পাকিস্তানে শ্রীলঙ্কান নাগরিক হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ১২০

ঢাকা, মঙ্গলবার   ১৮ জানুয়ারি ২০২২,   ৫ মাঘ ১৪২৮,   ১৩ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

পাকিস্তানে শ্রীলঙ্কান নাগরিক হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ১২০

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৫:৩৫ ৫ ডিসেম্বর ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

পাকিস্তানে শ্রীলঙ্কার এক কারখানা ব্যবস্থাপককে পিটিয়ে হত্যার পর মরদেহ আগুনে পুড়িয়ে দেওয়ার ঘটনায় অন্তত ১২০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।

শনিবার দেশটির কর্মকর্তারা এ তথ্য জানিয়েছেন। ধর্ম অবমাননার অভিযোগে গত শুক্রবার একদল জনতা কারখানায় ঢুকে শ্রীলঙ্কান সেই ব্যবস্থাপককে বের করে এনে হত্যা করে।

প্রকাশ্যে নৃশংস এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ব্যাপক সমালোচনা শুরু হয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান এ ঘটনাকে পাকিস্তানের জন্য লজ্জার দিন বলে অভিহিত করেছেন।

পুলিশের মুখপাত্র খুররম শেহজাদ বলেন, এখন পর্যন্ত ১২০ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাঁদের মধ্যে প্রধান অভিযুক্ত ব্যক্তিও আছেন। গ্রেফতার অভিযান এখনো চলছে।

প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের ধর্মীয় সম্প্রীতিবিষয়ক বিশেষ প্রতিনিধি ও ধর্মী নেতা তাহির আশরাফি গ্রেপ্তারের তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন।

গত শুক্রবার পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের শিল্পনগরী শিয়ালকোটে ‘ভয়ংকর’ এই হত্যাকাণ্ড ঘটে। নিহত ব্যক্তির নাম প্রিয়ান্থা দিয়াওয়াদনা। শ্রীলঙ্কার এই নাগরিক সাত বছর ধরে শিল্প–প্রকৌশল প্রতিষ্ঠান রাজকো ইন্ডাস্ট্রিজের ব্যবস্থাপক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া ভিডিওতে দেখা যায়, প্রিয়ান্থাকে মেঝেতে ছুড়ে ফেলে দেওয়া হচ্ছে। শত শত মানুষ তাঁর জামা-কাপড় ছিঁড়ছে। সহিংসভাবে তাকে মারধর করছে। পিটিয়ে হত্যার পর তাঁর লাশ পোড়ানো হয়। কয়েক ডজন মানুষকে তাঁর লাশের সঙ্গে ছবি তুলতেও দেখা যায়।

গুজব থেকে ঘটনার শুরু। গুজব ওঠে যে প্রিয়ান্থা ধর্মীয় বাণী লেখা একটি পোস্টার ছিঁড়ে তা ডাস্টবিনে ফেলেছেন। এমন অভিযোগ ওঠার পর লোকজন উত্তেজিত হয়ে হামলা চালান।

ইমরান খান ঘটনার নিন্দা জানিয়ে টুইট করেছেন। তিনি বলেছেন, শিয়ালকোটে কারখানায় ভয়াবহ হামলা ও শ্রীলঙ্কান ব্যবস্থাপককে হত্যার ঘটনা পাকিস্তানের জন্য লজ্জার দিন। তিনি নিজেই তদন্ত কার্যক্রম তত্ত্বাবধান করছেন। এ ঘটনায় দায়ীদের আইনের আওতায় এনে সর্বোচ্চ শাস্তি দেওয়া হবে।

সূত্র: এএফপি

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী

English HighlightsREAD MORE »