ জেনে নেয়া যাক প্রতি বছর একই তারিখে বিশ্বকর্মা পূজা হওয়ার কারণটি-  

বিশ্বকর্মা পূজা মানেই দুর্গাপূজার ঘণ্টা বেজে গেলো। দুর্গাপূজার আগমন ঘণ্টা হিসেবে জড়িয়ে আছে বিশ্বকর্মা পূজা। বিদ্যার দেবী সরস্বতী, অর্থের দেবী লক্ষ্মী বা শক্তির দেবী দুর্গা-কালী সবার পূজারই কোনো বাঁধা ধরা তারিখ নেই। কিন্তু শিল্পের দেব বিশ্বকর্মার পূজা মানেই ১৭ সেপ্টেম্বর। ইংরেজি ক্যালেন্ডারে এই দিনটি কেন স্থির তা জানতে হলে একটু পঞ্জিকা উলটে দেখতে হবে।

বিশ্বকর্মা পূজাআরো পড়ুন: বৈজ্ঞানিক পরীক্ষা-নিরীক্ষায় ইঁদুর ব্যবহার করা হয় কেন?

হিন্দু ধর্মে সব দেব-দেবীরই পূজার তিথি স্থির হয় চাঁদের গতি প্রকৃতির ওপর নির্ভর করে। এ বিষয়ে চান্দ্র পঞ্জিকা অনুসরণ করা হয়ে থাকে। কিন্তু বিশ্বকর্মার পূজার তিথি স্থির হয় সূর্যের গতি প্রকৃতির উপর ভিত্তি করে। যখন সূর্য সিংহ রাশি থেকে কন্যা রাশিতে গমন করে, তখনই সময় আসে উত্তরায়ণের। দেবতারা নিদ্রা থেকে জেগে ওঠেন এবং শুরু হয় বিশ্বকর্মার পূজার আয়োজন। হিন্দু পঞ্জিকার দুই প্রধান শাখা সূর্যসিদ্ধান্ত এবং বিশুদ্ধসিদ্ধান্ত- উভয়েই এ বিষয়ে একমত।

আরো একটু স্পষ্ট করে বলতে হলে, বিশ্বকর্মার পূজার দিন ভাদ্র মাসের শেষ তারিখে নির্ধারিত। এই ভাদ্র সংক্রান্তির আগে বাংলা পঞ্জিকায় পাঁচটি মাসের উল্লেখ মেলে। এই পাঁচটি মাসের দিন সংখ্যাও প্রায় বাঁধা ধরাই- সাকুল্যে ১৫৬টি দিন! এই নিয়ম ধরে বিশ্বকর্মা পূজার যে বাংলা পঞ্জিকা মতে তারিখটি বেরোয়, তা ইংরেজি ক্যালেন্ডারের ১৭ সেপ্টেম্বরেই পড়ে। কোনো কোনো বছরে এই পাঁচ মাসের মধ্যে কোনোটা যদি ২৯ বা ৩২ দিনের হয়, একমাত্র তখনই বিশ্বকর্মা পূজার দিন পিছিয়ে বা এগিয়ে যায়। তবে তা খুবই ব্যতিক্রমী ঘটনা।

এই বছরেও নিয়মের অন্যথা হয়নি। সূর্য নিয়ম মেনে প্রতিষ্ঠিত হয়েছেন কন্যা রাশিতে। ভাদ্র সংক্রান্তির আগে বাংলা পঞ্জিকার পাঁচটি মাসের দিনসংখ্যাও ১৫৬টিই থেকেছে এবং ১৭ সেপ্টেম্বর উদযাপিত হচ্ছে বিশ্বকর্মা পূজা। আকাশ রঙিন হয়েছে ঘুড়ির সম্ভারে। আসন্ন উত্‍সবের সূচনার বার্তা নিয়ে এসেছে তারা।

ডেইলি বাংলাদেশ/এএ/আরএজে