ফিরে এল নাকিয়ার ফোন, বাংলাদেশেই হচ্ছে উৎপাদন

ঢাকা, রোববার   ০৫ ডিসেম্বর ২০২১,   অগ্রহায়ণ ২১ ১৪২৮,   ২৮ রবিউস সানি ১৪৪৩

ফিরে এল নাকিয়ার ফোন, বাংলাদেশেই হচ্ছে উৎপাদন

নিজস্ব প্রতিবেদক ডেইলি-বাংলাদেশ ডটকম

 প্রকাশিত: ১১:৪৭ ২৫ নভেম্বর ২০২১  

ফাইল ছবি

ফাইল ছবি

মুঠোফোনের বিপ্লবের সময় একচেটিয়া বাজার দখল করেছিল নাকিয়া। কিন্তু সময়ের আবর্তনে বাজার হারায় মুঠোফোন উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানটি। তাদের জায়গা দখল করে বেশ কয়েকটি বৈশ্বিক ব্র্যান্ড। তবে আবার বাজার দখল করতে মরিয়া নকিয়া। এরই মধ্যে বাংলাদেশের বাজার দখল করতে দেশটিতে নকিয়া ফোন উৎপাদনের জন্য কারখানা স্থাপন করছে পোশাক খাতের স্থানীয় কোম্পানি ইউনিয়ন গ্রুপ।

সূত্র জানায়, নকিয়া ফোনের কারখানা নির্মাণ ও অবকাঠামোগত উন্নয়নে ইউনিয়ন গ্রুপ পর্যায়ক্রমে ৪ কোটি ডলার বা ৩৪৪ কোটি টাকা বিনিয়োগ করবে। এরই মধ্যে গাজীপুরের কালিয়াকৈরের বঙ্গবন্ধু হাইটেক সিটির পাঁচ একর জমিতে গড়ে তোলা হয়েছে কারখানা। সেখানে চলছে নকিয়া ফোনের কিছু মডেলের উৎপাদন। শিগগিরই উৎপাদন শুরু হবে আরো কয়েকটি মডেলের। এজন্য বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন থেকে যুক্তরাজ্যভিত্তিক ভাইব্র্যান্ট সফটওয়্যার ও বাংলাদেশের ইউনিয়ন গ্রুপের যৌথ মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান ভাইব্র্যান্ট সফটওয়্যার (বিডি) লিমিটেড অনুমোদন পেয়েছে। গত মার্চে তিন বছরের জন্য নকিয়া ফোন উৎপাদনের অনুমোদন দেয় বিটিআরসি।

২০১০ সালেও স্মার্টফোনের দুনিয়ায় শীর্ষে ছিল ফিনল্যান্ডের নকিয়া। ২০১০ সালে বিশ্বে যত স্মার্টফোন বিক্রি হয়েছিল, তার ৩৩ দশমিক ১ শতাংশই ছিল নকিয়ার।

ইউনিয়ন গ্রুপ জানায়, কারখানায় মোট ছয়টি প্রডাকশন লাইন রয়েছে। এর মধ্যে চারটি সংযোজন ও দুটি লাইন প্যাকেজিংয়ের রয়েছে। কারখানাটিতে কাজ করছেন ২০০ কর্মী। গত সেপ্টেম্বরের মাঝামাঝি কারখানায় মুঠোফোন সংযোজনের কাজ শুরু হয়। আপাতত নকিয়ার ৩.৪ মডেলের স্মার্টফোন তৈরি করা হচ্ছে। এ মডেলের ১০ থেকে ১২ হাজার ইউনিট মুঠোফোন বাজারে ছাড়া হয়েছে। এতে ভালো সাড়াও মিলেছে। কারখানায় এখন জি-১০ ও জি-২০ মডেলের স্মার্টফোন উৎপাদিত হচ্ছে। দৈনিক৩০০-৫০০ ইউনিট মুঠোফোন তৈরি হচ্ছে।

ডেইলি বাংলাদেশ/এমকেএ