বরিশালের মেয়রসহ কোনো আসামির বিরুদ্ধে প্রমাণ পায়নি পুলিশ

ঢাকা, সোমবার   ২৭ জুন ২০২২,   ১৩ আষাঢ় ১৪২৯,   ২৮ জ্বিলকদ ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

ইউএনও’র ওপর হামলা মামলার প্রতিবেদন দাখিল

বরিশালের মেয়রসহ কোনো আসামির বিরুদ্ধে প্রমাণ পায়নি পুলিশ

বরিশাল প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৮:৩৩ ৩ জানুয়ারি ২০২২  

বরিশালে ইউএনও-মেয়রের লোকজনের সংঘর্ষের ছবি

বরিশালে ইউএনও-মেয়রের লোকজনের সংঘর্ষের ছবি

ব্যানার অপসারণকে কেন্দ্র করে বরিশাল সদরের ইউএনও’র ওপর হামলাচেষ্টা এবং আনসার সদস্যদের ওপর হামলা ও গুলিবর্ষণের মামলার প্রতিবেদন দাখিল করেছে পুলিশ। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে- ঐ ঘটনায় মেয়রসহ কোনো আসামির বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের সত্যতা পাওয়া যায়নি।

বরিশালের অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে আসামিদের মামলা থেকে অব্যাহতির আবেদন জানিয়ে চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদন জমা দিয়েছেন কোতোয়ালি মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) লোকমান হোসেন। গত ৬ ডিসেম্বর প্রতিবেদন জমা দিলেও বিষয়টি জানা গেছে রোববার (২ ডিসেম্বর) রাতে।

গত বছরের ১৮ আগস্ট বরিশাল সদর উপজেলা পরিষদ চত্বরে ব্যানার অপসারণকে কেন্দ্র করে সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা স্বপন কুমার দাসের সঙ্গে ইউএনও মুনিবুর রহমানের কথা কাটাকাটি হয়। এক পর্যায়ে সেখানে উপস্থিত আনসার সদস্যদের সঙ্গে সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা ও আওয়ামী লীগ নেতাদের হাতাহাতি হয়। পরে আওয়ামী লী‌গ, যুবলীগ ও ছাত্রলী‌গের নেতাকর্মীরা ইউএনওর বাসায় হামলার চেষ্টা চালায়।

ঐ সময় আনসার সদস্যদের গু‌লিতে সিটি কর্পোরেশনের কর্মকর্তা স্বপন কুমার দাসসহ চারজন আহত হন। পরে ইউএনও’র কার্যালয়ের সামনে পু‌লিশ অবস্থান নিলে নেতাকর্মীরা ফের ইউএনও’র বাসভবনে হামলার চেষ্টা করে। এ সময় পু‌লিশ ও নেতাকর্মী‌দের মধ্যে সংঘর্ষ হলে আহত হন বেশ কয়েকজন।

ঐ ঘটনায় ইউএনও মুনিবুর রহমান বরিশাল সিটি কর্পোরেশনের মেয়র সেরনিয়াবাত সাদিক আব্দুল্লাহসহ ২৮ জনের নাম উল্লেখ করে ৭০-৮০ জনের বিরুদ্ধে কোতোয়ালি মডেল থানায় মামলা করেন। ঐ মামলায় পুলিশের দেওয়া চূড়ান্ত তদন্ত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তদন্ত কর্মকর্তা পরিদর্শক (তদন্ত) লোকমান হোসেন ২৮ জন এজাহারভুক্ত আসামির মধ্যে কারো বিরুদ্ধে আনা অভিযোগের সত্যতা পাননি।

পরিদর্শক লোকমান বলেন, কারো পক্ষে গিয়ে নয়; বরং তদন্তে যা পেয়েছি সেভাবেই প্রতিবেদন দিয়েছি। যেহেতু কারো বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ হয়নি, তাই আসামিদের মামলা থেকে অব্যাহতি দেওয়ার জন্য আদালতে আবেদন করা হয়েছে। যদি ভবিষ্যতে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত কেউ শনাক্ত হয়, তাহলে পুনরায় মামলাটির কার্যক্রম শুরু হবে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এআর

English HighlightsREAD MORE »