৩ মাসে সাধারণ নির্বাচন সম্ভব নয়: পাকিস্তান নির্বাচন কমিশন

ঢাকা, বৃহস্পতিবার   ০৬ অক্টোবর ২০২২,   ২১ আশ্বিন ১৪২৯,   ০৯ রবিউল আউয়াল ১৪৪৪

Beximco LPG Gas

৩ মাসে সাধারণ নির্বাচন সম্ভব নয়: পাকিস্তান নির্বাচন কমিশন

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৫৮ ৫ এপ্রিল ২০২২   আপডেট: ১৪:৫৯ ৫ এপ্রিল ২০২২

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

পাকিস্তানের পার্লামেন্ট ভেঙে দিয়েছেন দেশটির রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভি। ফলে, আগামী ৯০ দিনের মধ্যে পরবর্তী নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ার সাংবিধানিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে। তবে এই সময়ের মধ্যে বহু আইনি জটিলতার কারণে সাধারণ নির্বাচন আয়োজন করা সম্ভব নয় বলে জানিয়েছে দেশটির নির্বাচন কমিশন (ইসিপি)।

পাকিস্তানের সংবাদমাধ্যম ডনকে নির্বাচন কমিশনের এক জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা জানান, পরবর্তী নির্বাচনের প্রস্তুতির জন্য প্রায় ছয় মাস সময় লেগে যাবে। কারণ বিভিন্ন এলাকা, বিশেষ করে খাইবার পাখতুনখাওয়ায় নতুন করে নির্বাচনী সীমানা নির্ধারণ করতে হবে। ২৬তম সংশোধনীর আওতায় খাইবার পাখতুনখাওয়ায় আসনসংখ্যা বেড়েছে। এ ছাড়া, জেলা ও নির্বাচনী আসনের সঙ্গে সংগতি রেখে ভোটার তালিকা হালনাগাদকরণের চ্যালেঞ্জটিও রয়েছে।

ওই কর্মকর্তা আরো বলেন,নির্বাচনী এলাকার সীমানা নির্ধারণের বিষয়টি সময়সাপেক্ষ ব্যাপার। এ কাজের ক্ষেত্রে শুধু আপত্তিপত্র আহ্বানের জন্যই আইনে এক মাসের সময় দেওয়া আছে।

এরপর নির্বাচনী এলাকার সীমা নির্ধারণ করতে অতিরিক্ত এক মাস সময় দিতে হবে। ভোটার তালিকা হালনাগাদ করার কাজটিতেও সময় লাগবে। এরপর পুরো নির্বাচনী প্রক্রিয়া শেষ করতে অতিরিক্ত তিন মাস সময় লাগবে বলে উল্লেখ করেছেন তিনি।

আরো পড়ুন: শ্রীলংকার কেন্দ্রীয় ব্যাংকে নতুন গভর্নর নিয়োগ

এ নির্বাচনী কর্মকর্তা মনে করেন, নির্বাচনসংক্রান্ত সামগ্রী সংগ্রহ, ব্যালট পেপার প্রস্তুত করা এবং ভোট গ্রহণের দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিদের নিয়োগ ও প্রশিক্ষণের বিষয়গুলোও চ্যালেঞ্জের। তিনি বলেন, আইন অনুসারে নির্বাচনে জলছাপযুক্ত ব্যালট পেপার ব্যবহার করতে হবে। তবে দেশে এ ধরনের ব্যালট পেপার না থাকায় তা আমদানি করতে হবে। তিনি আরও জানান, নির্বাচন কমিশন ব্যালট পেপারসংক্রান্ত আইন সংশোধনের প্রস্তাব দিয়েছে। ব্যালট পেপারে জলছাপের বদলে ‘নিরাপত্তামূলক ফিচার’ যুক্ত করার অনুরোধ জানানো হয়েছে।

কিছু আইনি জটিলতার কথা উল্লেখ করে নির্বাচন কমিশনের ওই জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, পাকিস্তানের নির্বাচনী আইনের ১৪ ধারা অনুযায়ী নির্বাচন কমিশনকে ভোটের চার মাস আগে নির্বাচনী পরিকল্পনা ঘোষণা করতে হবে। নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যে বেলুচিস্তানে স্থানীয় সরকার নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেছ। আগামী ২৯ মে এ নির্বাচন হবে। পাঞ্জাব, সিন্ধু ও ইসলামাবাদেও স্থানীয় সরকার নির্বাচনের প্রস্তুতি চলছে। এমন অবস্থায় সাধারণ নির্বাচন আয়োজন করতে হলে স্থানীয় নির্বাচনের পরিকল্পনা বাতিল করতে হবে বলে উল্লেখ করেন ওই কর্মকর্তা।

ডেইলি বাংলাদেশ/আরএএইচ

English HighlightsREAD MORE »