রাত ১০টায় শুরু বাংলাদেশ-পাকিস্তান প্রথম টেস্ট!

ঢাকা, রোববার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ২১ ১৪২৮,   ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

রাত ১০টায় শুরু বাংলাদেশ-পাকিস্তান প্রথম টেস্ট!

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ০০:৩৯ ২৬ নভেম্বর ২০২১  

ছবি : সংগৃহীত

ছবি : সংগৃহীত

বাংলাদেশ ও পাকিস্তানের মধ্যেকার প্রথম টেস্ট মাঠে গড়াবে শুক্রবার। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে ম্যাচটা শুরু হবে সকাল ১০টায়। এ ম্যাচে স্টেডিয়ামে ৫ হাজার দর্শক প্রবেশের অনুমতি দিয়েছে বিসিবি। সেভাবেই টিকিট বাজারে ছেড়েছে দেশের ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থা। কিন্তু টিকিটে উল্লেখ করা সময় অনুযায়ী ম্যাচ শুরু রাত ১০টায়!

টিকেটের গায়ে দেখা যায়, ম্যাচের সময়ের জায়গায় ১০ এএম এর পরিবর্তে লেখা ১০ পিএম। ম্যাচ শুরুর সূচির সঙ্গে টিকিটে দেয়া সূচির পার্থক্য পুরো ১২ ঘণ্টা। এএম ও পিএমে তালগোল পাকিয়ে টিকিটে এমন ভুল করেছে বিসিবি।

এর আগে পাকিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচের দিন বিসিবির অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে ২০১৯ বিশ্বকাপে সাকিব আল হাসানের একটি ছবির মাথা কেটে সেখানে বসিয়ে দেওয়া হয় অভিষিক্ত শহিদুল ইসলামের মুখ। বিসিবির ওই পোস্টের পর রীতিমতো হইচই পড়ে যায়।

২০১৮ সালে বাংলাদেশে আয়োজিত ত্রিদেশীয় সিরিজেও টিকিটে ভুল করেছিল বিসিবি। বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার ১৯ জানুয়ারির ম্যাচের টিকিটে ইংরেজিতে ‘BNANGLADESH’ লেখা হয়েছিল। যদিও ম্যাচের আগেই তা পরিবর্তনের সুযোগ করে দিয়েছিল বোর্ড।

কদিন আগেই পেসার শহিদুল ইসলামের ছবি পোস্ট করতে গিয়ে ফটোশপের আশ্রয় নেয় বিসিবি। সাকিব আল হাসানের ছবির গলা কেটে সেখানে শহিদুলের মুখ বসিয়ে সেটা অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে পোস্ট করে বিসিবি। যা নিয়ে রাজ্যের সমালোচনা হয়।

বৃহস্পতিবার সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়াম সংলগ্ন বিটাক মোড় ও এম.এ আজিজ স্টেডিয়ামের নির্ধারিত বুথে টিকেট বিক্রি করা হয়। টিকেট হাতে নিয়ে অনেকে এদিক-সেদিক তাকাতে শুরু করেন। অন্যের টিকেটেও চোখ বুলাতে থাকেন তারা। ভুল দেখে কেউ কেউ কাউন্টারে গিয়ে জানান ব্যাপারটা। কিন্তু বুথে টিকেট বিক্রির দায়িত্বে থাকা ব্যক্তিরা জানান, এ নিয়ে কিছুই করার নেই তাদের। তাদের কাছে থাকা সব টিকেটেই ম্যাচ শুরুর সময় রাত ১০টা।

এ বিষয়ে বিসিবি পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস বলেছেন, এ ঘটনা দুঃখজনক। বারবার এমন ভুল বিসিবির সুনাম নষ্ট হচ্ছে। সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিকে আরো সচেতন হয়ে কাজ করতে হবে। পুরো ব্যাপারটি জেনে এ ব্যাপারে আমরা করণীয় ঠিক করব।

ডেইলি বাংলাদেশ/জেএইচ