পাখিদের নিয়ে রোহানের আনন্দ ভুবন

ঢাকা, সোমবার   ১০ মে ২০২১,   বৈশাখ ২৭ ১৪২৮,   ২৭ রমজান ১৪৪২

পাখিদের নিয়ে রোহানের আনন্দ ভুবন

কুষ্টিয়া প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:১২ ৩ মে ২০২১  

প্রায় সারাক্ষণই রোহানের ঘাড়ে ও মাথায় চড়ে বেড়াতে দেখা যায় এই শালিকদের।

প্রায় সারাক্ষণই রোহানের ঘাড়ে ও মাথায় চড়ে বেড়াতে দেখা যায় এই শালিকদের।

কুষ্টিয়া কলকাকলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের নবম শ্রেণির শিক্ষার্থী রোহান সিদ্দিক। তাকে এলাকাবাসী পাখিপ্রেমী নামেও ডাকে। ছোটবেলা থেকেই তিনি পাখিকে খুব ভালোবাসেন। পাখিকে খেতে দেন। 

দু’টি শালিক ছানা বাড়িতে নিয়ে আসেন বাড়ির পাশেই একটি গাছ থেকে। পরবর্তীতে আরেকটি শালিক সংগ্রহ করেন। এই তিন শালিককে পোষ মানিয়ে কথা বলতে শিখিয়েছেন রোহান।

কুষ্টিয়ার রোহান সিদ্দিক ছোট থেকে পাখির প্রতি ভালোবাসা থাকলেও কখনো কোনো পাখিকে খাচায় বন্দী করে রাখেননি। কিন্তু করোনার লকডাউনে ঘরবন্দি থাকা অবস্থায় ইউটিউবে শালিক পাখির ভিডিও দেখে মুগ্ধ হয়। এরপরই শালিকের প্রতি আগ্রহ ও ভালোবাসা বেড়ে যায় তার। তারপর তিনি পাখিগুলোকে থাকার ব্যবস্থা করেন বাড়িতে। এছাড়াও তিনি পাখিগুলোকে কথা বলা শিখিয়েছেন। 

রোহান পাখি তিনটির নাম রেখেছেন ‘মিঠু’, ‘ময়না’ আর ‘ডন’। শালিক পাখিগুলো মানুষের নাম ধরে ডাকার পাশাপাশি আল্লাহ, মা, জয় বাংলাসহ অনেক শব্দ উচ্চারণ করতে পারে এখন।

কুষ্টিয়া শহরের পিটিআই রোডের বাসিন্দা রোহানদের ঘরেই তিন শালিকের বসবাস। প্রায় সারাক্ষণই রোহানের ঘাড়ে ও মাথায় চড়ে বেড়াতে দেখা যায় এই শালিকদের। খাওয়া দাওয়া থেকে শুরু করে বেড়ানো সব কিছুই হয় রোহানের ঘাড়ে ও মাথায় চড়ে। পাখিদের নিয়েই যেন রোহানের আনন্দ ভুবন।

তিন শালিককে ভিন্ন তিন নামে ডাকেন রোহান সিদ্দিক। স্পষ্ট না হলেও ভাঙা ভাঙা শব্দে কথা বলে তিন শালিক। রোহানই এই কথা বলা শিখিয়েছেন।

পাখিপ্রেমী রোহান বলেন,  তিনটা শালিকই কথা বলতে পারে। আমাকে ছাড়া কোথাও যায় না। টিয়া ময়না বেশি পোষ মানে। ইউটিউব দেখে শালিক পোষ মানানো শিখেছি। পাখিগুলোর সঙ্গে বেশ ভালোই দিন কেটে যায় আমার। শালিকগুলো সব সময় আমার সঙ্গেই থাকে।

রোহানের এমন পাখি প্রীতিতে শুরুতে পরিবারের লোকজন বিরক্ত হলেও এখন বেশ ভালোই লাগে তাদের।

রোহানের মা রিজিয়া খাতুন বললেন, আগে রোহানের এমন কাণ্ড দেখে রাগ হতো। কিন্তু ওদের বন্ধুত্ব দেখে এখন অনেক ভালো লাগে।

রোহানের এই পাখি প্রীতির খবর এখন পড়শিরাও জানেন। অনেকেই দেখতে আসেন। রোহানের সঙ্গে তিন পাখিরও খোঁজখবর নেন।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকে