অনাহারী রেজাউলের পাশে দাঁড়ালেন মহৎপ্রাণ মানুষেরা

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ মে ২০২১,   বৈশাখ ২৩ ১৪২৮,   ২৩ রমজান ১৪৪২

‘ডেইলি বাংলাদেশ- এ সংবাদ প্রকাশ

অনাহারী রেজাউলের পাশে দাঁড়ালেন মহৎপ্রাণ মানুষেরা

পাবনা প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৩:৪১ ৫ মে ২০২১   আপডেট: ১৪:৪১ ৫ মে ২০২১

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

ছবি: ডেইলি বাংলাদেশ

বিরল রোগে আক্রান্ত অসাধারণ মেধাবী পাবনার রেজাউল ইসলামের দুর্দিনে পাশে দাঁড়িয়েছেন ঢাকার একজন চিকিৎসকসহ কয়েকজন। তারা রেজাউল ইসলামকে এক বছরের খাবারের খরচ বাবদ ২৫ হাজার টাকা দিয়েছেন। 

এর আগে, ২৬ এপ্রিল ডেইলি বাংলাদেশ- এ ‘চলমান ডিকশনারি খ্যাত রেজাউলের ১২ মাসই যেন রোজা’ শীর্ষক একটি সংবাদ প্রকাশিত হয়। সংবাদটি প্রকাশের পর ঢাকার একজন চিকিৎসক ডেইলি বাংলাদেশ-এর সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন। এ সময় এমন সংবাদ প্রকাশের জন্য তিনি ডেইলি বাংলাদেশ- এর প্রশংসাও করেন। 

তিনি জানান, রেজাউল ইসলামের মতো প্রতিভাবান ব্যক্তির এমন দুর্দশা তার হৃদয় ছুঁয়ে যায়। গ্রামে রেজাউলের মাসহ তাদের মাসিক খাবার দুই হাজার টাকা হিসেবে এক বছরের খাবার খরচ বাবদ তিনি ২৫ হাজার টাকা পাঠানোর ব্যবস্থা করেন। এর মধ্যে এক্সিম ব্যাংকের একজন পরিচালক, একজন প্রবাসী ও ঢাকার আরেকজন বাসিন্দা এতে শরিক হন। 

রেজাউলের জন্য এ সাহায্য সংগ্রহটির সমন্বয়কের দায়িত্ব পালন করেন ওই প্রবীণ চিকিৎসক। তারা জানান, অসহায় রেজাউলের পাশে দাঁড়াতে পেরেই খুশি। শুধু আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য তারা এ দান করেছেন। 

মঙ্গলবার ডেইলি বাংলাদেশ-এর সংশ্লিষ্ট প্রতিবেদককে সঙ্গে নিয়ে এক্সিম ব্যাংকের অ্যাসিস্ট্যান্ট ভাইস প্রেসিডেন্ট/পাবনা শাখার ম্যানেজার কামরুজ্জামান এবং একই ব্যাংকের সিনিয়র অফিসার জাহিদুল হাসান বেড়া উপজেলার প্রত্যন্ত গ্রামে রেজাউল এর বাড়িতে যান। সেখানে তার হাতে ২৫ হাজার টাকা নগদ তুলে দেয়া হয়।

এ সময় ওই চিকিৎসক বলেন, বিপদাপন্ন মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করি। আমার সমমনা বন্ধু-বান্ধবদের অবহিত করে কিছু করার চেষ্টা করি।

তিনি আরো বলেন, মানবিকতার হাত বাড়াতে ইচ্ছুক বহু মানুষ। কিন্তু সবার মধ্যে একটা আশঙ্কা কাজ করে সংবাদটি বাস্তবতা বিবর্জিত কিনা। এক্ষেত্রে দেশের শীর্ষস্থানীয় অনলাইন পত্রিকা ডেইলি বাংলাদেশ-এর ওপর আস্থা রেখেই আমরা যোগাযোগ করেছিলাম। রিপোর্টটিতে শতভাগ সঠিক চিত্র উঠে এসেছে।

এদিকে অসহায় হয়ে পড়া এবং অনাহারে-অর্ধাহারে থাকা রেজাউল ইসলাম তার চরম দুর্দিনে পাশে দাঁড়ানো মহৎ মানুষগুলো এবং ডেইলি বাংলাদেশ-এর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএস/এআর