হাজী মুসা ম্যানসনে আগুন: জামিন মেলেনি গোডাউনের মালিকের

ঢাকা, রোববার   ০৯ মে ২০২১,   বৈশাখ ২৭ ১৪২৮,   ২৬ রমজান ১৪৪২

হাজী মুসা ম্যানসনে আগুন: জামিন মেলেনি গোডাউনের মালিকের

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৬:০২ ৩ মে ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

রাজধানীর পুরান ঢাকার আরমানিটোলার হাজী মুসা ম্যানসনে আগুনের ঘটনায় করা মামলায় কেমিক্যাল গোডাউনের মালিক মোস্তাফিজুর রহমানের জামিন আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন আদালত। 

সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম দেবদাস চন্দ্র অধিকারীর আদালত শুনানি শেষে এই আদেশ দেন।

এদিন মোস্তাফিজুরের পক্ষে তার আইনজীবী জামিন শুনানি করেন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষ জামিনের বিরোধিতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে আদালত তার জামিন আবেদন খারিজ করে দেন।

এর আগে, গত শনিবার তিন দিনের রিমান্ড শেষে মুসা ম্যানসন ভবনের মালিক মোস্তাক আহমেদ চিশতি ও মোস্তাফিজুর রহমানকে আদালতে হাজির করা হয়। এরপর মামলার তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত আসামিদের কারাগারে আটক রাখার আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। এসময় আসামি মোস্তাফিজুরের পক্ষে তার আইনজীবী জামিন চেয়ে আবেদন করেন। এরপর আদালত জামিন শুনানির জন্য সোমবার দিন ধার্য করেন।

এদিকে গত ২৭ এপ্রিল দুই আসামিকে ঢাকা মহানগর হাকিম আদালতে হাজির করা হয়। এরপর মামলার সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে প্রত্যেকের দশ দিন করে রিমান্ডে নিতে আবেদন করেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা। এসময় আসামিপক্ষ রিমান্ড বাতিল চেয়ে জামিন আবেদন করেন। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষ জামিনের বিরোধিতা করেন। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে ঢাকা মহানগর হাকিম আবু সুফিয়ান মোহাম্মদ নোমানের আদালত জামিন আবেদন খারিজ করে প্রত্যেকের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

উল্লেখ্য, গত ২২ এপ্রিল সেহরির কিছু সময় আগে আরমানিটোলার ৬ তলা ভবনে আগুন লাগে। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১৯টি ইউনিট প্রায় ৩ ঘণ্টা চেষ্টার পর আগুন নিয়ন্ত্রণে আনে। তবে আগুনে প্রাণ হারান ৫ জন।  

এ ঘটনায় ২৩ এপ্রিল রাতে অবহেলাজনিত মৃত্যু এবং অবৈধভাবে রাসায়নিক দ্রব্য রাখার দায়ে ভবন মালিক ও কেমিক্যাল গোডাউন মালিকদের বিরুদ্ধে বংশাল থানার এসআই মোহাম্মদ আলী শিকদার মামলাটি দায়ের করেন। মামলায় অজ্ঞাতনামা আরো ১৫/২০ জনকে আসামি করা হয়েছে। আদালত এ মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য আগামী ১০ জুন দিন ধার্য করেছেন।

এ মামলার অন্য আসামিরা হলেন- মোস্তফা, গাফফার, সাইদ, ফিরোজ, তারেক, বাপ্পী।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিআরএইচ