নিখোঁজ হওয়ার ৩৭ বছর পর ঘরে ফিরে এলেন গৃহবধু

ঢাকা, শুক্রবার   ২১ জানুয়ারি ২০২২,   ৮ মাঘ ১৪২৮,   ১৬ জমাদিউস সানি ১৪৪৩

নিখোঁজ হওয়ার ৩৭ বছর পর ঘরে ফিরে এলেন গৃহবধু

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৪:৫৪ ২৯ নভেম্বর ২০২১  

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

প্রায় ৩৭ বছর আগে কোনো এক বিকেলে হাটে গিয়ে আর বাড়ি ফেরেননি ঝাড়খণ্ডের বোকারো জেলার কুমারদাগার বাসিন্দা ভবানী দেবী। সেই সময় অনেক খোঁজখবর করেও তার সন্ধান পাননি স্বামী উমাপদ বাউরি। তবে সবাইকে অবাক করে দিয়ে স্বামীর ঘরে ফিরেছেন সেই নারী।

রোববার (২৮ নভেম্বর) ভারতের পশ্চিমবঙ্গের দক্ষিণ ২৪ পরগনা জেলার বকখালিতে এই ঘটনা ঘটে। এসময় বহু বছর পর স্বামী-স্ত্রী একে অপরকে দেখে আবেগ আপ্লুত হয়ে ওঠেন। মূলত ভারতের হ্যাম রেডিও’র উদ্যোগে হারিয়ে যাওয়া ভবানী দেবীকে তার স্বামীর কাছে পৌঁছে দেয়া হয়।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম আনন্দবাজার জানায়, প্রায় ৩৭ বছর আগে কোনো এক বিকেলে হাটে গিয়ে আর বাড়ি ফেরেননি ঝাড়খণ্ডের বোকারো জেলার কুমারদাগার বাসিন্দা ভবানী দেবী। সেই সময় অনেক খোঁজখবর করেও সন্ধান মেলেনি তার। ঘটনার ১৫ বছর পর স্ত্রীর মৃত্যুর সনদ হাতে পেয়েছিলেন উমাপদ। ঘরে দুই মেয়ে সন্তান। তাদের কথা ভেবেই দ্বিতীয় বিয়ে করেছিলেন উমাপদ।

তবে দীর্ঘ এসময় পথেঘাটেই ঘুরে বেড়িয়েছেন ভবানী দেবী। ঘুরতে ঘুরতে শেষমেষ তার ঠাঁই হয় বকখালির সমুদ্রসৈকতের কাছে বানেশ্বর নামক স্থানে। সেখানে এক ব্যবসায়ীর বাড়িতে কাজ করতেন ভবানী।

কিছুদিন আগে একজন পর্যটকের মাধ্যমে ভবানী দেবীর নিখোঁজ হওয়ার পুরো খবর জানতে পারে ‘হ্যাম রেডিও’। রেডিওটির সংবাদকর্মী ও সুন্দরবন জেলা পুলিশ ভবানীর পরিচয় বের করেন। তারপর যোগাযোগ করা উমাপদের সঙ্গে।

তবে উমাপদের ঘরে ফেরায় বিপত্তি বাধে বাউরি সম্প্রদায়ের মানুষের রীতিনীতিতে। প্রতিবেশীরা কোনোভাবেই ভবানীকে স্বামীর ঘরে ফিরতে দিতে রাজি হচ্ছিলেন না। পরে বাউরি সম্প্রদায়ের গুরু ও স্থানীয় রাজনৈতিক নেতারা ভবানী দেবীকে উমাপদের ঘরে ফেরানোর ব্যবস্থা করেন।

রোববার উমাপদ বাউরি ও তাদের প্রতিবেশীরা ভবানী দেবীকে স্বামীর ঘরে ফেরাতে যান সুন্দরবন জেলা পুলিশের এসপির কার্যালয়ে। সেখানে ৩৭ বছর পর মুখোমুখি হন উমাপদ ও ভবানী দম্পতি।

হ্যাম রেডিও’র পশ্চিমবঙ্গ স্টেশনের সম্পাদক অম্বরিশ নাগ বিশ্বাস বলেন, ‘প্রথমে ওই নারীর প্রতিবেশীরা তাকে ফিরিয়ে নিতে চাইছিলেন না। পরে স্থানীয় প্রশাসনের তৎপরতায় তাদেরকে রাজি করানো হয়।’

সুন্দরবন জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার রাকেশ সিংহ বলেন, ‘ভবানী দেবীকে স্বামীর ঘরে ফেরাতে পেরে আমরা আনন্দিত। এ কাজে হ্যাম রেডিও এবং প্রশাসন অনেক সহযোগিতা করেছে।’

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী

English HighlightsREAD MORE »