সীমান্তরক্ষী কর্মকর্তার বাড়িতে মিলল সাত গাড়ি, স্বর্ণালঙ্কার ও ১৪

ঢাকা, সোমবার   ২৩ মে ২০২২,   ৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৯,   ২১ শাওয়াল ১৪৪৩

Beximco LPG Gas

সীমান্তরক্ষী কর্মকর্তার বাড়িতে মিলল সাত গাড়ি, স্বর্ণালঙ্কার ও ১৪ কোটি টাকা

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০৩:০১ ১৭ জানুয়ারি ২০২২   আপডেট: ০৩:০৬ ১৭ জানুয়ারি ২০২২

উদ্ধার করা মালামাল: ছবি সংগহীত

উদ্ধার করা মালামাল: ছবি সংগহীত

ভারতের হরিয়ানায় দেশটির সীমান্তরক্ষী বাহিনীর এক কর্মকর্তার কাছ থেকে অবৈধ বিপুল মালামাল উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় তার স্ত্রী ও আরো দুজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

গ্রেফতারের সময় তার কাছ থেকে উদ্ধার কারা মালামালের মধ্যে রয়েছে ১৪ কোটি নগদ টাকা, এক কোটি টাকার স্বর্ণালঙ্কার এবং বিএমডব্লিউ-মার্সিডিসসহ সাতটি বিলাসবহুল গাড়ি।

বিএসএফের ডেপুটি কমান্ড্যান্ট প্রবীণ যাদবের বিরুদ্ধে মানুষের কাছ থেকে ১২৫ কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়ার অভিযোগ আনা হয়েছে। তার সঙ্গে গুরগাঁও পুলিশ তার স্ত্রী মমতা যাদব, বোন রিতু এবং এক সহযোগীকেও গ্রেফতার করা হয়েছে।

ভারতীয় এনডিটিভি জানায়, গুরগাঁওয়ের মানেসরে ‘ন্যাশনাল সিকিউরিটি গার্ড’ (এনএসজি)-এর সদর দফতরে নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন তিনি।

আরো পড়ুন: ভারতে ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ বোমা হামলাকারীর মৃত্যু

পুলিশ জানায়, আইপিএস কর্মকর্তা সেজে প্রবীণ যাদব নির্মাণ কাজ পাইয়ে দেওয়ার নাম করে ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে দিনের পর দিন কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়েছে। এরপর সেই টাকা এনএসজি'র নামে একটি ভুয়া অ্যাকাউন্টে পাঠাতেন তিনি। এই কাজে তাকে সাহায্য করতেন তার বোন, যিনি একটি বেসরকারি ব্যাংকের ম্যানেজার।

গুরগাঁও পুলিশের অপরাধ বিভাগের এসিপি প্রীত পাল সিং বলেন, প্রবীণ যাদব শেয়ারবাজারে ৬০ লাখ টাকা লোকসান হওয়ার পর তিনি পরিকল্পনা করেন প্রতারণার মাধ্যমে মানুষের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেয়ার।

পুলিশের তথ্যমতে, সম্প্রতি আগারতলায় বদলি হয়েছিলেন প্রবীণ। কিন্তু তিনি প্রতারণার মাধ্যমে বিপুল পরিমাণ সম্পদ গড়েন। কয়েকদিন আগে তিনি চাকরি থেকে পদত্যাগ করেন। সূত্র-এনডিটিভি

ডেইলি বাংলাদেশ/জেডআর

English HighlightsREAD MORE »