সৃষ্টিকর্তা যা রেখেছেন তাই হবে: মিম

ঢাকা, শুক্রবার   ২২ জানুয়ারি ২০২১,   মাঘ ৮ ১৪২৭,   ০৭ জমাদিউস সানি ১৪৪২

সৃষ্টিকর্তা যা রেখেছেন তাই হবে: মিম

রুম্মান রয় ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৫১ ৪ জানুয়ারি ২০২১   আপডেট: ১৯:৫২ ৪ জানুয়ারি ২০২১

বিদ্যা সিনহা মিম

বিদ্যা সিনহা মিম

লাক্স তারকা ও জনপ্রিয় অভিনেত্রী বিদ্যা সিনহা সাহা মিম। একযুগ আগে সুন্দরী প্রতিযোগিতায় অংশ নিয়ে লাক্স সুন্দরীর মুকুটটি নিজের করে নেন। সেই সুবাদে সুযোগ হয় প্রয়াত কথাসাহিত্যিক, চলচ্চিত্র নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের ‘আমার আছে জল’ ছবিতে অভিনয়ের। ছবিতে অনবদ্য অভিনয়ের সুবাদে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারও অর্জন করেন তিনি। এরপর আর তাকে পেছনে ফিরে তাকাতে হয়নি। নজরকাড়া সৌন্দর্য আর অভিনয়-নৈপুণ্যে দারুণ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছেন মিম।

বছরের শুরুতেই জানুয়ারির ১ তারিখ ক্লাব ইলেভেন এন্টারটেইনমেন্টে মুক্তি পেয়েছে কাজল আরেফিন অমির পরিচালনায় মিমি এবং তাহসান খানের অভিনীত ওয়েব ফিল্ম ‘হ্যালো বেবি’। নিজের সমসাময়িক ব্যস্ততা নিয়ে এবার ডেইলি বাংলাদেশ-এর মুখোমুখি হয়েছেন এই অভিনেত্রী। তার সাক্ষাৎকার নিয়েছেন রুম্মান রয়।

নতুন বছরের প্রথম দিন আপনার অভিনীত ওয়েব ফিল্ম ‘হ্যালো বেবি’ মুক্তি পেয়েছে, কেমন সাড়া পেলেন?
বিদ্যা সিনহা মিম:
অনেক ভালো সাড়া পেয়েছি। মুক্তি পাওয়ার একদিনেই ১০ লাখ ভিউ হয়েছে। অনেক দিন পর দর্শকরা আমার নতুন কাজ দেখতে পেয়েছে। তাদের কাছে আমার কাজ ভালো লেগেছে এটাই আমার সার্থকতা। আসলে নতুন বছরে নতুন কাজ দিয়ে শুরু করাটাও অন্যরকম এক ভালো লাগার ছিলো।

তাহসান খানের সঙ্গে আপনি জুটি হয়ে বরাবরই দর্শকপ্রিয় হোন। ‘হ্যালো বেবি’ তার প্রমাণ। তাহসান খানের সঙ্গে কাজ করতে আপনার কেমন লাগে?
বিদ্যা সিনহা মিম:
অবশ্যই তাহসান ভাইয়ের সঙ্গে কাজ করতে ভালো লাগে। আর দর্শকরা আমাদের জুটি পছন্দ করে বলেই কাজ করি।

চলতি মাসের ৯ তারিখে আপনার নতুন ওয়েব ফিল্ম ‘হোয়াই দ্য ফ্রাই’ মুক্তি পাবে। এটা নিয়ে প্রত্যাশা কেমন?
বিদ্যা সিনহা মিম:
জি-ফাইভে এটা আমার প্রথম কাজ। আর ‘হোয়াই দ্য ফ্রাই’ দিয়ে প্রিতম আর আমাকে দর্শকরা নতুন এক জুটি পাবে। এখানে আমি ফিল্মের হিরোইন ক্যারেক্টরে কাজ করেছি। অনম দাদা খুব যত্ন নিয়ে মর্ডান ও স্টাইলিশভাবে কাজটা করেছেন। আশাকরি কাজটা দর্শকেরা পছন্দ করবে। 

সম্প্রতি আপনি রায়হান রাফীর ‘দামাল’ ছবির কাজ করেছেন, এই ছবির কাজ কেমন হলো?
বিদ্যা সিনহা মিম:
‘দামাল’ সিনেমায় আমি যে চরিত্রে কাজ করেছি এটি আমার ক্যারিয়ারে প্রথম। ছবির গল্প মুক্তিযুদ্ধের একটি ফুটবল টিমকে ঘিরে। ছবিতে আমাকে দুই রকম চেঞ্জে দেখতে পাওয়া যাবে। কয়েকদিন পরেই ছবিটি মুক্তি পাবে তাই আর বেশি কিছু না বলি। আসলে এখনই যদি বলে দেই তাহলে পরে দর্শকদের কাছে আগ্রহ থাকবে না। 

বর্তমানে আপনার হাতে কি কি কাজ রয়েছে?
বিদ্যা সিনহা মিম:
এরমধ্যে আমি নতুন কোনো সিনেমার কাজ হাতে নেইনি। প্রচুর ওয়েব সিরিজ, ওয়েব ফিল্মের কাজের অফার আসছে। তবে আমি বেছে বেছে কাজ করবো। আর এই বছরেই মুক্তি পাবে আমার ‘পরাণ’ ছবিটি। পাশাপাশি ‘ইত্তেফাক’ ছবির শুটিং শুরু হবে শীঘ্রই। আসলে আমাদের ডেট নিয়ে সমস্যা হওয়ার কারণে শুটিং শুরু করা যাচ্ছিলো না। দেখা যায় আমার মিললে সিয়ামের হয় না, আবার সিয়ামের মিললে আমার হতো না। এভাবেই ‘ইত্তেফাক’ এর শুটিং আটকে ছিলো।

আপনি সিনেমাকে প্রাধান্য দেয়ায় নাটকে তেমন কাজ করেনি, তাহলে এখন ওটিটি প্লাটফর্মে আপনার ব্যস্ততা দেখা যাচ্ছে?
বিদ্যা সিনহা মিম:
ওটিটি প্লাটফর্ম হলো ছোট একটা হল। এখানে দেখতে হলে আপনাকে টাকা দিয়েই দেখতে হচ্ছে। আপনি হয়তো ফোনে বা যাদের স্মার্ট টিভি আছে সেখান দেখতে পাচ্ছেন। সো আমি এটাকে একদিক থেকে ভালোই বলবো। এখানে কাজ করার সুযোগটা হচ্ছে। আর এমনতো নয় ওয়েব ফিল্মে কাজের কোয়ালিটি খারাপ হচ্ছে, যেটা করতে আমার আপত্তি থাকবে। আমি বরং বলবো ওয়েব সিরিজ, ওয়েব ফিল্ম নাটকের চেয়ে কোয়ালিটি ভালো হচ্ছে, নাটকের চেয়ে এখানে বাজেট বেশি থাকছে, বিগ ক্যানভাসে হচ্ছে। তাই ওটিটি প্লাটফর্মে কাজ করতে আমার কোনো অসুবিধা নেই। নাটকে একদিনেই ১২/১৫ দৃশ্য নামাতে চায়। কিন্তু ওয়েব ফিল্মে দিনে ৪/৫ টা দৃশ্য করে। তাও ধরে ধরে কাজ করে খুব যত্ন সহকারে। আমাদের জি-ফাইভ এর ‘হোয়াই দ্য ফ্রাই’ কাজটা সিনেমার মতো করেই শুটিং করা হয়েছে। যেহেতু নাটকের চেয়ে ওয়েব ফিল্মে কোয়ালিটি ও বাজেটে বেশি, তাই ওটিটি প্লাটফর্মে কাজ করতে আমার ভালো লাগে।

নতুন বছরে আপনার প্রত্যাশা কি?
বিদ্যা সিনহা মিম:
এই বছরে কোনো কিছু নিয়ে প্রত্যাশা করবো না। দেখছি কোনো কিছু নিয়ে চিন্তা করলে তার উল্টো হয়। গেল বছরতো পুরোটাই ঘরে বসে পার করে দিলাম। তাই এবছর আর কোনো প্রত্যাশা নয়, সৃষ্টিকর্তা যা লিখে রেখেছেন তাই হবে। সময়ের সঙ্গে এগিয়ে যাবো।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস