বিয়ের অনুষ্ঠানে উচ্চশব্দে বাজছিল গান, ভয়ে মারা গেলো ৬৩টি মুরগি!

ঢাকা, বুধবার   ০১ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ১৭ ১৪২৮,   ২৪ রবিউস সানি ১৪৪৩

বিয়ের অনুষ্ঠানে উচ্চশব্দে বাজছিল গান, ভয়ে মারা গেলো ৬৩টি মুরগি!

আন্তর্জাতিক ডেস্ক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১৭:৪৫ ২৫ নভেম্বর ২০২১   আপডেট: ১৯:২৮ ২৫ নভেম্বর ২০২১

ছবি: সংগৃহীত

ছবি: সংগৃহীত

বিয়ে উপলক্ষে উচ্চশব্দে বাজছিল গান-বাজনা। কিন্তু সেই উচ্চশব্দের কারণে নিকটবর্তী খামারের ৬৩টি মুরগি মারা গেছে বলে অভিযোগ করেছেন এক খামারি।

রোববার (২১ নভেম্বর) ভারতের ওড়িশা রাজ্যে স্থানীয় সময় মাঝরাতে এ ঘটনা ঘটে বলে এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে বার্তা সংস্থা এএফপি।

খামারটির মালিক রণজিৎ কুমার পারিদার অভিযোগ, ‘ওই বিয়ের অনুষ্ঠানে ‘কান ছিঁড়ে যাওয়ার মতো’ শব্দে বাদ্যযন্ত্র বাজানো হচ্ছিল। ওই শব্দের কারণেই মুরগিগুলো মারা যায়।’

পারিদা এএফপিকে বলেন, ‘উচ্চমাত্রার শব্দে মুরগিগুলো ভয় পাচ্ছিল দেখে আমি সেখানকার লোকজনকে বলেছিলাম ভলিউম কমাতে। কিন্তু তারা শোনেনি উল্টে বরের বন্ধুরা আমার সঙ্গে দুর্ব্যবহার করেছে।’

একজন ভেটেরিনারি চিকিৎসকের বরাত দিয়ে তিনি আরো বলেন, মুরগিগুলো হার্ট অ্যাটাকে মারা গেছে। ঘটনার পর বিয়েবাড়ির লোকজনের কাছে ক্ষতিপূরণ চাইলে তারা তা দিতে অস্বীকৃতি জানায়। এরপর তিনি বিষয়টি নিয়ে পুলিশের কাছে অভিযোগ করেন।

প্রাণীদের আচরণ নিয়ে বই লিখেছেন প্রাণীবিদ্যার অধ্যাপক সূর্যকান্ত মিশ্রা। হিন্দুস্তান টাইমসকে তিনি বলেন, উচ্চমাত্রার শব্দে পাখিদের মধ্যে হৃদরোগের ঝুঁকি বেড়ে যায়।

প্রফেসর মিশ্রা বলেন, ‘মুরগির একটি শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া দিন-রাতের আলো বা আঁধারের মাধ্যমে প্রাকৃতিকভাবে নিয়ন্ত্রিত হয়।’

তিনি আরও বলেন, ‘উচ্চমাত্রার শব্দের মাধ্যমে সৃষ্ট হঠাৎ উত্তেজনা অথবা মানসিক অবস্থায় তাদের শরীরের স্বাভাবিক প্রক্রিয়াকে ব্যাহত করে।’

তবে ওড়িশার ঘটনাটি ‘পারস্পারিক সমঝোতার’ মাধ্যমে মিটিয়ে ফেলার জন্য বলেছে পুলিশ। উভয়পক্ষই পুলিশের সিদ্ধান্ত মেনে নিয়েছে।

স্থানীয় পুলিশ কর্মকর্তা দ্রৌপদী দাস বলেন, ‘পোল্ট্রি খামারের মালিক অভিযোগ তুলে নেয়ায় আমরা অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেইনি।’

ডেইলি বাংলাদেশ/মাহাদী