দর্শক যেটা পছন্দ করে সেটাই করতে চাই: জোভান

ঢাকা, রোববার   ১১ এপ্রিল ২০২১,   চৈত্র ২৮ ১৪২৭,   ২৭ শা'বান ১৪৪২

দর্শক যেটা পছন্দ করে সেটাই করতে চাই: জোভান

বিনোদন প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৯:৩২ ২১ ডিসেম্বর ২০২০  

ফারহান আহমেদ জোভান

ফারহান আহমেদ জোভান

অভিনেতা ফারহান আহমেদ জোভান। নিজের ক্যারিয়ারের ব্যাপারে সচেতন তিনি। খুব বুঝেশুনে নাটক এবং বিজ্ঞাপনে কাজ করছেন। কাজের গতিতে বেশ এগিয়েও চলেছেন সঙ্গে পাচ্ছেন দর্শকের ভালোবাসা ও জনপ্রিয়তা। একক নাটকের পাশাপাশি ধারাবাহিক নাটকেও অভিনয় করছেন জোভান।

তবে জোভানের শুরুটা মোটেও সুখকর ছিলো না। এক ভাই আর এক বোনের মধ্যে জোভান বড়। ছোটবেলা থেকে ইচ্ছা ছিল সাংবাদিকতা বিষয়ে পড়াশোনা করবেন। কিন্তু বাবা-মায়ের চাওয়াকে প্রাধান্য দিয়ে ভিন্ন বিষয়ে পড়াশোনা করেছেন। ২০১১ সালে প্রাণের একটি বিজ্ঞাপনে মডেল হওয়ার আশা নিয়ে প্রাথমিক বাছাইয়ে অংশ নেন। বাছাই শেষে চতুর্থ শ্রেণির মডেল হিসেবে তাতে কাজ করতে হয় তাকে। তবুও আশা ছাড়েননি বর্তমানের তুমুল জনপ্রিয় এই অভিনেতা। ২০১৩ সালে আতিক জামানের ইউনিভার্সিটি ধারাবাহিকে প্রথম অভিনয় করেন তিনি। এরপরে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হয়নি তার। বর্তমানে অভিনয় নিয়েই ব্যাস্ত সময় পার করছেন তিনি। তার সমসাময়িক ব্যস্ততা নিয়ে কথা বলেছেন ডেইলি বাংলাদেশ-এর সঙ্গে। আর তার সাক্ষাৎকার নিয়েছেন ইসমাইল উদ্দীন সাকিব। 

ডেইল বাংলাদেশ- বর্তমান কাজের ব্যাস্ততা কি নিয়ে? 
জোভান:
নাটক নিয়েই আছি। ভেলেন্টাইন'স ডে এর জন্য নাটক করছি। ‘মরীচিকা’ ওয়েব সিরিজ শেষ করলাম। টুকটাক ওটিটি প্লাটফর্মের কাজগুলো করছি। খুব শীঘ্রই তা জানতে পারবেন।

ডেইলি বাংলাদেশ- করোনার শুটিং এর অবস্থা কেমন, কতটা ঝুঁকিপূর্ণ?
জোভান:
লকডাউনের পর থেকেই টানা কাজ করছি। আলহামদুলিল্লাহ এখন পর্যন্ত সুস্থ আছি। প্রফেশন হিসেবে নিয়েছি। তাই রিস্কি হলেও কাজটা করতে হচ্ছে। সবচেয়ে বড় কথা, শুটিং এ সবাইকে যতটুকু সম্ভব একজন আরেকজনকে হেল্প করছে। শুটিং এ করোনার সতর্কতাগুলো মেনে চলা খুব কঠিন। 

ফারহান আহমেদ জোভান

ডেইলি বাংলাদেশ- ওয়েব সিরিজে কাজ করার অভিজ্ঞতা কেমন? 
জোভান:
আমি ওয়েব সিরিজে কাজ করেছি অনেক আগে থেকেই। শিহাব শাহিনের ‘মরিচিকা’ এই ওয়েব সিরিজটা আমার প্রথম নয়। এর আগেও আমি ৫-৬টা ওয়েব সিরিজ করেছি। এরমধ্যে রয়েছে তপু খানের ‘এডমিশন টেস্ট’, ভিকি জাহিদের ‘বাঘবন্ধি’, ‘মেমোরি’ নামে একটা ওয়েব সিরিজ ছিল স্বরাজ দেবের। যেটা তিন বছর আগে শুটিং হয়েছিল, এখনো রিলিজ হয়নি। এরকম আরো কয়েকটা করেছি। 

ডেইলি বাংলাদেশ- নাটক ও ওয়েব সিরিজে কাজের পার্থক্য কেমন দেখছেন?
জোভান: কাজের মধ্যে অবশ্যই পার্থক্য দেখেছি। শিহাব শাহিনের সেটে অ্যারেঞ্জমেন্টগুলো একদম সিনেমাটিক ছিলো। সিনেমার অ্যারেঞ্জমেন্ট যেমন হয় ঠিক তেমনি তিনি অ্যারেঞ্জমেন্ট করার চেষ্টা করেছেন। কারণ, ওয়েব সিরিজের বাজেট অনেক বেশি থাকে নাটকের চেয়ে। নাটকে চাইলেও সম্ভব হয়না। 

ডেইলি বাংলাদেশ- ওয়েব সিরিজ নিয়ে যে বিতর্ক চলছে এ ব্যাপারে আপনার কি মত? 
জাভান:
ওয়েব সিরিজ নিয়ে বিতর্ক পজেটিভ, নেগেটিভ দু’টোই আমি শুনেছি। বিতর্ক চলছে মানুষের মুখে মুখে। আসলে একটু টাইম দিতে হবে। নাটক কিন্তু একদিনে প্রতিষ্ঠিত হয়নি। অন্য প্লাটফর্ম যদি প্রতিষ্ঠিত হতে চায় সময় দিতে হবে। এতো তাড়াতাড়ি আসলে বিচার করা যাবে না। একটা দুইটা ওয়েব সিরিজ ভালো হয়েছে সেটার জন্য ভালো বলবো বা খারাপ হয়েছে সেটার জন্য খারাপ বলবো; এতো তাড়াতাড়ি বিচার করা ঠিক হবে না। 

ফারহান আহমেদ জোভান

ডেইলি বাংলাদেশ- দীর্ঘসময় ইন্ডাস্ট্রিতে কাজ করেছেন। ইন্ডাস্ট্রিতে বড় দুটো অভাব কি বলে মনে করেন?
জোভান:
ইন্ডাস্ট্রিতে ভালই সময় হয়ে গেলো। কয়েকবছর হলেই ১০ বছর হবে। বড় দুটো অভাব আমার কাছে মনে হয় প্রথমত নাটকের বাজেট স্বল্পতা। যদিও এখন আগের চেয়ে একটু ভালো বাজেটের কাজ হচ্ছে। অনেক প্রডিউসার, অনেক এজেন্সি আসছে এবং অনেক ইউটিউব চ্যানেল আসছে যারা ভালো বাজেট দিচ্ছে। বাজেট একটা প্রবলেম ছিল আগে। এখন একটু ভালো হচ্ছে। আরেকটা অভাব হচ্ছে, এই যে একটা নাটকে অনেক সেক্টরের মানুষ কাজ করেন। আমরা যদি যে যার জায়গা থেকে আরেকটু সময় কাজটা নিয়ে নিজেকে দিতাম বা হোমওয়ার্ক করতাম তাহলে আরেকটু স্মার্ট মেকিং এ যেতে পারতাম। 

ডেইলি বাংলাদেশ- এত এত কাজ হওয়ার পরও শুনা যায় নাটক ইন্ডাস্ট্রিতে মৌলিক গল্পের অভাব। আসলেই কি অভাব রয়েছে?
জোভান:
মৌলিক গল্পের অভাব নেই। বিশ্বাস করেন আমার নিজের কাছেই অনেক রাইটাররা গল্প দিয়ে রেখেছে। কিন্তু আমি সেগুলো এখন করতে পারছি না। কারণ মৌলিক গল্পগুলোতে কাজ করে লাভ নেই, মানুষ এখন দেখছে না। আগে যেমন টিআরপি ছিল এখন ভিউজটা চোখের সামনেই দেখা যাচ্ছে। তাই বলে দেয়া যায় মানুষ কোনটা দেখছে বা দেখছে না। এখন আসলে মৌলিক গল্পগুলো মানুষ অতটা পছন্দ করছে না। একটু ট্রেন্ডি, একটু দুষ্টামি, কমেডি, রোমান্টিক এই টাইপের গুলো একটু বেশি দেখতে চাচ্ছে। তাই এগুলোই এখন করতে হচ্ছে পাবলিক ডিমান্ডের জন্য। কিন্তু আমরা ভালো গল্পগুলো রেখে দিয়েছি ভালো সময় আসলে করবো ইনশাআল্লাহ্‌। 

ডেইলি বাংলাদেশ- মৌলিক গল্প দর্শক না দেখার কারণ কি বলে মনে করেন?
জোভান: মানুষ নাটক দেখে ব্যাক্তিগত জীবনের দুশ্চিন্তা থেকে মুক্তি পাওয়ার জন্য। তাই হয়ত মৌলিক গল্প দেখে না।

ফারহান আহমেদ জোভান

ডেইলি বাংলাদেশ- অনেকেই বলে প্রেমিক চরিত্রের বাইরে আপনাকে খুব কম দেখা যায়। এই অভিযোগ নিয়ে কি বলবেন?
জোভান:
আমি বলবো একদিক থেকে ঠিক, আরেক দিক থেকে ভুল। কারণ আমি এতো বছরের ক্যারিয়ারে কমপক্ষে ২৫০ থেকে ৩০০ নাটক করেছি। আমি কিন্তু সব নাটক রোমান্টিক করিনি। হয়তো দর্শকরা বেশি দেখেছে রোমান্টিকগুলো। কিন্তু আমি অনেক ধরণের গল্প করেছি। ডিফারেন্ট ক্যারেক্টারে অভিনয় করার চেষ্টা করেছি। কিছুদিন আগেই ‘অবাক যোগসুত্র’ নামে একটি মা কেন্দ্রিক নাটক করেছি। এখানে আমার প্রেমিক চরিত্র ছিল না। কিন্তু খুব কম মানুষ নাটকটি দেখেছে। প্রেমের বাইরে চরিত্র করলে হয়তো দর্শক ওগুলো পছন্দ করে না। অল্পকিছু মানুষ হয়তো পছন্দ করে। তাই দর্শকদের ডিমান্ডের কারণে ঐ ক্যারেক্টার গুলো করা হয় না। দর্শকরা যেটা পছন্দ করছে সেটাই করতে চাই।

ডেইলি বাংলাদেশ/টিএএস